আইটিভির আয়োজন

প্রকাশিত :  ০৬:৪১, ২০ নভেম্বর ২০১৯
সর্বশেষ আপডেট: ১৩:০৫, ২০ নভেম্বর ২০১৯

নির্বাচন নিয়ে জনসন-করবিনের মধ্যে তুমুল বিতর্ক

নির্বাচন নিয়ে জনসন-করবিনের মধ্যে তুমুল বিতর্ক

জনমত ডেস্ক: ব্রিটিশ পার্লামেন্ট নির্বাচন ১২ ডিসেম্বর। মধ্যবর্তী এই জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে জমে উঠেছে নির্বাচনী প্রচার প্রচারনা। নির্বাচনকে সামনে রেখে গত ১৯ ডিসেম্বর স্থানীয় সময় রাত আট টায় আইটিভি আয়োজন করেছিল প্রধানমন্ত্রী ও কনজারভেটিভ পার্টির লিডার বরিস জনসন এবং প্রধান বিরোধী দলীয় নেতা ও লেবার পার্টির লিডার জেরেমি করবিন মধ্যে মুখোমুখি বিতর্ক । যা সরাসরি আইটিভিতে প্রচারিত হয়েছিল। আইটিভি নিউজ রিডার জার্নালিস্ট জুলি এচিংহামের দক্ষ উপস্থাপনায় বিতর্কে প্রধান্য পায় ব্রেক্সিট ইস্যু ও এন এইচ এস ইস্যু। বিতর্কে প্রায় প্রতিটি প্রশ্নের উত্তরে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ব্রেক্সিট ইস্যু  টেনে আনেন যার ফলে অনুষ্ঠানের উপস্থাপিকা বার বার তাকে স্টপ করার চেষ্টা করেন। পক্ষান্তরে বিরোধী দলীয় নেতা জেরেমি করবিন যুক্তিযুক্ত ও সাবলীলভাবে তার উত্তর উপস্থাপন করেন।
প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন জনগণের ভোটে বিজয়ী হলে জানুয়ারির মধ্যে ব্রেক্সিট সম্পন্ন করার কথা বল্লে করবিন বলেন এটা অবাস্তব। তিনি বলেন, লেবার পার্টি ক্ষমতায় গেলে সেকেন্ড রেফারেন্ডামের মাধ্যমে ব্রেক্সিট ইসযুর নিস্পত্তি করবে। এন এইচ এস বিষয়ক এক প্রশ্নের জবাবে করবিন বলেন কনজারভেটিভ চাচ্ছে এন এইচ এসকে প্রাইভেটাইজ করতে, লেবার ক্ষমতায় আসলে এন এইচ এসকে প্রাইভেটাইজেশনের হাত থেকে রক্ষা করবে। প্রতি উত্তরে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন করবিনের দাবী অস্বীকার করে বলেন ব্রেক্সিটের পরে এই খাতে বরাদ্দ বাড়ানো হবে।
এছাড়া অন্যান্য ইস্যু যেমন শিক্ষা, লিভিং ওয়েজেস, সোস্যাল কেয়ার ও পাবলিক সার্ভিসে বরাদ্দ বাড়ানোর ব্যাপারে দুই নেতা প্রায় সহমত পোষন করেন। এদিকে বিতর্ক শেষে আইটিভি নিউজের এক টুইটার ভোটে ৭৮ ভাগ মানুষ বিতর্কে জেরেমি করবিনকে বিজয়ী হিসেবে দেখছেন।



Leave Your Comments


নির্বাচন এর আরও খবর