প্রকাশিত :  ১৪:৪৪, ১৪ মার্চ ২০১৯
সর্বশেষ আপডেট: ১৯:১০, ১৫ মার্চ ২০১৯

বিশ্বব্যাপী ৩৭১টি বোয়িং উড়োজাহাজ তুলে নেবে যুক্তরাষ্ট্র

বিশ্বব্যাপী ৩৭১টি বোয়িং উড়োজাহাজ তুলে নেবে যুক্তরাষ্ট্র

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ।। ইথিওপিয়ান এয়ারলাইনসের ‘বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স ৮’ বিধ্বস্ত হয়ে ১৫৭ আরোহীর সবাই নিহত হওয়ার জেরে এই মডেলের সব উড়োজাহাজ উড্ডয়ন বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে বোয়িং। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক এই উড়োজাহাজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান জানিয়েছে, তারা বিশ্বব্যাপী এই মডেলের ৩৭১টি উড়োজাহাজ তুলে নেবে। যুক্তরাষ্ট্রের বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ ও জাতীয় পরিবহন নিরাপত্তা বোর্ডের সঙ্গে আলোচনা করে এ সিদ্ধান্ত নিয়ে বোয়িং।

এফএএ জানিয়েছে, নতুন প্রমাণের পাশাপাশি নতুন উপগ্রহের তথ্য পর্যালোচনা করে সাময়িকভাবে এই জেট নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

ইথিওপিয়ায় উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হওয়ার জেরে ইতিমধ্যে যাত্রী নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে নিজেদের আকাশসীমায় বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স নিষিদ্ধ করার ঘোষণা দিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ), ভারত, সিঙ্গাপুর, চীন, মালয়েশিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া, অস্ট্রেলিয়া, ফ্রান্স, জার্মানি ও যুক্তরাজ্য।

ইথিওপিয়ার ঘটনার পর বোয়িংয়ের এই মডেলের বিমানের নিরাপত্তা নিয়ে বিশ্বজুড়ে উদ্বেগ তৈরি হয়েছে। এর আগে গত অক্টোবরে ইন্দোনেশিয়ার লায়ন এয়ারের যে বিমানটি সাগরে বিধ্বস্ত হয়েছিল, সেটিও ছিল বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স। ওই দুর্ঘটনায় নিহত হন ১৮৯ জন। মাত্র পাঁচ মাসের মধ্যে দুটি দুর্ঘটনা।

ইথিওপিয়ায় দুর্ঘটনাস্থলে তদন্ত করছে এফএএ। এফএএর ভারপ্রাপ্ত প্রশাসনিক প্রধান ড্যান এলওয়েল গতকাল বুধবার বলেন, এটি স্পষ্ট যে ইথিওপিয়ান এয়ারলাইনসটির ট্র্যাক খুব কাছাকাছি ছিল এবং লায়ন এয়ারের ফ্লাইটের মতোই আচরণ করেছিল। দুর্ঘটনার ধরন লায়ন এয়ারের মতোই।

বোয়িং এখনো বলছে, ৭৩৭ ম্যাক্স নিরাপদ—এ ব্যাপারে নিশ্চিত তারা। তবে এফএএ ও জাতীয় পরিবহন নিরাপত্তা বোর্ডের সঙ্গে আলোচনা করে সাময়িকভাবে এটির উড্ডয়ন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা।



Leave Your Comments


বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি এর আরও খবর