img

প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে বরখাস্ত করলেন নেতানিয়াহু

প্রকাশিত :  ২৩:৫৭, ২৬ মার্চ ২০২৩

প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে বরখাস্ত করলেন নেতানিয়াহু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু তার প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইয়োভ গ্যালন্টকে বরখাস্ত করেছেন। পরিকল্পিত বিচার বিভাগীয় সংস্কারের বিরুদ্ধে কথা বলায় প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে ছাঁটাই করে দিলেন নেতানিয়াহু।

নেতানিয়াহুর ডানপন্থী দল লিকুদ পার্টির সিনিয়র সদস্য গ্যালান্ট দলের প্রথম কর্মকর্তা হিসেবে শনিবার বিচার বিভাগ সংস্কার প্রস্তাব স্থগিত করার পরামর্শ দেন। নেতানিয়াহু তার কর্তৃত্ব জোরদার করার জন্য বিচার বিভাগের ক্ষমতা খর্ব করতে চাচ্ছেন বলে ব্যাপকভাবে প্রচলিত রয়েছে।

এক সংক্ষিপ্ত বিবৃতিতে নেতানিয়াহুর অফিস জানায়, প্রধানমন্ত্রী বরখাস্ত করেছেন গ্যালান্টকে। নেতানিয়াহু পরে টুইটে বলেন, \'প্রত্যাখ্যানের বিরুদ্ধে আমাদের অবশ্যই জোরালভাবে দাঁড়াতে হবে।\'

এই ঘোষণার পর গ্যালান্ট টুইটে ঘোষণা করেন, \'আমার জীবনের মিশনে সবসময় ইসরাইল রাষ্ট্রের নিরাপত্তা আগেও ছিল, ভবিষ্যতেও থাকবে।\'

ঘোষণাটির পর রোববার হাজার হাজার বিক্ষোভকারী তেলআবিরে রাস্তায় রাস্তায় সমবেত হয়, প্রধান মহাসড়কটি বন্ধ করে দেয়।

এই পদক্ষেপের ফলে ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে যে বিচার বিভাগে আমূল পরিবর্তনের প্রস্তাবটি নিয়ে এগিয়ে যাবেন নেতানিয়াহু। তবে এতে জনসাধারণের পাশাপাশি সামরিক বাহিনী, ব্যবসায়িক নেতারা এবং ইসরাইলের মিত্ররাও ক্ষুব্ধ হয়েছে।

চলতি সপ্তাহেই প্রস্তাবটির ওপর ভোটাভুটি হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এটি পাস হলে বিচার বিভাগের নিয়োগের ক্ষেত্রে চরম ডানপন্থী জোট সরকারকে অনেক বেশি ক্ষমতা দেবে।

গ্যালান্ট মনে করেন, প্রস্তাবটি নিয়ে সমাজে ব্যাপক বিভাজনের সৃষ্টি হয়েছে। এটি সামরিক বাহিনীর মনোবল ভেঙে দেবে, ইসরাইলের শত্রুদের সাহসী করে তুলবে।

গ্যালান্ট শনিবার বলেছিলেন, \'আমার মনে হচ্ছে, আমাদের শক্তির উৎস ক্ষয় হয়ে যাচ্ছে।\'

তিনি নেতানিয়াহুর লিকুদ পার্টির কয়েকজন সদস্যের সমর্থন পেলেও অন্যরা তাকে বরখাস্ত করার আহ্বান জানাচ্ছিলেন।

অন্যদিকে বিরোধী দলের নেতা ইয়ায়ির লাপিদ বলেন, গ্যালান্টকে বরখাস্ত করা ছিল জায়নিস্ট বিরোধী সরকারের নতুন খারাপ কাজ। এটি জাতীয় নিরাপত্তাকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে। সূত্র : আল জাজিরা ও বিবিসি


img

লিমুজিন গাড়িতে চালক পুতিন, পাশে কিম

প্রকাশিত :  ১৪:০৬, ২২ জুন ২০২৪

রাশিয়ার তৈরি অরাস লিমোজিন গাড়িতে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনকে পাশে বসিয়ে চালিয়ে নিয়ে গেছেন পুতিন। এমন একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। 

রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় টিভিতে এই ভিডিও প্রথম প্রচার করে। এতে দেখা যায়, ক্রেমলিন নেতা চালকের আসনে বসে আছেন। চালকের পাশের যাত্রীর আসনে বসে আছেন উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং। দু’জনেই হাসিমুখে কথা বলছেন। গাড়িটি ম্যানিকিউরড পার্ক এলাকা দিয়ে যাচ্ছিল।

পরে জঙ্গলে ঘেরা একটি এলাকায় গাড়ি থেকে নেমে দুজনকে হেঁটে হেঁটে গল্প করতে দেখা গেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট অবশ্য প্রথম একটি অরাস গাড়ি কিম জং-উনকে উপহার দিয়েছিলেন চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে। দুই দেশের পক্ষ থেকেই তখন বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছিল। আর এবার একই মডেলের আরেকটি গাড়ি তাঁকে উপহার দেওয়া হলো। এর মানে হলো, কিম জং-উনের গ্যারেজে এখন অন্তত দুটি অরাস গাড়ি রয়েছে।

গাড়ি নিয়ে কিমের বিপুল আগ্রহ রয়েছে। তাঁর নিজের সংগ্রহে বেশ বড়সংখ্যক বিদেশি বিলাসবহুল গাড়ি রয়েছে। সম্ভবত এই গাড়িগুলো চোরাচালানের মাধ্যমে উত্তর কোরিয়ায় আনা হয়েছে। কারণ, জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের একটি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, দেশটিতে বিলাসবহুল পণ্য রপ্তানি করা নিষিদ্ধ।

এদিকে পুতিনকে এক জোড়া কুকুর উপহার দিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম। কুকুর দুটি স্থানীয় পুংসান জাতের। এই কুকুর শিকারের কাজে ব্যবহার করা হয়।

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন চ্যানেলে প্রকাশিত একটি ভিডিওতে দেখা যায়, সাদা রঙের বেড়া দিয়ে ঘেরা একটি জায়গায় কুকুর দুটিকে রাখা হয়েছে। পুতিনকে সেগুলো দেখাচ্ছেন কিম। একটি ঘোড়া নিয়েও মেতে থাকতে দেখা যায় দুজনকে।

পুতিনের পিয়ংইয়ং সফরকালে গত বুধবার রাশিয়া ও উত্তর কোরিয়ার মধ্যে একটি সার্বিক কৌশলগত অংশীদারত্ব চুক্তি সই হয়েছে। চুক্তিতে কোনো পক্ষ আগ্রাসনের শিকার হলে পারস্পরিক সহযোগিতার কথা বলা হয়েছে।

১৮ জুন উত্তর কোরিয়াতে পা রাখার পর দিনই পুতিন বৈঠক করেছেন সেদেশের নেতা কিম জং উনের সঙ্গে। দীর্ঘ আলোচনার পর সামরিক চুক্তি সই করেন দু’জন। রাশিয়া কিংবা উত্তর কোরিয়াতে, অন্য দেশ আক্রমণ হানলেই একে অপরের পাশে দাঁড়াবেন পুতিন ও কিম।