প্রকাশিত :  ০৮:১৮, ০৫ আগষ্ট ২০২০

লেবাননে বিস্ফোরণে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ২১ সদস্য আহত

লেবাননে বিস্ফোরণে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ২১ সদস্য আহত

 জনমত ডেস্ক : লেবাননের রাজধানী বৈরুতে দুটি ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনায় বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ২১ জন সদস্য আহত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

আহতদের মধ্যে ৫ জনকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। গুরুতর আহত ওই নৌ সেনাকে আমেরিকান ইউনিভার্সিটি অব বৈরুত মেডিকেল সেন্টারে (এইউবিএমসি) চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। বাকিরা আশঙ্কামুক্ত আছেন। 

বুধবার (০৫ আগস্ট) বৈরুতে বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রথম সচিব শ্রম ও দূতালয় প্রধান আবদুল্লাহ আল মামুন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানিয়েছেন, বিস্ফোরণের সময় বৈরুত বন্দরে বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর যুদ্ধ জাহাজ বিএনএস বিজয় অবস্থান করছিল। এ বিস্ফোরণের ঘটনায় বেশ কয়েকজন প্রবাসী বাংলাদেশিও আহত হয়েছেন বলে জানান তিনি। বিস্ফোরণে জাহাজটি ক্ষগ্রিস্ত হয়েছে।

এদিকে বুধবার দুপুরে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর (আইএসপিআর)-এর সহকারী তথ্য অফিসার (নৌবাহিনী ডেস্ক) এস এম শামীম আলম উল্লিখিত তথ্যসমূহের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

নৌবাহিনী জানিয়েছে, জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে মেরিটাইম টাস্কফোর্সের অধীনে বাংলাদেশ নৌবাহিনী জাহাজ বিজয় এ ছিলেন তারা। আহত অন্যদের ইউনিফিলের তত্ত্বাবধানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে হেলিকপ্টার বা অ্যাম্বুলেন্সে করে হামুদ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে তারা শঙ্কামুক্ত। শান্তিরক্ষা মিশন ইউনিফিলের সার্বিক তত্ত্বাবধানে আহত নৌসদস্যদের চিকিৎসা চলছে।

গতকাল মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় রাত ৯টার পর বৈরুতে দুটি বড় ধরনের বিস্ফোরণের ঘটনায় অন্তত ৭৮ জন নিহত ও ৪ হাজারেরও বেশি মানুষ আহত হয়। বিস্ফোরণের ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর মুহূর্তেই গোটা বিশ্বে তোলপাড় পড়ে যায়। ভিডিওতে দেখা যায়, একটি নয়, পরপর দুটি বিস্ফোরণ ঘটে বৈরুতে।

তাৎক্ষণিকভাবে বিস্ফোরণের কারণ জানা না গেলেও দেশটির একাধিক সরকারি কর্মকর্তার বক্তব্যের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স ও সিএনএন-এর খবরে এটি স্পষ্ট যে, বিস্ফোরণস্থলে অ্যামোনিয়াম নাইট্রেটের মতো প্রচুর পরিমাণে বিস্ফোরক বোঝাই ছিল। অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট সাধারণত বোমা তৈরি পাশাপাশি সার তৈরিতেও ব্যবহার হয়। বিস্ফোরণে ছোটখাটো ভূমিকম্পের মতো কেঁপে উঠে পুরো বৈরুত শহর। 

বিস্ফোরণের ঘটনার পর রাতেই দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে দেয়া জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণে লেবাননের প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াব দায়ীদের হুঁশিয়ারি দেন।

তিনি বলেন, ‘এ ভয়াবহ বিপর্যয়ের জন্য যারা দায়ী তাদের এর মাশুল গুণতে হবে। দোষীদের কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। বিস্ফোরণে হতাহতদের কাছে এটা আমার প্রতিশ্রুতি ও জাতীয় অঙ্গীকার।’

অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট থেকেই বিস্ফোরণ হয়েছে নিশ্চিত করে দেশটির অভ্যন্তরীণবিষয়ক মন্ত্রী মোহাম্মদ ফাহমি।

তবে বৈরুতে বিস্ফোরণের ঘটনাকে ভয়াবহ ‘বোমা হামলা’ দাবি করে প্রয়োজনে মিত্র দেশ লেবাননের পাশে থাকার কথা জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

লেবাননের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, বৈরুতের হাসপাতালগুলোতে তিল ধারণেরও জায়গা নেই। আহতদের অনেকে বৈরুতের বাইরে অন্যান্য হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে ছুটছেন। তাদের যথাসাধ্য সরকারি সহায়তা দেয়া হচ্ছে। সরকার ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে থাকবে।


Leave Your Comments


বাংলাদেশ এর আরও খবর