প্রকাশিত :  ০৮:৩৩, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২০

করোনায় হ্যান্ডশেকের পরিবর্তে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেছে তু্র্কিদের এই রীতি

করোনায় হ্যান্ডশেকের পরিবর্তে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেছে তু্র্কিদের এই রীতি

জনমত ডেস্ক: বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের পর চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা তা থেকে সুরক্ষিত থাকতে সবাইকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার প্রতি বিশেষ গুরুত্বারোপ করেন।

এক্ষেত্রে কোলাকুলি ও হ্যান্ডশেক (করমর্দন) এর মতো অভিবাদনের রীতি থেকে সাময়িক বিরত থাকার পরামর্শ দেন তারা।

কিন্তু এই সময়ে কোলাকুলি ও হ্যান্ডশেকের জায়গায় কয়েকটি শুভেচ্ছা বা অভিবাদনরীতি বেশ জনপ্রিয়তা পায়- এর একটি বুকের বামপাশে ডানহাত রেখে কাঙ্ক্ষিত ব্যক্তিকে অভিবাদন জানানো। ইংরেজিতে এটিকে বলা হচ্ছে 'হার্ট গ্র্যাটিং'।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান সহ মুসলিম বিশ্বের একাধিক নেতাকে করোনাকালের বিভিন্ন সময়ে এই রীতি অনুসরণ করতে দেখা গেছে।

দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভুসওগ্লু তার ব্যক্তিগত টুইটার একাউন্টে এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও ক্লিপ প্রকাশ করেছেন; যাতে তিনি করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে হ্যান্ডশেক কিংবা কোলাকুলি করার পরিবর্তে 'হার্ট গ্র্যাটিং' (ডান হাত বাম বুকে রেখে অভিবাদনবিশেষ) অনুসরণ করার আহ্বান জানান।

ভিডিও ক্লিপটির একটা অংশে দেখা যায় যে, প্রেসিডেন্ট এরদোগান বিভিন্ন আচার-অনুষ্ঠানে হ্যান্ডশেকের পরিবর্তে হৃদয়ের ওপর হাত রেখে অভিবাদন জানাচ্ছেন।

চাভুসওগ্লু ভিডিওর ক্যাপশনে লিখেন, আমরা অন্তরের অভিবাদনের মাধ্যমে সারা বিশ্বের সঙ্গে অন্তরঙ্গ সম্পর্ক গড়ে তুলেছি।

গত মার্চে এরদোগান বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে সফরকালে সেখানে বেলজিয়ামের ন্যাটো বাহিনীর সেক্রেটারি-জেনারেল জেনস স্টলটেনবার্গের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এরদোগান স্বাস্থ্যসচেতনতা বজায় রেখে হ্যান্ডশেকের পরিবর্তে বুকে হাত রেখেই তাকে অভিবাদন জানান।

মূলত এই ঘটনার পর থেকেই 'অন্তরের অভিবাদন' টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায় এবং হিন্দুদের প্রণামের চেয়ে মুসলিমরা এটিকে উপযুক্ত মনে করে এর অনুসরণ শুরু করেন।

তুরস্ক ছাড়াও বিশ্বের আরো বিভিন্ন রাষ্ট্রের রাষ্ট্রপ্রধান, মন্ত্রী ও দেশের গুরুত্বপূর্ণ লোকদের এই রীতি অনুসরণ করতে দেখা যায়। 


Leave Your Comments


লাইফ স্টাইল এর আরও খবর