img

ফুটবলে ‘সাদা কার্ড’র অভিষেক

প্রকাশিত :  ০৫:৫০, ২৪ জানুয়ারী ২০২৩

ফুটবলে ‘সাদা কার্ড’র অভিষেক

স্পোর্টস ডেস্ক: বিশ্ব ফুটবলে লাল কার্ড এবং হলুদ কার্ডের ব্যবহার বহু বছরের পুরোনো। এর প্রয়োগ কম-বেশি জানা আছে ফুটবলপ্রেমীদের। এবার ফুটবল দুনিয়া পরিচিত হলো সাদা বা হোয়াইট কার্ডের সঙ্গেও। সোমবার (২৩ জানুয়ারি) রাতে পর্তুগালে মেয়েদের ফুটবলে অভিনব এই কার্ডের প্রচলন ঘটল।

মূলত মাঠের খেলায় ফুটবলারদের নিয়ম নীতির মধ্যে রাখতেই ব্যবহার করা হয় হলুদ এবং লাল কার্ড। প্রথমে হলুদ কার্ড দেখিয়ে বেপরোয়া খেলোয়াড়কে সতর্ক করা হয়। কাজ না হলে কিংবা পুনরায় ভুল করলে লাল কার্ড দেখিয়ে তাকে মাঠ থেকে বহিষ্কার করা হয়। কোচদের বের করে দেওয়া হয় ডাগ আউট থেকে।

তবে সাদা কার্ড কঠোরতা নয় বরং কোমলতার প্রতীক হিসেবে এর প্রচলন চালু হলো। ফুটবল বিশ্বের অংশ হয়ে যাওয়া এই কার্ড দেখাটা শাস্তি নয়, বরং পুরস্কার বলে আখ্যা দেওয়া যেতে পারে। কেবল বিশেষক্ষেত্রে এই কার্ড ব্যবহারযোগ্য। সোমবার অভিষেক হলো হোয়াইট তথা সাদা কার্ডের।

মেয়েদের পর্তুগিজ কাপের কোয়ার্টার ফাইনালে বেনফিকা বনাম স্পোর্টিং লিসবন ম্যাচ দিয়ে এই কার্ডের যাত্রা শুরু হলো। হলুদ কিংবা লাল কার্ড দেখে থাকেন খেলোয়াড় কিংবা কোচিং স্টাফরা। কিন্তু সাদা কার্ড দেখতে পারেন যে কোনো ব্যক্তি। যেমনটা দেখলেন মাঠে মানবিক বা হৃদয় ছুঁয়ে যাওয়া দুই দলের চিকিৎসকরা।

বেনফিকা-লিসবন ম্যাচে স্টেডিয়ামে অসুস্থ হয়ে পড়া এক দর্শককে জরুরি চিকিৎসা সেবা দিয়েছেন তারা। এই ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের ফেয়ার প্লে হিসেবে এই কার্ড দেখানো হয়েছে। মাঠে কিংবা গ্যালারিতে ‘ফেয়ার প্লে’ উৎসাহিত করতেই অভিনব এই কার্ড দেওয়ার পদ্ধতি চালু হলো।

আলোচিত এই ম্যাচটি গ্যালারিতে বসে উপভোগ করেছেন প্রায় ১৫ হাজার দর্শক। ঐতিহাসিক ম্যাচটিতে বেনফিকা ৫-০ গোলে জিতে সেমিফাইনালে উঠেছে। তবে সাদা কার্ডের রেওয়াজ চালু হওয়ার ঘটনায় অনেকটাই আড়ালে পড়ে গেল ম্যাচের ফল। যা ছাপিয়ে বিশ্বজুড়ে ঝড় উঠল সাদা কার্ড নিয়েই।

img

মেসির জোড়া গোলে টানা দ্বিতীয় জয় মিয়ামির

প্রকাশিত :  ০৬:০০, ২১ এপ্রিল ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ০৬:০২, ২১ এপ্রিল ২০২৪

ইনজুুরির কারণে লিওনেল মেসি মাঠে না থাকায় হেরেই চলেছিল ইন্টার মিয়ামি। অবশেষে চোট কাটিয়ে দলে ফিরেই মিয়ামিকে জয়ে ফিরিয়ে দিলেন মেসি। আর্জেন্টাইন বিশ্বকাপজয়ী জাদুকরী ফুটবল দক্ষতায় টানা দ্বিতীয় জয় পেল মিয়ামি।

যুক্তরাষ্ট্রের মেজর সকার (এমএলএস) লিগের চলতি মৌসুমের নিয়মিত সেশনে ন্যাসভিলে এসসিকে ৩-১ গোলে হারিয়েছে মিয়ামি। এদিন জোড়া গোল করেন মেসি।

শনিবার ভোররাতে ঘরের মাঠ চেজ স্টেডিয়ামে মাত্র ২ মিনিটে আত্মঘাতী গোলে পিছিয়ে পড়ে মিয়ামি। মিডফিল্ডার ফ্রাংকো নিগ্রির ভুলে গোল হজম করে ফ্লোরিডার ক্লাবটি।

এরপর ম্যাচের ১১ মিনিটে গোল করে মিয়ামিকে সমতায় ফেরান মেসি। দ্বিতীয়বারের চেষ্টায় গোলটি করেনমেসি। তার প্রথম শট রুখে দিয়েছিলেন ন্যাসভিলের গোলরক্ষক ইলিয়ট পানিকো। তবে দ্বিতীয় শটে ঠিকই জাল কাঁপিয়েছেন মেসি।

দ্বিতীয়ার্ধে নিজের দ্বিতীয় (দলের তৃতীয়) গোলের দেখা পান আর্জেন্টাইন তারকা। ৮১ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করেন মেসি। প্রথমার্ধের শেষ দিকে (৩৯ মিনিটে) মিয়ামির দ্বিতীয় গোলটি করেন সার্জিও বস্কুয়েটস।

চলতি মৌসুমে মিয়ামির হয়ে দারুণ খেলছেন মেসি। সব ধরনের প্রতিযোগিতায় ৯ ম্যাচে এরইমধ্যে মেসির ঝুলিতে জমা হয়েছে ৯ গোল ও ৮ অ্যাসিস্ট।

মিয়ামির পরের ম্যাচ আগামী শনিবার। নিউ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অ্যাওয়ে ম্যাচ খেলতে যাবে মেসির দল।