প্রকাশিত :  ০৯:২৭, ১৯ জানুয়ারী ২০২০

শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনায় শেষ হলো বিশ্ব ইজতেমা

শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনায় শেষ হলো বিশ্ব ইজতেমা

জনমত ডেস্ক: লাখো মুসল্লীর অংশগ্রহণে আল্লাহপাকের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা, মুসলিম উম্মাহর ইহকালীন শান্তি, ঐক্য, দেশ-জাতির সমৃদ্ধি, কল্যাণ কামনা ও পরকালীন মুক্তির আবেদনের মধ্যদিয়ে শেষ হলো এবারের  ৫৫তম বিশ্ব ইজতেমা।

রোববার (১৯ জানুয়ারি) বেলা পৌনে ১২টার দিকে আখেরি মোনাজাত শুরু হয়। আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন দিল্লির নিজাম উদ্দিন মার্কাজের মুরব্বি মাওলানা জামশেদ। এসময় মোনাজাতে অংশ নেয়া লাখ লাখ মুসল্লির আমিন আমিন ধ্বনিতে প্রকম্পিত হয়ে ওঠে তুরাগ তীরের মাঠ।

এর আগে বাদ ফজর উর্দুতে বয়ান করেন ভারতের নিজামুদ্দিনের মুরুব্বি ইকবাল হাফিজ। তা বাংলায় তরজমা করেন মাওলানা ওয়াসিফুল ইসলাম। পরে হেদায়েতি বয়ান করেন নিজামুদ্দিনের মাওলানা জামশেদ। তা বাংলায় তরজমা করেন মাওলানা আশরাফ আলী।

দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে শনিবার সকাল থেকেই হাজার হাজার মুসল্লি ইজতেমায় অংশ নেন। রোববার সকালেও বিভিন্ন প্রান্ত থেকে পায়ে হেটে বিপুল সংখ্যক মুসল্লি ময়দানে হাজির হন। সকাল ১০টার আগেই ইজতেমা ময়দান কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়।

মুসল্লিরা মাঠের আশে-পাশের অলি-গলি, রাস্তা, পাশ্ববর্তী বাসা-বাড়ি-কলকারখানা-অফিস-দোকানের ছাদে, যানবাহনের ছাদে ও তুরাগ নদীতে নৌকায় মুসল্লিরা অবস্থান নেন। ইজতেমাস্থলে পৌঁছাতে না পেরে কয়েক লাখ মুসল্লি ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে অবস্থান নেন।

এদিকে, বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাত শেষ না হওয়া পর্যন্ত বেশ কয়েকটি রাস্তা দিয়ে যান চলাচল বন্ধ রাখা হয়।

এর আগে ১৭ জানুয়ারি (শুক্রবার) ফজর নামাজের পর আম বয়ানের মাধ্যমে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শুরু হয়। গত ১২ জানুয়ারি বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের আখেরি মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।





Leave Your Comments


ধর্ম এর আরও খবর