প্রকাশিত :  ০৭:০১, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০
সর্বশেষ আপডেট: ০৮:২৭, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

হবিগঞ্জ শহরের সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দের সাথে পৌরসভার মতবিনিময়

হবিগঞ্জ শহরের সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দের সাথে পৌরসভার মতবিনিময়

শহরের সামাজকি সংগঠনসমূহকে পৌরসভা হতে পৃষ্টপোষকতা করা হবে: পৌর মেয়র মিজানুর রহমান 

কল্যাণরাষ্ট্র বিনির্মিাণে সামাজিক সংগঠনের রয়েছে বিরাট ভূমিক: অধ্যাপক ড. জহিরুল হক শাকিল

গত সোমবার সকালে হবগিঞ্জ পৌর টাউন হলে হবগিঞ্জ শহররে ৭৭ টি সামাজিক সংগঠনরে নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় করছেনে হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মিজানুর রহমান। আমিনুল ইসলামরে পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখনে ওসমান গণি রুম। মতবিনিময় সভায় অতিথি হসিবেে উপস্থতি ছলিনে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বশ্বিবদ্যিালয়রে অধ্যাপক ড. জহরিুল হক শাকিল, বৃন্দাবন সরকারি কলজেরে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ অধ্যাপক দেওয়ান জামাল উদ্দিন চৌধুরী, বাডস্ কেজি এন্ড হাইস্কুলরে অধ্যক্ষ আলহাজ্ব নূর উদ্দিন জাহাঙ্গীর, হবগিঞ্জ বাপার সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল সোহলে, কাউন্সিলর আলমগীর মিয়া ও কাউন্সলির আব্দুল আউয়াল মজনু। 

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়রে অধ্যাপক ড. জহিরুল হক শাকিল বলনে, হবগিঞ্জ পৌরসভা আগামী বছর ১৪০ বছরে পর্দাপন করব। একসময়রে মহুকুমা বা সাবডিভিশন সদররে পৌরসভা থেকে এটি জেলা সদররে পৌরসভায়। একসময় হবগিঞ্জরে সাথে এর সকল উপজেলার যোগাযোগ ছিল না। বিগত এক যুগে অবকাঠামোগত দিক থেকে ব্যাপক উন্নতি সাধন হওয়ায় আজ কেবল সকল উপজেলার সাথে পৌরসভার সরাসরি যোগাযোগই স্থাপতি হয়নি বরং র্পাশ্বর্বতী কয়েকটি জেলারও হাব হচ্ছে হবগিঞ্জ পৌরসভা। বৃন্দাবন কলজে অর্নাস, মার্স্টাস ও প্রিলিমিনারি মার্স্টাস র্কোস চালু হওয়ায় এখানে ২০ হাজার  ছাত্র-ছাত্রী লেখা পড়া করছে। বসবাস করছে। সরকারী মেডিক্যাল কলজে স্থাপিত হওয়ায় ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্টার পদক্ষপে নেয়ায় হবিগঞ্জ পৌরসভার উপর দিন দিন চাপ বাড়বেই। সেজন্য পৌর র্কতৃপক্ষের সক্ষমতা বাড়াতে হবে। বাংলাদশে পরিবেশ আন্দোলন বাপার আজীবন সদস্য অধ্যাপক ড. জহিরুল হক শাকিল আরো বলনে, সামাজকি সংগঠনসমূহ তাদরে পরিধিতে র্কাযক্রম পরচিালনা করে একটি সমাজে ও রাষ্ট্রে ব্যাপক ভূমকা রাখতে পারে। পাশ্চাত্য দেশসমূহে সরকাররে অনকে র্কমসূচি ও প্রকল্প বাস্তবায়নে সামাজিক সংগঠনকে দায়ত্বি দেয়া হয়। তাদরে অনুকূলে র্অথ বরাদ্দ দেয়া হয়। একটি কল্যানরাষ্ট্র বিনির্মিাণে সামাজকি সংগঠনরে রয়েছে বরিাট ভূমিকা।   ড. জহিরুল হক শাকিল সামাজিক সংগঠনসমূহের সাথে মতবিনিময় সভা আয়োজন করায় পৌর মেয়রের ভূয়সি প্রশংসা করে বলনে, পরস্কিার পরিচ্ছন্ন ও সবুজায়িত তথা ক্লিন সিটি গ্রিন সটিরি ধারনা বাস্তবায়নে এসকল সামাজিক সংগঠন পৌরসভার সাথে কাজ করতে পারে।তিনি শহররে সামাজিক সংগঠনসমূহরে জন্য বিশেষ বরাদ্দ ও নিয়মিত পৃষ্টপোষকতার জন্য পৌর মেয়রের প্রতি দাবী জানান। 

পৌর মেয়রের মিজানুর রহমান বলনে, গত একবছরে পৌরসভার ব্যাপক উন্নয়ন সাধিত করেছি। জলাবদ্ধতা সমস্যার সমাধানে পুরাতন খোয়াই নদীর আংশিক খনন ও অনকে ড্রেন উদ্ধার করেছি। ডাম্পিং স্টেশন নির্মানের জন্য তৎপড়তা চালাচ্ছি। তিনি সামাজিক সংগঠনসমূহকে পৌরসভাকে ক্লিন ও গ্রীণ হিসেবে গড়ে তোলার কাজে সহায়তার জন্য আহবান জানিয়ে বলেন, শহরের সামাজিক সংগঠনসমূহকে পৌরসভা থেকে পৃষ্টপোষকতা করা হবে। হবিগঞ্জকে দেশেরে মধ্যে একটি মডলে পৌরসভা হসিবেে প্রতিষ্ঠা করতে সামাজিক সংগঠনসমূহের সহযোগিতা প্রয়োজন। 

পৌর মেয়র সকলকে নিয়ে আগামী শনিবার সকাল ৮টায় পরিচ্ছন্নতা র্কাযক্রমরে শুরু করার ঘোষনা দেন। সভায় বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনরে নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন ও অনেকে লিখিতভাবে তাদরে প্রস্থাবনা পৌর মেয়রের কাছে প্রদান করেন। 



Leave Your Comments


সিলেটের খবর এর আরও খবর