প্রকাশিত :  ০৭:০৯, ০৮ মে ২০২২
সর্বশেষ আপডেট: ০৭:১৬, ০৮ মে ২০২২

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ক্যাশ ফ্লো বেড়েছে ৮২ শতাংশ কোম্পানির

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ক্যাশ ফ্লো বেড়েছে ৮২ শতাংশ কোম্পানির

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ১১টি কোম্পানির মধ্যে তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই‘২১-মার্চ’২২) শেষে ক্যাশ ফ্লো বেড়েছে ৯টি কোম্পানির। ক্যাশ ফ্লো কমেছে২টির।

ক্যাশ ফ্লো বৃদ্ধির ৯ কোম্পানি হলো: আমরা নেটওয়ার্ক, আমরা টেকনোলোজিস, আইটি কনসালট্যান্টস্, ই-জেনারেশন, ইনটেক, অগ্নি সিস্টেমস, জেনেক্স ইনফোসিস, বিডিকম এবং এডিএন টেলিকম।

আমরা নেটওয়ার্ক: গত অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২০-মার্চ’২১) শেষে শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ (এনওসিএফপিএস) ছিল ২ টাকা ২৪ পয়সা। চলতি অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই‘২১-মার্চ ২০২২) শেষে যার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৪ টাকা ৩৫ পয়সা। গত বছরের তুলনায় কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ বেড়েছে ২ টাকা ১১ পয়সা।

আমরা টকনোলোলজিস: গত অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২০-মার্চ’২১) শেষে শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ (এনওসিএফপিএস) ছিল ৩ টাকা ৫ পয়সা। চলতি অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২১-মার্চ’২২) শেষে যার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৪ টাকা ২০ পয়সা। গত বছরের তুলনায় কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ বেড়েছে ১ টাকা ১৫ পয়সা।

আইটি কনসালট্যান্টস্: গত অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২০-মার্চ’২১) শেষে শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ (এনওসিএফপিএস) ছিল ১ টাকা ৬৮ পয়সা। চলতি অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২১-মার্চ’২২) শেষে যার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ২ টাকা ৩৯ পয়সা। গত বছরের তুলনায় কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ বেড়েছে ৭১ পয়সা।

ই-জেনারেশন: গত অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২০-মার্চ’২১) শেষে শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ (এনওসিএফপিএস) ছিল নেগেটিভ ১৬ পয়সা। চলতি অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২১-মার্চ’২২) শেষে যার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩৯ পয়সা। অর্থাৎ গত বছরের তুলনায় কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ বেড়েছে ৫৫ পয়সা।

ইনটেক: গত অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২০-মার্চ’২১) শেষে শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ (এনওসিএফপিএস) ছিল ২০ পয়সা। চলতি অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২১-মার্চ’২২) শেষে যার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৭৫ পয়সা। গত বছরের তুলনায় কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ বেড়েছে ৫৫ পয়সা।

অগ্নি সিস্টেমস: গত অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২০-মার্চ’২১) শেষে শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ (এনওসিএফপিএস) ছিল ৭৬ পয়সা। চলতি অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২১-মার্চ’২২) শেষে যার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১ টাকা ১৮ পয়সা। গত বছরের তুলনায় কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ বেড়েছে ৪২ পয়সা।

জেনেক্স ইনফোসিস: গত অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২০-মার্চ’২১) শেষে শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ (এনওসিএফপিএস) ছিল ৩ টাকা ১২ পয়সা। চলতি অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২১-মার্চ’২২) শেষে যার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩ টাকা ৫০ পয়সা। গত বছরের তুলনায় কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ বেড়েছে ৩৮ পয়সা।

বিডিকম: গত অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২০-মার্চ’২১) শেষে শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ (এনওসিএফপিএস) ছিল ৮৯ পয়সা। চলতি অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২১-মার্চ’২২) শেষে যার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১ টাকা ১৪ পয়সা। গত বছরের তুলনায় কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ বেড়েছে ২৫ পয়সা।

এডিএন টেলিকম: গত অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২০-মার্চ’২১) শেষে শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ (এনওসিএফপিএস) ছিল ১ টাকা ২২ পয়সা। চলতি অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২১-মার্চ’২২) শেষে যার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১ টাকা ৪০ পয়সা। গত বছরের তুলনায় কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ বেড়েছে ১৮ পয়সা।

এদিকে, শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ (এনওসিএফপিএস) কমেছে ২টি কোম্পানির। কোম্পানি ২টি হলো: ড্যাফোডিল কম্পিউটার ও ইনফরমেশন সার্ভিসেস।

ড্যাফোডিল কম্পিউটার: গত অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২০-মার্চ’২১) শেষে শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ (এনওসিএফপিএস) ছিল ১ টাকা ৯৭ পয়সা। চলতি অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২১-মার্চ’২২) শেষে যার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১ টাকা ২৫ পয়সা। গত বছরের তুলনায় কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ কমেছে ৭২ পয়সা।

ইনফরমেশন সার্ভিসেস: গত অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২০-মার্চ’২১) শেষে শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ (এনওসিএফপিএস) ছিল ১ টাকা ৯ পয়সা। চলতি অর্থবছরের তৃতীয় প্রান্তিক (জুলাই’২১-মার্চ’২২) শেষে যার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৮৪ পয়সা। গত বছরের তুলনায় কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি কার্যকরি নগদ প্রবাহের পরিমাণ কমেছে ২৫ পয়সা।




Leave Your Comments


অর্থনীতি এর আরও খবর