প্রকাশিত :  ১৪:৩৭, ০২ জানুয়ারী ২০২১
সর্বশেষ আপডেট: ১৪:৪৩, ০২ জানুয়ারী ২০২১

কারিগরি শিক্ষাকে জীবনধারণের বিশ্ববিদ্যালয়ে রূপান্তর হতে হবে

কারিগরি শিক্ষাকে জীবনধারণের বিশ্ববিদ্যালয়ে রূপান্তর হতে হবে

জনমত ডেস্ক : শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেছেন, জনসম্পদের সঠিক ব্যবহার হলে বাংলাদেশ একদিন প্রাচ্যের সুইজারল্যান্ড, সিঙ্গাপুর হবে। তাই কারিগরি শিক্ষাকে টেকসই জীবনধারণের বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে রূপান্তর হতে হবে, কেননা আইনে জীবনমুখী শিক্ষার ওপর সবচেয়ে বেশি জোর দেওয়া হয়েছে।

শনিবার (২ জানুয়ারি) মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর মিলনায়তনে মুজিববর্ষ উপলক্ষে কারিগরি শিক্ষা বোর্ড আয়োজিত 'বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ' শীর্ষক দিনব্যাপী এক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষা উপমন্ত্রী এ কথা বলেন। এ সময় বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের সকল স্থায়ী কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

শিক্ষা উপমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক দর্শন আমাদের নিজেদের মধ্যে ধারণ করতে হবে। বঙ্গবন্ধুকে রাজনৈতিক দলের গন্ডিতে ধারণ করা যাবে না। বঙ্গবন্ধু রাজপথের রাজনৈতিক দর্শনের সূচনার সময়েই এই বাংলার মানুষের জন্য শিক্ষার কথা চিন্তা করেছেন। তাই তার আদর্শ ধারণ করে জীবনের পরিবর্তন করতে হবে।

নওফেল বলেন, বঙ্গবন্ধু জনসম্পদ সৃষ্টির জন্য দক্ষতা এবং বৃত্তিমূলক, বুনিয়াদি শিক্ষার ওপর জোর দিয়েছেন। বাস্তব শিক্ষার ওপর জোর দিয়েছেন প্রযুক্তিনির্ভরতার ওপর জোর দিয়েছেন।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের সচিব ড. মো. জাহেদুল হাসান বলেন, বঙ্গবন্ধুর নির্বাচনে বিজয় ও অপার জসমর্থন আমাদের স্বাধীনতা সংগ্রামকে বৈধতা দিয়েছিল। বঙ্গবন্ধু এমন এক ব্যক্তি যার জন্ম না হলে বাংলাদেশ নামের একটি রাষ্ট্রের অভিপ্রায় ছিল কল্পনাতীত।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বাস্তবায়ন সম্ভব যদি আমরা তার আদর্শকে অনুসরণ করি। আমরা জানি আমাদের দুয়ারে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের জোয়ার এসে ধাক্কা দিচ্ছে সেই সাথে আমাদের কাছে দক্ষ জনবল তৈরি করার সম্ভাবনা উঁকি দিচ্ছে। বিশ্বমানের দক্ষ জনবল যদি আমরা তৈরি করতে চাই কারিগরি শিক্ষার কোন বিকল্প নেই। কারিগরি শিক্ষার প্রচারে প্রসারে আমরা কারিগরি শিক্ষাবোর্ড কাজ করে যাচ্ছি। আমরা যদি মনেপ্রাণে দেশপ্রেম নিয়ে কাজ করি আমরা সফল হবো।

কর্মশালায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কারিগরি শিক্ষা ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খান বলেন, মুক্তিযুদ্ধ হয়েছে বঙ্গবন্ধুর নামেই। সবাই তার নামেই যুদ্ধ করেছে। স্বাধীনতা অর্জন হয়েছে ঠিকই কিন্তু আমাদের কাংখিত মুক্তির পথ বেশ কঠিন। আমাদের অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য জাতির পিতার স্বপ্ন পূরনের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী। জাতির পিতার সোনার বাংলা বিনির্মানের যে রোডম্যাপ সরকার ঘোষনা করেছেন সে রোডম্যাপে কারিগরি শিক্ষা বিষয়টি অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে বিবেচিত হয়েছে।

বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান বলেন, মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে আমাদের যত অজানা আছে তা যেন আমরা জানতে পারি ও আমাদের পরবর্তী প্রজন্ম যেন জানতে পারে তার জন্যেই কর্মশালার আয়োজন করেছি।

কর্মশালায় কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের ১২৭ জন কর্মকর্তা অংশগ্রহণ করেন। পরে তাদের মাঝে সার্টিফিকেট ও ক্রেস্ট বিতরণ করা হয়।


Leave Your Comments


শিক্ষা এর আরও খবর