প্রকাশিত :  ০৮:০৭, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২১

রায় শুনে কাঁদলেন দীপনের স্ত্রী রাজিয়া রহমান

রায় শুনে কাঁদলেন দীপনের স্ত্রী রাজিয়া রহমান

জনমত ডেস্ক : জাগৃতি প্রকাশনীর স্বত্বাধিকারী ফয়সাল আরেফিন দীপন হত্যা মামলায় মেজর সৈয়দ জিয়াউল হকসহ আট আসামির ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মজিবুর রহমান বুধবার আলোচিত এ মামলার রায় ঘোষণা করেন। রায় শোনার সঙ্গে সঙ্গেই কান্নায় ভেঙে পড়েন দীপনের স্ত্রী ডা. রাজিয়া রহমান।

আজ বুধবার সকালে রায়ের ঠিক আগে আদালতে হাজির হন ডা. রাজিয়া রহমান। রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে রাজিয়া রহমান বলেন, যারা এখন পর্যন্ত পলাতক, তাদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে রায় যেন কার্যকর করা হয়।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- মইনুল হাসান শামীম ওরফে সিফাত সামির, আবদুস সবুর ওরফে আবদুস সামাদ, খাইরুল ইসলাম ওরফে জামিল রিফাত, আবু সিদ্দিক সোহেল ওরফে সাকিব সাজিদ, মোজাম্মেল হুসাইন ওরফে সায়মন, শেখ আবদুল্লাহ ওরফে জুবায়ের ও আকরাম হোসেন ওরফে হাসিব। আসামিদের মধ্যে জিয়া ও আকরাম পলাতক রয়েছেন।

রায় ঘোষণা উপলক্ষে আদালতের ভেতরে ও বাইরে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়। সকাল সাড়ে ৮টার দিকে কাশিমপুর কারাগার থেকে ছয় আসামিকে আদালতে আনা হয়। এ সময় তাদের কোর্ট হাজতে রাখা হয়। বেলা সাড়ে ১১টার একটু আগে তাদের ট্রাইব্যুনালে হাজির করা হয়।

প্রসঙ্গত, রাজধানীর আজিজ সুপার মার্কেটের ৩য় তলায় 'জাগৃতি প্রকাশনী' অফিসে ঢুকে অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা ২০১৫ সালের ৩১ অক্টোবর বেলা ৪টার মধ্যে এ ঘটায়। হত্যাকাণ্ড শেষে অফিসের অটোলক তালা লক করে পালিয়ে যায় জঙ্গিরা। সেদিন বিকালে দীপনের স্ত্রী শাহবাগ থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। ২০১৮ সালের ১৫ নভেম্বর সন্ত্রাসবিরোধী আইনে অভিযোগপত্র দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি দক্ষিণের সহকারী পুলিশ কমিশনার ফজলুর রহমান। চার্জশিটে আটজনকে অভিযুক্ত ও ১১ জনকে অব্যাহতির সুপারিশ করা হয়।




Leave Your Comments


বাংলাদেশ এর আরও খবর