প্রকাশিত :  ১৩:৫৪, ০৫ জুন ২০২১

১৫০ বছর পর্যন্ত বাঁচতে পারে মানুষ!

১৫০ বছর পর্যন্ত বাঁচতে পারে মানুষ!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: জীবন এতো ছোটো ক্যানে? এই খেদ শুধু তারাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়ের কবি উপন্যাসের নায়ক নিতাইয়ের নয়, মানব সভ্যতার শুরু থেকেই এই আক্ষেপ চলে আসছে। 

চলে আসছে মানুষের সর্বোচ্চ আয়ু নিয়ে জল্পনা। এবার সেই জল্পনার অবসান ঘটিয়ে সম্প্রতি এক গবেষণায় জানা গেছে একজন মানুষ ১২০-১৫০ বছর বয়স পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারে। এর বেশি সময় কারও পক্ষেই বেঁচে থাকা সম্ভব নয়।

গত ২৫ মে ন্যাচার কমিউনিকেশনস জার্নালে প্রকাশিত এক গবেষণায় এমনটাই জানিয়েছেন গবেষকরা। গাণিতিক মডেলিং ব্যবহার করে গবেষকরা এ তথ্য উপস্থাপন করেন।

গবেষকদের মতে, মানুষের পক্ষে ১২০-১৫০ বছরের বেশি বেঁচে থাকা অসম্ভব। কারণ বার্ধক্য উপনীত হওয়ার পর মানুষ শারীরিক অসুস্থতাসহ বিভিন্ন কারণে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা হারাতে থাকেন। ফলে মানুষ পরবর্তীতে সহজেই বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয় এবং একসময়ে মারা যায়।

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের বিজ্ঞান বিষয়ক পত্রিকা ‘লাইভ সায়েন্স’কে বক ইনস্টিটিউট ফর রিসার্চ অন এজিংয়ের অধ্যাপক জুডিথ ক্যাম্পিসি বলেন, এই জাতীয় গবেষণাগুলো ইতিহাস এবং বর্তমান তথ্যের উপর নির্ভর করে। বার্ধক্য নিয়ে গবেষণা করতে গিয়ে তারা বিভিন্ন শারীরিক পরিবর্তন লক্ষ্য করেছেন।

যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য এবং রাশিয়ার ৫ লাখ মানুষের রক্তকোষে কী কী বদল আসছে, তা নজর রেখেছেন গবেষকরা। সঙ্গে কত পা হাঁটছেন এক ব্যক্তি, তাও দেখা হয়েছে। ব্রিটেন, আমেরিকা ও রাশিয়ার অনেক মানুষকে নিয়ে চলেছে সমীক্ষা। দেখা গেছে, বিভিন্ন এলাকার মানুষের মধ্যে বার্ধক্য আসার একই ধরনের কিছু প্রক্রিয়া আছে।

অ্যালবার্ট আইনস্টাইন কলেজ অব মেডিসিনের জেনেটিক বিশেষজ্ঞ জ্যাঁ ভিগ ২০১০ সালে ন্যাচার জার্নালে বিশদ এক গবেষণার নেতৃত্ব দেন। ওই গবেষণায় জানানো হয়, মানুষের পক্ষে ১২৫ বছরের বেশি বেঁচে থাকার সম্ভাবনা কম।

তবে অন্যান্য অনেক গবেষক দিয়েছেন ভিন্নমতও। তাদের যুক্তি অনুযায়ী, মানুষের আয়ুর কোনো চূড়ান্ত সীমা নেই।

বিশ্বের দীর্ঘায়ু মানুষদের দৈনন্দিন কার্যকলাপ ও খাদ্যাভাস পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায়, তারা সবাই বেশ পরিশ্রমী ও টাটকা খাবার খেয়েছেন। তাই দীর্ঘায়ু লাভের জন্য প্রথম শর্ত হলো শারীরিক সুস্থতা।

তবে গবেষকরা যুক্তি দেখান, যদি বৃদ্ধ বয়সে স্থিতিস্থাপকতা বাড়ানোর কোনো উপায় থাকে তাহলে মানুষ সুস্থ থাকতো ও দীর্ঘায়ু লাভ করতো।

তবে এই তথ্যের পাশাপাশি মানুষের শারীরিক সক্ষমতার বিষয়টিও গবেষণার সময় বিচার করা হয়েছিল। সব মিলিয়ে দেখা গেছে, কোনো মানুষের পক্ষেই ১৫০ বছরের বেশি আয়ু পাওয়া সম্ভব নয়। 

এই বয়ঃসীমা নিয়ে তর্ক থাকতে পারে, সে সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছেন না গবেষকরা। তবে গবেষক জুডিথ ক্যামপিসির মতে, অমরত্ব একটা অসম্ভব আইডিয়া। তার কথায়, একটা বিষয় নিশ্চিত। আমাদের সবাইকেই একদিন না একদিন মরতে হবে।




Leave Your Comments


বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি এর আরও খবর