প্রকাশিত :  ১৩:৪৯, ১৩ জুলাই ২০২১

অভিনন্দন শুভেচ্ছা এবং কৃতজ্ঞতা প্রকাশ

অভিনন্দন শুভেচ্ছা এবং কৃতজ্ঞতা প্রকাশ

সম্প্রতি "লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাব” এর জন্য পূর্ব লল্ডনের বার্কিং’এ একটি বাড়ি কেনা হয়েছে। বাড়ি কেনার পর বিভিন্ন আনুসাঙ্গিক খরচ সহ এ বাড়িটির মূল্য দাঁড়িয়েছে ২শত হাজার পাউন্ড। গত ৬ই জুলাই আনুষ্ঠানিক ভাবে প্রেস ক্লাবের এই ভবনটি আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন করা হয়। ক্লাবের বর্তমান প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ এমদাদুল হক চৌধুরীর ফিতা কাটার মাধ্যমে উদ্বোধন হলো ২৮ বছরের কাঙ্খিত প্রেস ক্লাবের এই ভবনটি। এ উপস্থিত ছিলেন ক্লাব সেক্রেটারী মোহাম্মদ জুবায়ের ও ট্রেজারার আ স ম মাসুম সহ ইসি কমিটির সদস্যবৃন্দ এবং প্রেস ক্লাবের শুরু থেকে আজ পর্য্যন্ত যে সকল নেতৃবৃন্দ কঠোর নিষ্টা এবং শ্রম দিয়ে নি:স্বার্থ ভাবে কাজ করে গেছেন তারা সবাই। দীর্ঘ ২৮ বছর যাবত তাদের সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টার সফল বাস্তবায়ন আজ ঘটলো।


আমাদের নেতৃবৃন্দ বৃটেনের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ঘুরে বেড়িয়েছেন প্রেস ক্লাবের বাড়ি কেনার জন্য টাকা সংগ্রহের লক্ষ্যে। তারা বিভিন্ন এলাকার কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ সহ ব্যবসায়ী মহলের সাথে বিভিন্ন ভাবে যোগাযোগ করেছেন, কথাবার্তা বলেছেন যার ফলে তারা ক্লাবের জন্য বাড়ি কিনতে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। তাদের সবার সম্মিলিত সহযোগিতার ফলেই আজ আমরা পেয়েছি প্রেস ক্লাবের জন্য একটি নিজস্ব বাড়ি। বর্তমানে ক্লাবের ৩১৭ জন সদস্য বিশিষ্ট পরিবারের এই বাড়িটি একে অন্যের সহযোগিতায় সুন্দর ভাবে  চালিয়ে নেয়ার দ্বায়িত্ব আমাদের পরিবারের সবার। সব সংকীর্ণতার উর্ধে থেকে আরও সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে আমাদের মধ্যে ভ্রাতৃত্বের বন্ধন আরও মজবুত করে গড়ে তোলার দীপ্ত শপথ নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে। 

প্রেস ক্লাবের এই বাড়ি কেনার মধ্য দিয়ে একটা জিনিস প্রমাণিত হলো যে, যে কোন লোক ব্যক্তিগত ভাবেই হোক অথবা সমষ্টিগত ভাবেই হোক যদি তার লক্ষ্য ঠিক রেখে নি:স্বার্থ ভাবে এবং ধৈর্য্য সহকারে কাজ চালিয়ে যেতে থাকে তা হলে আজ হোক বা কাল হোক, সে তার বা তাদের উদ্দেশ্য সফল হবেই। আমাদের সবার জন্য ইহা একটি শিক্ষণীয় বিষয়। 

আমাদের প্রেস ক্লাবের এই ভবন ক্রয়ের ব্যাপারে প্রেস ক্লাবের সম্মানিত নেতৃবৃন্দ সহ যারা প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষ ভাবে সাহায্য এবং সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন প্রেস ক্লাবের একজন সদস্য হিসেবে তাদের সবার প্রতি রইলো আমার আন্তরিক অভিনন্দন এবং শুভেচ্ছা। 


কৃতজ্ঞতা প্রকাশ

সম্প্রতি আমার বড় মেয়ে ড. তাফহিমা হায়দার (চাঁদনী) ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করেছে এবং একজন বিজ্ঞানী হিসেবে লন্ডনের কুইনমেরী ইউনিভার্সিটিতে যোগদান করেছে। এই খবর লন্ডন সহ যুক্তরাজ্যের সকল বাংলা পত্রিকা, বিভিন্ন অনলাইন পত্রিকাগুলো ফলাও করে প্রচার করে। এ ছাড়াও চ্যানেল এস থেকে সিনিয়র রিপোর্টার মোহাম্মদ জুবায়ের ভাই আমাদের বাসায় এসে ইন্টারভিউ নেন এবং এটিএন বাংলার পক্ষ থেকে সাঈম ভাই আমার সাথে যোগাযোগ করে মোস্তাক বাবুল ভাইকে আমার বাসায় পাঠান ইন্টারভিউ নেয়ার জন্য। তারা আমার মেয়ের ইন্টারভিউ টিভিতে প্রচার করেন। বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে এই খবর প্রচারিত হওয়ার পর  আমার সহকর্মী সাংবাদিক ভাই বোন ছাড়াও আমার বন্ধু বান্ধব এবং আত্মীয় স্বজন থেকে অগনিত শুভেচ্ছা বার্তা এবং আমার মেয়ের উজ্বল ভবিষ্যত কামনা করে দোয়া করছেন বলে অনেকেই আমার সাথে টেলিফোনে কথা বলে আবার অনেকেই ম্যাসেজ পাঠিয়ে জানিয়েছেন। আমার এবং আমার মেয়ের প্রতি আাপনাদের এই ভালোবাসার ঋণ আমি কোনদিন শোধ করতে পারবোনা।

আমার মেয়ে যে বিষয়টি নিয়ে তার গবেষণা শুরু করেছে, সে যেন তার লক্ষ্যে পৌছতে পারে সে জন্য আমি আপনাদের সবার কাছে দোয়া প্রার্থী এবং সেই সঙ্গে আপনাদের সবার প্রতি আমাদের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। 




Leave Your Comments


মতামত এর আরও খবর