ফিরোজ খান স্মরণে বাংলা টিভি পরিবারের ভার্চুয়াল সভা

প্রকাশিত :  ১৪:৪২, ১৪ জুন ২০২১
সর্বশেষ আপডেট: ১৪:৪৯, ১৪ জুন ২০২১

‘তাঁর প্রতি সকলের ভালোবাসা অম্লান, উজ্জ্বল’

‘তাঁর প্রতি সকলের ভালোবাসা অম্লান, উজ্জ্বল’

তৌফিক আলী মিনার, লন্ডনঃ বাংলাদেশের বাইরে সর্বপ্রথম ইংল্যান্ড থেকে প্রচারিত বাংলাভাষী টেলিভিশন চ্যানেল 'বাংলা টিভি'র সাবেক চেয়ারম্যান, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব মরহুম ফিরোজ খান স্মরণে- স্মৃতি চারণ ও দোয়া সভা "হৃদয়ে ফিরোজ খান" ১২ জুন শনিবার বাংলা টিভি পরিবারের উদ্যোগে ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠিত হয়।

স্মরণ সভায় বক্তারা বলেন, বাংলা টিভি ব্র্যান্ড এখন কালোত্তীর্ণ -এ দাবি আমরা এখন করতে পারি। এ দাবিও এখন আমরা করতে পারি, কঠোরতার বর্মে ঘেরা ফিরোজ ভাইয়ের অন্তরে বাস করা একটি কোমল মানুষের সন্ধান পাওয়ার সৌভাগ্য আমাদের হয়েছিলো।

বক্তারা বলেন, বাংলা টিভির স্বর্ণযুগ হারিয়ে গেছে এক দশকেরও বেশি সময় আগে। অস্তায়মান বাংলা টিভি আরও কিছুকাল হেঁটেছে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে, নানা পালাবদলের হাত ধরে। একই সময়ে অস্তায়মান হয়েছেন ফিরোজ ভাইও। কিন্তু ‘আমাদের ফিরোজ ভাই আর নেই’ এ কথা জানাজানি হওয়ার পর, বিভিন্ন সময়ে আমরা যারা বাংলা টিভিতে কাজ করেছি, তারা সবাই পৃথিবীর যে প্রান্তেই এখন থাকি না কেন, প্রত্যেকেই স্বজন হারানোরই বেদনায় আর্ত হয়েছি। বাংলা টিভির কালোত্তীর্ণতা তো এখানেই বাঙ্ময়। আর কঠোরতার আবরণে লুকানো কোমল ফিরোজ ভাইয়ের প্রতি আমাদের অপ্রকাশিত ভালোবাসা - বাংলা টিভির উজ্জ্বল উত্তরাধিকারের প্রমাণ।

বক্তারা আরও বলেন, বাংলা টিভির সিগনেচার টিউন যদি আর কখনো আকাশ-তরঙ্গে ভেসে না-ও আসে, আমাদের হৃদয়-তরঙ্গে তার অনুরণন বেজে চলছে সর্বদা, অনুক্ষণ।


বাংলা টিভি পরিবারের সদস্য, সাংবাদিক তৌফিক আলী মিনারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন বাংলা টিভির আইন বিষয়ক অনুষ্ঠানের  উপস্থাপক ব্যারিস্টার নাশিদ রহমান এবং তরজমা ও দোয়া পরিচালনা করেন বাংলা টিভি'র ধর্মীয় অনুষ্ঠানের সাবেক উপস্থাপক মাওলানা শফিকুর রহমান বিপ্লবী।

অনুষ্ঠানের উদ্যোক্তাদের পক্ষ থেকে  সাংবাদিক মিজানুর রহমান মিজান, সাংবাদিক  মনসুর আহমেদ মকিস ও সাবেক হেড অব নিউজ শামসুল আলম লিটন শুরুতে বক্তব্য রাখেন এবং স্মৃতিচারণ করেন।


অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণকারীদের মধ্য থেকে মরহুম ফিরোজ খানের কর্মময় জীবনের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন বাংলা টিভি'র অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ও ম্যানেজিং ডাইরেক্টর সৈয়দ সামাদুল হক, বাংলাদেশ ক্যাটারার্স এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট এম এ মুনিম, বাংলাদেশ ব্রিটিশ চেম্বার অব কমার্স-এর ডাইরেক্টর মাহতাব মিয়া, হিলসাইড গ্রুপের চেয়ারম্যান হেলাল খান, লন্ডন বারা অব টাওয়ার হ্যামলেটসের সাবেক সিভিক মেয়র দরছ উল্লাহ, শতবর্ষী চ্যারিটি ফান্ড রেইজার আলহাজ্ব দবিরুল ইসলাম চৌধুরী ওবিই, সাবেক নিউজ এডিটর মুহাম্মদ আব্দুস সাত্তার, সাবেক হেড অব প্রোগ্রামস ও নিউজ এন্ড কারেন্ট এফেয়ার্স প্রধান মাহবুব রহমান, সাবেক প্রোগ্রাম প্রডিউসার উর্মি মাজহার, সিনিয়র নিউজ প্রেজেন্টার সৈয়দ আফসার উদ্দিন এমবিই, সিনিয়র নিউজ প্রেজেন্টার ডাঃ জাকি রিজওয়ানা আনোয়ার, আইন বিষয়ক অনুষ্ঠানের উপস্থাপক ব্যারিস্টার নাশিদ রহমান,  সাবেক এডিটর সারোয়ার হোসেন মিলু, এডিটর মইনুল হোসেন মুকুল, কানাডা থেকে সাবেক নিউজ প্রেজেন্টার ফারহানা খন্দকার, সাংবাদিক ও উপস্থাপক নিলুফা ইয়াসমিন, নিউজ এডিটর সৈয়দ আবু জাফর, নিউজ প্রেজেন্টার শওকত মাহমুদ টিপু, প্রোগ্রাম প্ল্যানার আফজাল হোসেন, ফিরোজ খানের বাল্যবন্ধু মোহাম্মদ সজীব, সাপ্তাহিক দেশ পত্রিকার সম্পাদক তাইছির মাহমুদ, স্বাস্থ্য বিষয়ক অনুষ্ঠানের উপস্থাপক ডাঃ জাকের উল্লাহ, নিউজ প্রেজেন্টার রুপি আমিন, কার্ডিফ প্রতিনিধি সাংবাদিক মোস্তফা সালেহ লিটন, বিবিসি বাংলার সাবেক প্রযোজক উর্মি রহমান, প্রোগ্রাম প্রডিউসার রবিন হায়দার খান, আর টি এন অনলাইন টিভির ডাইরেক্টর নুরুল আমিন তারেক, বার্মিংহাম প্রতিনিধি সাংবাদিক নাছির আহমদ শ্যামল, ওল্ডহাম প্রতিনিধি সাংবাদিক হান্নান মিয়া, ক্যামেরাপার্সন রেজাউল করিম মৃধা, ফটো সাংবাদিক খালিদ হোসেন, টেকনিশিয়ান মাহবুবুর রহমান শিশির, মরহুম ফিরোজ খানের ভাগ্নে অদিত মাসুদ প্রমুখ।




পরিশেষে 'বিশ্ববাংলা টিভি' পরিবারের সংশ্লিষ্ট সকলের মধ্যে ভ্রাতৃত্ব আরও দৃঢ় করতে ও সু-সংহত রাখতে একটি প্লাটফর্ম তৈরী করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এছাড়াও, বাংলা টিভি প্রতিষ্ঠার ইতিহাস লিপিবদ্ধ করে একটি প্রকাশনার উদ্যোগও সভায় গ্রহণ করা হয়। 

শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে বিশ্ব উম্মাহর শান্তি কামনার মধ্য দিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।



Leave Your Comments


কমিউনিটি এর আরও খবর