প্রকাশিত :  ২৩:৫৩, ১৪ জানুয়ারী ২০২১

জানুয়ারির প্রথম ২ সপ্তাহে ৩৮ হাজারেরও বেশি মানুষ মারা গেছেন আমেরিকায়

জানুয়ারির প্রথম ২ সপ্তাহে ৩৮ হাজারেরও বেশি মানুষ মারা গেছেন আমেরিকায়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ২০ এর ‘বিষকে’ বিদায় জানিয়ে ২০২১-কে স্বাগত জানিয়েছিল আমেরিকা। কিন্তু নতুন বছরের প্রথম দু’সপ্তাহে এ দেশে প্রাণ হারালেন ৩৮ হাজারেরও বেশি মানুষ। 

করোনা-সংক্রমণের শীর্ষে থাকা আমেরিকা নিয়ে উদ্বিগ্ন বিশেষজ্ঞেরা। পরবর্তী তিন সপ্তাহে অন্তত ৯২ হাজার মানুষ প্রাণ হারাবেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ‘কোভিড ট্র্যাকিং প্রোজেক্ট’-এর তথ্য অনুযায়ী ১ লক্ষ ৩০ হাজার মানুষ ভাইরাস-আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি। স্বাস্থ্য বিশারদেরা বলছেন, ‘‘এই পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসার একমাত্র পথ প্রতিষেধক।’’ 

‘ইউএস সেন্টারস ফর ডিজ়িজ় কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন’ (সিডিসি) জানাচ্ছে, ১ কোটিরও বেশি মানুষকে ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ় দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এই গতি আরও বাড়ানো প্রয়োজন বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞেরা। প্রথম দফায় শুধু স্বাস্থ্যকর্মীদের ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছিল। তাতে টিকাকরণের গতি কমে গিয়েছিল। এখন বিশেষজ্ঞেরা চান, বয়স ৬৫-র ঊর্ধ্বে হলেই প্রতিষেধক দিয়ে দেওয়া হোক। খবর আনন্দবাজার পত্রিকা 

সিডিসি এই মর্মে নির্দেশিকাও জারি করেছে। সরকারের ঘরে ফাইজ়ার ও মডার্না মিলিয়ে অন্তত ৩ কোটি ডোজ় রয়েছে। তার মধ্যে ১ কোটি দেওয়া হয়েছে। দুই-তৃতীয়াংশই অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে রয়েছে। ভ্যাকসিন ফেলে না-রেখে দ্রুত তা প্রয়োগের বন্দোবস্ত করার উপরে জোর দিচ্ছে প্রশাসন।

টিকাকরণ শুরু হয়ে গিয়েছে বিশ্বের বহু দেশেই। কিন্তু সংক্রমণ কমার কোনও লক্ষণ নেই। বরং সর্বত্রই আতঙ্ক বাড়ছে। আমেরিকা-ব্রিটেনের পরে এ বারে ‘বিপদবার্তা’ মিলল জার্মানি থেকে। গত ২৪ ঘণ্টায় ১২৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে এ দেশে। এ পর্যন্ত যা রেকর্ড। এক দিনে নতুন করে সংক্রমিত ২৫,১৬৪ জন।

প্রথম বিশ্বের এই ইউরোপীয় দেশ স্মরণকালে এমন দৃশ্য দেখেনি। আইসিইউ উপচে পড়ছে রোগীর ভিড়ে। এর মধ্যে ৯০ শতাংশ রয়েছেন ভেন্টিলেশনে। এই রোগীদের গড় বয়স ৬০। দেশের অর্থনীতির কথা মাথায় রেখে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেন্স স্প্যান বলেই চলেছেন, ফেব্রুয়ারি থেকে কড়াকড়ি অনেকটাই কমিয়ে দেওয়া যাবে। কিন্তু বিশেষজ্ঞদের কথায়, ‘‘যতটা সম্ভব বাড়িতে থাকুন। বাড়ি থেকে অফিসের কাজ করুন।’’

ইউরোপে সংক্রমণের শীর্ষে রাশিয়া। আর মৃত্যুর নিরিখে সব চেয়ে এগিয়ে ব্রিটেন। ৩২ লক্ষ সংক্রমিত এবং ৮৪ হাজার প্রাণ হারিয়েছেন এ দেশে। মৃত্যুর হিসেবে ইউরোপে দ্বিতীয় স্থানে ইটালি। ৮০ হাজার মৃত করোনায়। 

ভ্যাকসিনেশন শুরু হয়েছে ভ্যাটিকান সিটিতেও। জন্স হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত মাত্র ২৭ জন সংক্রমিত হয়েছেন ভ্যাটিকানে। কারও মৃত্যু হয়নি। আজ কোভিড প্রতিষেধকের প্রথম ডোজ়টি নিলেন ৮৪ বছর বয়সি পোপ ফ্রান্সিস। প্রাক্তন পোপ ষোড়শ বেনেডিক্টের বয়স হয়েছে ৯৩। তাঁকে কবে প্রতিষেধক দেওয়া হবে, সে সম্পর্কে কিছু জানায়নি ভ্যাটিকান।   

যা নিয়ে গত এক বছরে তোলপাড় গোটা বিশ্ব, সেই করোনাভাইরাসের উৎসের সন্ধানে আজ চিনে পা রাখল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)-র তদন্তকারী দল। আর আজই চিনের হেবেই প্রদেশে এক জনের মৃত্যু হল করোনায়। গত আট মাসে এই প্রথম। গত বছর মে মাসে শেষ মৃত্যু হয়েছিল চিনে।


Leave Your Comments


আন্তর্জাতিক এর আরও খবর