প্রকাশিত :  ০৮:৫১, ১৮ জানুয়ারী ২০২১

করোনায় বিপর্যস্ত প্রকাশনা সেক্টর

করোনায় বিপর্যস্ত প্রকাশনা সেক্টর

জনমত ডেস্ক : মহামারি করোনার বিষাদ ছুঁয়ে গেছে সাহিত্যাঙ্গনেও। দীর্ঘদিন বন্ধের পর বইয়ের দোকানগুলো খুললেও সুদিন ফেরেনি। একেবারেই কমে গেছে বই বিক্রি। অনলাইনেও বিক্রি নেই। তাই বিনিয়োগ তুলতেই মাথায় হাত সংশ্লিষ্টদের।

রাজধানীর অভিজাত বই পরিবেশক পাঠক সমাবেশে আড্ডায় মেতেছেন পাঠক-ক্রেতারা। কবিতা-গান কিংবা সাহিত্য বিষয়ক আলোচনায় মূখর এমন সময় এখন দুর্লভ। সারি সারি বই, বইয়ের ভাঁজে-ভাঁজে শতশত গল্পে নিজেদের খুঁজে নিতে হাজির হওয়া ছিল নিত্যনৈমিত্তিক। 

করোনা থামিয়ে দিয়েছে অনেক কিছু। তবুও এইসব সাহিত্যনুরাগী প্রাণকে থামাতে পারেনি করোনা। দেশের বাইরে থেকে এসেছেন মাতৃভাষায় লেখা বই কিনতে। এক প্রবাসী জানালেন, আমি থাকি নিউইয়র্কে, চেষ্টা করছি অনেকগুলো বই নিয়ে যেতে। কারণ আমি চাই বাচ্চা ও আমার মধ্যে সাহিত্য চর্চাটা অটুট থাকুক। 

পাঠের তালিকায় সাহিত্যের নানান ধরনের বইয়ের পাশাপাশি আছে রাজনীতি আর বঙ্গবন্ধু বিষয়ে বই। এক পাঠক জানান, বঙ্গবন্ধুর আত্মজীবনী নিয়ে যে বইগুলো হয়, ওগুলো আমাকে সব সময় টানে।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে এই সব বুকশপে অনিয়মিত ক্রেতারা। অনলাইনেও সেল নেই বললেই চলে।

পাঠক সমাবেশ কেন্দ্রের হেড অব সেলস মো. শামীম হোসেন বলেন, আমাদের ব্যবসা ক্ষতির সম্মুখীন। তারপরও ক্রেতাদের যে ইনকোয়ারিগুলো ছিল সেগুলো ফেসবুকের মাধ্যমে আমরা সম্পন্ন করেছি।

বুকশপ দীপনপুরেও নেই ক্রেতা-পাঠকের উপস্থিতি। নেই চিরচেনা কোলাহল, যেনো স্থবির দীপনচত্ত্বর। হাতেগোনা ২/৪ জন ছড়িয়ে ছিটিয়ে আসলেও নেই বই বিক্রি। 

দীপনপুর বুকশপ ম্যানেজার মো. আকিবুল ইসলাম বলেন, করোনার পর ইদানিং কোন বিক্রি নেই। তারপরও আমরা অফিস খুলছি, আসছি, বসছি। 

সব দুর্যোগ কাটিয়ে আবারও বইপাড়া ফিরবে পুরনো চেহারায়- এমন প্রত্যাশা সবার।


Leave Your Comments


শিক্ষা এর আরও খবর