প্রকাশিত :  ০৬:১২, ১৩ নভেম্বর ২০১৯
সর্বশেষ আপডেট: ১০:৩৪, ১৬ নভেম্বর ২০১৯

ব্রেক্সিট বিরোধী অঙ্গীকারনামায় স্বাক্ষর করলেন ৩ ব্রিটিশ-বাংলাদেশি এমপি

ব্রেক্সিট বিরোধী অঙ্গীকারনামায় স্বাক্ষর করলেন ৩ ব্রিটিশ-বাংলাদেশি এমপি

জনমত ডেস্ক: যুক্তরাজ্য বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত তিন ব্রিটিশ এমপিই ব্রেক্সিট বিরোধী একটি কার্যক্রমে যুক্ত হয়েছেন। তারা বলেছেন ১২ ডিসেম্বর আসন্ন নির্বাচনে তাদের আসনে জয় পেলে যুক্তরাজ্যকে ইউরোপীয় ইউনিয়ন ত্যাগে বাধা দেওয়ায় ভুমিকা রাখতে চান। এই সংক্রান্ত একটি অঙ্গীকারনামাতেও স্বাক্ষর করেছেন এই পার্লামেন্ট সদস্যরা।  

আগে থেকেই চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিটের বিরোধিতায় সরব রয়েছেন লেবার পার্টির এই এমপিরা। উত্তর লন্ডনের হ্যাম্পস্টিড ও কিলবার্ন থেকে দাঁড়াচ্ছেন টিউলিপ। রুপা হক দাঁড়াচ্ছেন ইলিং ও সেন্ট্রাল অ্যাকশন থেকে। আর রুশনারা আলি দাঁড়াচ্ছেন বেথনাল গ্রিন ও বাউ থেকে। লেবার পার্টির ১০০ জনেরও বেশি প্রার্থী ‘রিমেইন লেবার ক্যাম্পেইন প্লেজ’ নামের এই কার্যক্রমে স্বাক্ষর করেছে।

এমপিরা বলেন, ‘লেবার পার্টি আবার গণভোট আয়োজনে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আমরা চাই আপনারা আপনাদের চূড়ান্ত রায় দেওয়ার সুযোগ পান। আমি পুনরায় এমপি নির্বাচিত হলে, ইইউয়ে থাকার চেষ্টা করবো। 

তিনজন এমপিই অনেক দিন ধরে ব্রেক্সিটের বিরুদ্ধে নিজেদের সরব অবস্থান জানিয়েচ আসছে। ৩১ অক্টোবর ব্রেক্সিটের সময়সীমাকে সামনে রেখে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের বিভিন্ন পদক্ষেপের সমালোচনা করেছেন তারা। এখন আগামী মাসে অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনকে সামনে রেখে পরিকল্পনা করছেন তারা। ৩১ জানুয়ারি ২০২০ এর মধ্যে ব্রেক্সিট থামানোর লক্ষ্য তাদের।

বিরোধী দল লেবার পার্টি ব্রেক্সিট বিরোধী প্রচারণাচালিয়ে আসছে। রুপা হক বলেন, তিনি লেবার পার্টির এই অঙ্গীকারনামায় স্বাক্ষর করতে পেরে খুশি। তার আসনে ১৬ হাজারেও বেশি সমর্থন রয়েছে রুপার। অন্যদিকে গতবার ১৫ হাজার ভোট পাওয়া টিউলিপ সিদ্দিকী বলেন, ‘ব্রেক্সিটের বিরুদ্ধে আমার অবস্থান পরিস্কার। আমি সংবিধানের ৫০ ধারার বিরুদ্ধে রায় দিয়ে ছায়ামন্ত্রীর দায়িত্ব হারিয়েছি।’

আর ৩৫ হাজারেরও বেশি ভোট পাওয়া রুশনারা আলি বলেন, ইউরোপের বাজার থেকে বের হয়ে আসাটা আমাদের অর্থনৈতিক ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়াবে। আমাদের ব্যবসায়ী ও তাদের কর্মীদের জন্য তা মারাত্মক পরিণতি ডেকে আনবে।



Leave Your Comments


ব্রেক্সিট এর আরও খবর