প্রকাশিত :  ১৫:৩৫, ০৭ এপ্রিল ২০২১

‘আমি টিকা নিয়েছি’ এটা অন্যদের বলুন এবং জীবন বাঁচান

ভ্যাকসিন গ্রহণকারীদের প্রতি টাওয়ার হ্যামলেটসের আহ্বান

‘আমি টিকা নিয়েছি’ এটা অন্যদের বলুন এবং জীবন বাঁচান

টাওয়ার হ্যামলেটসের যেসকল বাসিন্দা এরই মধ্যে কোভিড-১৯ এর টিকা গ্রহণ করেছেন, তাদেরকে এই টিকা নেয়ার অভিজ্ঞতা অন্যদের জানাতে এবং টিকা গ্রহণে লোকজনকে উদ্বুদ্ধ করার মাধ্যমে জীবন বাঁচাতে সাহায্য করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

গবেষণায় দেখা গেছে যে, কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়া এবং মৃত্যুর ঝুঁকি কমাতে যেমন কার্যকর, তেমনি অন্যদের মধ্যে এর সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া কমাতেও
 পারে এটি। কোভিড টেস্টিং এর পাশাপাশি গণ টিকাকরণ ভবিষ্যতে আরেকটি লকডাউন এড়ানোর অন্যতম প্রধান উপায়।

তবে কিছু লোক এই টিকা নিতে এখনো দ্বিধাগস্ত। এজন্য টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিল এবং এনএইচএস যৌথভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় #আইহেডমাইজাব  (#Ihadmyjab) শিরোনামে একটি হ্যাশট্যাগ ক্যাম্পেইন শুরু করেছে। এই ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে যারা টিকা নিয়েছেন কিংবা নিবেন, তাদেরকে টিকা গ্রহণের ছবি তুলে #Ihadmyjab এই হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। তারা কেন টিকা নিয়েছেন এর কারণও উল্লেখ করতে পারেন এবং নিজের অভিজ্ঞতার গল্পটি মুখে মুখে আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু বান্ধবদের মাঝেও ছড়িয়ে দিতে পারেন।

নতুন এই ক্যাম্পেইন বা প্রচারাভিযান ছাড়াও কাউন্সিল এবং এনএইচএস ভ্যাকসিন গ্রহণে লোকজনকে নানাভাবে উৎসাহিত করে যাচ্ছে। যেমন রোড শো সমূহ এবং ইস্ট লন্ডন মস্ক সহ বিভিন্ন কমিউনিটি স্থাপনায় মোবাইল ভ্যাকসিন সেন্টার স্থাপনের মাধ্যমে ভ্যাকসিন গ্রহণ কার্যক্রমকে মানুষের জন্য সহজতর করা হয়েছে। এছাড়া বাসিন্দারা যাতে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত নিতে সক্ষম হন, সেজন্য ভ্যাকসিন সম্পর্কে সকল তথ্য-উপাত্ত তাদেরকে জানানো হচ্ছে। এসব করা হচ্ছে গণ-তথ্য প্রচারাভিযান, কাউন্সিল এবং এনএইচএস ওয়েবসাইট এবং অনেকগুলো ওয়েবিনার বা অনলাইন সেমিনারের মাধ্যমে। বাসিন্দারা যাতে সহজেই তাদের ভ্যাকসিন এপয়েন্টমেন্ট বুক করতে পারেন এবং ভ্যাকসিন সম্পর্কিত যেকোন প্রশ্নে উত্তর জানতে পারেন, সেজন্য কাউন্সিল একটি ভ্যাকসিন হেল্পলাইনও চালু করেছে।

টাওয়ার হ্যামলেটসে এখন পর্যন্ত ৮০ হাজারেরও বেশি লোক তাদের প্রথম ডোজ ভ্যাকসিন পেয়েছেন। তবে ভ্যাকসিন লাভের যোগ্য আরও অনেক লোক রয়েছেন, যারা এখনো তাদের জ্যাব বা ভ্যাকসিন গ্রহণ করেননি।

কাউন্সিলের কোভিড-১৯ চ্যাম্পিয়ন নেটওয়ার্ক সহ স্থানীয়ভাবে পাওয়া ফিডব্যাকে দেখা গেছে যে, মানুষের মুখে মুখে আলোচনা এবং ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতার বিনিময় ভ্যাকসিন নিতে অন্যদের সবচেয়ে বেশি উৎসাহিত করে বা প্রেরণাদায়ক। এজন্য #Ihadmyjab ক্যাম্পেইনটি চালু করা হয়েছে।


টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের ডেপুটি মেয়র এবং কেবিনেট মেম্বার ফর এডাল্টস, হেলথ এন্ড ওয়েলবিয়িং, কাউন্সিলর র‌্যাচেল ব্লেক বলেন, ভ্যাকসিন গ্রহণ করার মাধ্যমে মানুষজন ইতিমধ্যেই জীবন বাঁচাতে সহায়তা করছেন। তবে #Ihadmyjab ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে আমরা  লোকজনকে টিকা নিতে উদ্বুদ্ধ করে আরো বেশি সংখ্যক প্রাণ বাঁচাতে পারি।

তিনি বলেন, এটা দুঃখের বিষয় যে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ভ্যাকসিন সম্পর্কে ভুল বা বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়িয়ে পড়ছে। আমাদের কমিউনিটির ভ্যাকসিন পাওয়ার অভিজ্ঞতা শেয়ার করার মাধ্যমে অন্যদের ভ্যাকসিন নিতে উৎসাহিত করতে এই প্রচারাভিযান সোশ্যাল মিডিয়াকে একটি প্লাটফর্ম হিসেবে ব্যবহার করবে।

কাউন্সিলর ব্লেইক আরো বলেন, যারা সোশ্যাল মিডিয়ায় নেই, তাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে মুখে মুখে বার্তাটি ছড়িয়ে দেয়া। আরো বেশি সংখ্যক প্রাণ রক্ষায় ভূমিকা রাখতে ভ্যাকসিন নেয়ার গল্পটি সবার মধ্যে ছড়িয়ে দিতে আমরা সকলের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। ভ্যাকসিন গ্রহণের প্রভাবকে আমরা কোন অবস্থাতেই তুচ্ছজ্ঞান করতে পারিনা।

তিনি বলেন, আমাদের ভ্যাকসিন রোডশোসমূহ, কমিউনিটি চ্যাম্পিয়ন যারা লোকজনের সাথে সরাসরি কথা বলেন এবং তাদের যেকোন প্রশ্নের উত্তর দেন, এবং মসজিদ সহ অন্যান্য কমিউনিটি ভেন্যুতে স্থাপিত কমিউনিটি ক্লিনিকগুলো পরিচালনার পাশাপাশি চলবে আমাদের নতুন এই প্রচারাভিযান।

জিপি কেয়ার গ্রুপের সাথে পার্টনারশীপের ভিত্তিতে সম্প্রতি মাইল এন্ড পার্কের আর্টস প্যাভিলিয়নে খোলা হয়েছে নতুন একটি ভ্যাকসিন সেন্টার। যেখানে প্রতি সপ্তাহে সর্বোচ্চ ১০,০০০ বাসিন্দাকে টিকা দেয়ার ক্ষমতা রয়েছে।

টাওয়ার হ্যামলেটস জিপি কেয়ার গ্রুপের জয়েন্ট চীফ এক্সিকিউটিভ ক্রিস ব্যাংকস বলেন, নিজেদের টিকাপ্রাপ্তি নিশ্চিত করার পাশাপাশি অন্যদেরও টিকা নিতে উৎসাহিত করতে আমরা লোকজনকে এই ক্যাম্পেইন বা প্রচারাভিযানে অংশ নিতে অনুরোধ জানাচ্ছি। ভ্যাকসিনগুলো খুবই কার্যকর এবং আমাদের জীবনকে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনার এটাই সর্বোত্তম উপায়।

তিনি বলেন, মাইল এন্ড পার্কের আর্টস প্যাভিলিয়ন ও ক্যাবল স্ট্রিট সার্জারির প্রাইমারি কেয়ার ভ্যাকসিনেশন সেন্টার, সেন্ট পলস্ ওয়ে এবং ক্রিসপ স্ট্রিট মার্কেটে অবস্থিত কমিউনিটি ফার্মেসি, এক্সেল এবং ওয়েস্টফিল্ডের গণ-টিকাকরণ সাইটে এখন পর্যন্ত টাওয়ার হ্যামলেটসে ৭৫ হাজার লোককে তাদের প্রথম ডোজ এবং ৬০০০ এরও বেশি লোককে দ্বিতীয় ডোজ টিকা দেয়া হয়েছে। টিকা থেকে বঞ্চিত হবেন না।  আপনার নিজেকে এবং প্রিয়জনকে সুরক্ষিত রাখুন। ভ্যাকসিন নিন।

কাউন্সিলের ডেডিকেটেড ভ্যাকসিন হেল্পলাইন ০২০ ৭৩৬৪ ৩০৩০ নাম্বারে কল করে ভ্যাকসিন পাওয়ার যোগ্য লোকজন তাদের এপয়েন্টমেন্ট বুক করতে সহযোগিতা পাবেন। এছাড়া টিকা সংক্রান্ত যে কোন প্রশ্নের উত্তরও জানতে পারবেন। ইংলিশ যাদের প্রথম ভাষা নয়, তারা যাতে ভাষাগত জটিলতার কারণে এপয়েন্টমেন্ট বুক করতে বেগ না পান, সেজন্য এই হেল্পলাইনে বাংলা সহ ৮টি কমিউনিটি ভাষায় কথা বলার লোক রয়েছেন।

নিজেকে, নিজের পরিবার ও পরিজনকে এবং সর্বোপরি গোটা কমিউনিটিকে সুরক্ষিত রাখতে প্রত্যেককেই ভূমিকা রাখতে হবে। - সংবাদ বিজ্ঞপ্তি



Leave Your Comments


কমিউনিটি এর আরও খবর