১৪ শিক্ষার্থীর চুল কাটা

প্রকাশিত :  ১৮:৫৫, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১
সর্বশেষ আপডেট: ১৯:৫৪, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১

সেই শিক্ষিকা সাময়িক বরখাস্ত, ক্যাম্পাস বন্ধ ঘোষণা

সেই শিক্ষিকা সাময়িক বরখাস্ত, ক্যাম্পাস বন্ধ ঘোষণা
জনমত ডেস্ক: সিরাজগঞ্জের রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ শিক্ষার্থীর চুল কেটে দেওয়ার ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ অধ্যায়ন বিভাগের শিক্ষিকা ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
বরখাস্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য আব্দুল লতিফ। এ বিষয়ে তিনি জানান, রাত ৮টায় সিন্ডিকেটের সদস্যরা জরুরি বৈঠকে বসেন। সেখানে ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনকে সাময়িক বরখাস্ত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন পাওয়ার পর তাকে চূড়ান্তভাবে বরখাস্ত করা হবে কিনা সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।
এর আগে সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজে শিক্ষার্থীদের মাথার চুল কেটে দেওয়ার প্রমাণ পাওয়ার কথা জানিয়েছিল তদন্ত কমিটি।
শিক্ষার্থীদের চুল কাটার ঘটনায় ফারহানা ইয়াসমিন প্রশাসনিক পদ ছাড়লেও তাকে স্থায়ীভাবে অপসারণের দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছিলো শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার দুপুরে শিক্ষার্থীরা প্রশাসনিক ভবনসহ অন্যান্য ভবনে তালা ঝুলিয়ে দেয়। তাদের আন্দোলনের কারণে পরীক্ষাও হচ্ছে হয়নি।
অবশেষে রাতে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করলো বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।
উল্লেখ্য, গত ২৬ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস সংস্কৃতি ও বাংলাদেশ অধ্যয়ন বিভাগের ১৪ জন শিক্ষার্থীর মাথার চুল কেটে দেওয়ার ঘটনায় ওইদিন রাত ৮টায় বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র নাজমুল হোসেন তুহিন (২৫) ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) রাতে অভিযুক্ত শিক্ষক ফারহানা ইয়াসমিন বাতেন দায়িত্বে থাকা তিনটি পদ থেকে পদত্যাগ করেন।

Leave Your Comments


শিক্ষা এর আরও খবর