প্রকাশিত :  ০৫:২৭, ১১ অক্টোবর ২০২০
সর্বশেষ আপডেট: ০৫:৫৫, ১১ অক্টোবর ২০২০

ফেনী শহরের সেপটিক ট্যাংকে মিলল যুবকের মরদেহ

ফেনী শহরের সেপটিক ট্যাংকে মিলল যুবকের মরদেহ

জনমত ডেস্ক : ফেনী শহরের পুরাতন রেজিস্ট্রি অফিসের মনির উদ্দিন সড়কের তাসপিয়া ভবনের সেপটিক ট্যাংকের ভেতর থেকে মো. ইউনুছ বাবু (২২) নামে এক যুবকের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শনিবার (১০ অক্টোবর) রাত পৌনে ১১টার দিকে মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. আতোয়ার রহমান, ফেনী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলমগীর হোসেন, ফেনী শহর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সুদ্বীপ রায়সহ পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাহতাব মুন্না।

মৃত ইউনুছ চীনের আহোট ইউনিভার্সিটিতে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়াশোনা করতেন। তিনি শহরের শাহীন একাডেমী সড়কের একটি বাসায় থাকতেন। তার গ্রামের বাড়ি সোনাগাজীর তাকিয়া বাজারের পাইকপাড়ার সওদাগর বাড়ি।

স্থানীয়রা জানায়, শুক্রবার (৯ অক্টোবর) ওই ভবনের সেপটিক ট্যাংক থেকে গুরুতর আহতাবস্থায় মো. শাহরিয়ার নামে অপর এক যুবককে উদ্ধার করা হয়। তিনি বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ভবনের কেয়ারটেকার মোজাম্মেল হক শাহিন তাদের দুজনকে কুপিয়ে সেপটিক ট্যাংকে ফেলে গেছে বলে ধারণা করছে পুলিশ।

তবে কী কারণে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে, সে ব্যাপারে এখনো নিশ্চিত নয় পুলিশ। এ ঘটনায় শুক্রবার শাহীনকে আটক করা হয় এবং রক্তমাখা একটি চাপাতিও জব্দ করা হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শাহরিয়ার ও ইউনুছ দুজন বন্ধু। বৃহস্পতিবার (৮ অক্টোবর) রাতে দুজনে একসঙ্গে ঘর থেকে বের হয়েছিলেন। শনিবার রাতে শাহরিয়ারকে আহত অবস্থায় সেপটিক ট্যাংক থেকে উদ্ধার করার পর ইউনুছ না ফেরায় তার স্বজনরা চিন্তিত হয়ে পড়েন।

এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে বাবুর মা রেজিয়া বেগম শাহরিয়ারের বিরুদ্ধে ফেনী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। দুদিন ধরে ইউনুছের কোনো খোঁজ না পাওয়ায় তিনি ধারণা করেন, ইউনুছকেও মেরে সেপটিক ট্যাংকের ভেতর ফেলা হয়েছে।


Leave Your Comments


বাংলাদেশ এর আরও খবর