প্রকাশিত :  ০৮:২৪, ১৬ অক্টোবর ২০২১

সিলেটের অসাম্প্রদায়িক ঐতিহ্য ধরে রাখতে হবে: মেয়র আরিফ

সিলেটের অসাম্প্রদায়িক ঐতিহ্য ধরে রাখতে হবে: মেয়র আরিফ

জনমত ডেস্ক:সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেছেন আধ্যাধিক নগরী সিলেটের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি  আমাদের দীর্ঘ কালের ঐতিহ্য। সিলেটের নাগরিকবৃন্দ ধর্মবর্ণ নির্বিশেষে একে অন্যের উৎসবে একাত্ব হয়ে অংশ নেওয়ায় আমাদের বন্ধনকে আরো সুদীড় করে। অতিতেও বিভিন্ন সময়ে ও সম্প্রীতি বিনষ্টের চেষ্টার বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিলেন সিলেটের মানুষ ভবিষ্যতেও আমাদের এই সম্প্রীতির বন্ধনকে অটুট রেখে সিলেটকে একটি শান্তি ও সম্প্রীতির মডেল নগরী হিসাবে গড়ে তুলতে হবে।
মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী গতকাল শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) বিকালে শারদীয় দূর্গাপূজার প্রতিমা বিসর্জন কার্যক্রমের শুভ সূচনা করতে গিয়ে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ সিলেট জেলা ও মহানগর শাখার উদ্যোগে নগরীর চাঁদনীঘাটে স্থাপিত সুবোধ মঞ্চ হতে প্রতিমা বিসর্জন কার্যক্রম পরিচালনাকালে বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ সহ হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতিতে সমাজের বিভিন্ন পেশার লোকজন উপস্থিত হয়ে সনাতন ধর্মাবল্বীদের শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেন।
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল বলেন, বর্তমান সরকার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির উপর সর্বাধিক গুরুত্বআরোপ করেন। বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া রাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সব সময়েই সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে সোচ্চার। সম্প্রীতি বিনষ্টকারীদের দৃষ্ঠান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করা হবে। এব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর মনোভাব অত্যান্ত স্পষ্ট।
পূজা উদযাপন পরিষদের মহানগর শাখার সভাপতি সুব্রত দেব এর সভাপতিত্বে ও জেলা সাধারণ সম্পাদক এড. রঞ্জন ঘোষ এবং মহানগর পূজা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্ত এর যৌথ পরিচালনায় শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেন আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শফিকুর রহমান চৌধুরী, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন, সহ-সভাপতি আসাদ উদ্দিন আহমদ, পূজা উদযাপন পরিষদের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মৃত্যুঞ্জয় ধর ভোলা, জেলা ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মুক্তিযুদ্ধা এডভোকেট গোপিকা শ্যাম পুরকায়স্থ চয়ন, ঐক্য পরিষদ সিলেট জেলা সভাপতি এডভোকেট প্রদীপ কুমার ভট্টাচার্য্য, পূজা উদযাপন পরিষদের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা ড. হিমান্দ্রী শেখর রায়, পূজা উদযাপন পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য অধ্যাপক রজত কান্তি ভট্টাচার্য্য, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালিক, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সাবেক কাউন্সিলর জগদীশ চন্দ্র দাস, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিধান কুমার সাহা, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট রনজিত সরকার, মহানগর আওয়ামীলীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক তপন মিত্র, ঐক্য পরিষদ জেলা সাধারণ সম্পাদক কৃপেশ পাল, মহানগর সাধারণ সম্পাদক  প্রদী দেব, পূজা পরিষদ মহানগরের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এপ্রেক্স সিয়ান চন্দন দাস, এডভোকেট দেবব্রত চৌধুরী লিটন, মনোজ দত্ত মুন্না, ঐক্য পরিষদ জালালাবাদ থানার সাধারণ সম্পাদক বাবুল দেব, মলয় পুরকায়স্থ, এডভোকেট বিজয় দেব বুলু, এডভোকেট পংকজ দাস, শ্যামল কান্তি ধর, নন্দন পাল, জেলা যুগ্ম সম্পাদক অরুন দেবনাথ সাগর, মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা সুদীপ দেব, ছাত্র যুব ঐক্য পরিষদ সিলেট জেলা সভাপতি ধনঞ্জয় দাস ধনু। উপস্থিত ছিলেন নীলেন্দু ভুষণ দে অনুপ, দক্ষিণ সুরমা সভাপতি মনমোহন দেবনাথ, পূজা পরিষদ মহানগর সাংগঠনিক সম্পাদক নিখিল দেব, রাজেশ সরকার, প্রাপ্ত পাল কার্তিক পাল, পাপ্পু পাল।
সিলেট জেলা প্রশাসন, সিলেট সিটি কর্পোরশেন, সিলেট মেট্রোপলিটন ও জেলা পুলিশ, র‌্যাব-৯, গোয়েন্দা সংস্থা সমূহ, আনসার বিডিবি, ফায়ার সার্ভিস, বিদ্যুৎ বিভাগ, ছাড়াও নেতৃবৃন্দ রাজনীতিবিদ, পেশাজীবি, সাংবাদিক সহ সকলের প্রতি কৃতজ্ঞা জ্ঞাপন করেন জেলা ও মহানগর পূজা উদযান পরিষদ কমিটি। সকলের প্রতি বিজয়ার শুভেচ্ছা জানান।



Leave Your Comments


সিলেটের খবর এর আরও খবর