আসছে উইন্ডোজ ১২

প্রকাশিত :  ০৭:৫৪, ১৩ অক্টোবর ২০২৩

আসছে উইন্ডোজ ১২

খুব শীঘ্রই আসছে উইন্ডোজ ১২। ২০২১ সালের অক্টোবরের পর আবারও আসছে উইন্ডোজের নতুন সংস্করণ। অবশ্য মাইক্রোসফট এ ব্যাপারে এখনও কিছু জানায়নি। 

তবে গ্লোবাল টেকনোলজি কনফারেন্সে ইনটেল সিএফও জানান, \'২০২৪ ব্যবহারকারীদের জন্য চমৎকার একটি সময় হবে। মাইক্রোসফট নিয়মিত আপডেট দিচ্ছে। আর আপডেটের এই বহর থেকে আন্দাজ করা যায় শীঘ্রই তারা নতুন উইন্ডোজের সংস্করণ নিয়ে আসতে চলেছে।\'

ইনটেলের তরফ থেকে এই ঘোষণা আসার পর অনেকেই দুয়ে দুয়ে চার মেলাতে শুরু করেছেন। ডিসেম্বরেই ইন্টেলের নতুন মিটিওর লেক চিপসেট আসবে বাজারে। তাছাড়া ইন্টেলের এরো লেক এস সিপিইউ বাজারে আসবে যেটিতে ২৪টি কোর রয়েছে। তাহলে কি নতুন গিগেই আমরা উইন্ডোজের নতুন সংস্করণ পাবো? সেটিই দেখার বিষয়।


Leave Your Comments


ইন্টেলকে ১০ বিলিয়ন ডলার ভর্তুকি দেবে যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশিত :  ০৬:০৩, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ০৮:২৪, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বাইডেন প্রশাসন যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম চিপ উত্পাদনকারী কোম্পানি ইন্টেলকে ১ হাজার কোটি ডলার ভর্তুকি দেওয়ার কথা বিবেচনা করছে। এই ভর্তুকি নিয়ে আলোচনা চলছে। ব্লুমবার্গ প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

এ ভর্তুকির বিষয়ে এখন আলোচনা চলছে বলেও প্রতিবেদনে উঠে এসেছে। এতে ঋণ ও সরাসরি অনুদানও থাকবে বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও ইন্টেলের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এরই মধ্যে চিপস অ্যাক্টের অধীনে দু’টি অনুদানের ঘোষণা দিয়েছে। মার্কিন বাণিজ্য সচিব গিনা রাইমন্ডো চলতি মাসের শুরুতে এক বিবৃতি দিয়েছিলেন। সেখানে তার বিভাগ থেকে সেমিকন্ডাক্টর উত্পাদন বাড়াতে দুই মাসের মধ্যে ৩ হাজার ৯০০ কোটি ডলারের বিলিয়ন প্রোগ্রাম থেকে তহবিল পুরস্কার দেওয়ার কথা জানিয়েছিলেন।

চিপ উত্পাদন ও সরবরাহ চেইনে বিনিয়োগের জন্যই এ তহবিল গঠন করা হয়েছে। এছাড়া ভর্তুকির মাধ্যমে নতুন কারখানা স্থাপন করা হবে, যেটি দেশটির অভ্যন্তরীণ পর্যায়ে উত্পাদন বাড়াতে সহায়তা করবে। ওহাইওতে একটি নতুন সাইটসহ অ্যারিজোনা ও নিউ মেক্সিকোয় দীর্ঘমেয়াদে চিপ কারখানা স্থাপনে কয়েক হাজার কোটি ডলার ব্যয়ের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে ইন্টেল।

কোম্পানির বিবৃতি অনুযায়ী, ওহাইওর কারখানাটি বিশ্বের অন্যতম বড় চিপ উত্পাদন কেন্দ্র হতে যাচ্ছে। তবে সম্প্রতি ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, মার্কিন কোম্পানিটি ২০২৬ সালের আগে ওহাইওতে কারখানা স্থাপনের কাজ শেষ করতে পারবে না।

ইন্টেল ছাড়াও মাইক্রোন ও স্যামসাং ইলেকট্রনিকস যুক্তরাষ্ট্রে আলাদা চিপ উত্পাদন কেন্দ্র স্থাপনের বিষয়ে কাজ করছে বলেও জানা গেছে।


img