প্রকাশিত :  ০৯:০৯, ০৭ এপ্রিল ২০২১
সর্বশেষ আপডেট: ০৯:১৩, ০৭ এপ্রিল ২০২১

শাল্লায় তাণ্ডব: এক ওসি বরখাস্ত আরেকজন বদলি

শাল্লায় তাণ্ডব: এক ওসি বরখাস্ত আরেকজন বদলি

সুনামগঞ্জের শাল্লায় হিন্দু-অধ্যুষিত গ্রামে হামলা ও লুটপাটের ঘটনায় দায়িত্বে অবহেলার দায়ে শাল্লা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল হককে বরখাস্ত করা হয়েছে। এ ছাড়া দিরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশরাফুল ইসলামকে মৌলভীবাজারে বদলি করা হয়েছে।

সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ঊর্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে শাল্লা থানা ওসি নাজমুল হককে সাময়িক বরখাস্ত ও দিরাই থানার ওসি আশরাফুল ইসলামকে মৌলভীবাজারে বদলি করা হয়েছে। পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স থেকে তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত চলছিল।

এ ব্যাপারে সিলেট পুলিশ রেঞ্জের ডিআইজি মফিজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, হিন্দু অধ্যুষিত গ্রামে হামলার ঘটনায় শাল্লার থানার ওসি ও দিরাই থানার ওসির দায়িত্বে অবহেলার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেছে। এ জন্য ওসি নাজমুলকে সাময়িক বরখাস্ত করে বরিশাল রেঞ্জে যুক্ত হতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এছাড়া দিরাই থানার ওসি আশরাফুলকে মৌলভীবাজারে বদলি করা হয়েছে।


হেফাজত ইসলামের নেতা মামুনুল হকের সমালোচনা করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়ার জেরে গত ১৭ মার্চ শাল্লার নোয়াগাও গ্রামের হিন্দুদের বাড়িঘরে হামলা চালানাে হয়। ১৭ মার্চ সকালে সারাদেশের মানুষ যখন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনে ব্যস্ত তখনই এ হামলার ঘটনা ঘটে।

এরআগে ১৫ মার্চ দিরাইয়ে হেফাজতের মাহফিলে বক্তকব্য রাখেন মামুনুল হক। পরদিন তার সমালোচনা করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন নোয়াগাও গ্রামের এক হিন্দু যুবক। এই ঘটনার জেরে ১৭ মার্চ সকালে মিছিল করে এসে নোয়াগাও গ্রামের প্রায় ৮০ টি হিন্দু বাড়ি ভাংচুর ও লুটপাট করে মামুনুলের অনুসারীরা। তার আগের রাতেই পুলিশ আটক করে ঝুটন দাস দামে ফেসবুকে স্ট্যটাস দেওয়া ওই যুবককে।

আগের রাতে উত্তেজনা সৃষ্টির পরও পুলিশ হামলা ঠেকাতে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি বলে অভিযোগ ওঠে। এ ব্যাপারে তদন্ত শেষে দুই ওসির গাফিলতির প্রমাণ পাওয়া যায়। এরপর তাদের  দুজনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়।



Leave Your Comments


সিলেটের খবর এর আরও খবর