সুরক্ষিত পেনড্রাইভ এল, খুলবে আঙুলের স্পর্শে

প্রকাশিত :  ১০:৪৭, ১৫ অক্টোবর ২০২৩

সুরক্ষিত পেনড্রাইভ এল, খুলবে আঙুলের স্পর্শে

সবচেয়ে সুরক্ষিত পেনড্রাইভ বাজারে এল। এই পেনড্রাইভ খুলবে আঙুলের স্পর্শে। অর্থাত্ এর নিরাপত্তায় ফিঙ্গারপ্রিন্ট রয়েছে। এই পেনড্রাইভ এনেছে লেক্সার। নতুন পেনড্রাইভের মডেল লেক্সার জাম্প ড্রাইভ এফ ৩৫। এই পেনড্রাইভে রয়েছে ইউএসবি ৩.০ সাপোর্ট। যার সাহায্যে আপনি ৩০০ এমবিপিএস স্পিডে ডেটা ট্রান্সফার করতে পারবেন। এতে অন্তত ১০টি ফিঙ্গারপ্রিন্ট আইডি সাপোর্ট করবে। তিন বছরের লিমিটেড ওয়ারেন্টি দেওয়া হচ্ছে এই ইউএসবি ড্রাইভের সঙ্গে।

৩২ জিবি এবং ৬৪ জিবি-এই দুই স্টোরেজ অপশনে পাওয়া যাবে। দাম যথাক্রমে ৪৫০০ এবং ৬০০০ রুপি। পেনড্রাইভটির গুরুত্বপূর্ণ ফিচারের মধ্যে ইউএসবি ড্রাইভটিতে ফিঙ্গারপ্রিন্ট রিকগনিশন দেওয়া হয়েছে। মূলত, ডেটার নিরাপত্তার জন্যই এই ফিঙ্গারপ্রিন্ট রিকগনিশন প্রযুক্তিটি দেওয়া হয়েছে।

ইউএসবি ড্রাইভটি তার ব্যবহারকারীদের বিভিন্ন স্পর্শকাতর তথ্যগুলি ফিঙ্গারপ্রিন্ট অথেনটিকেশনের মাধ্যমে সুরক্ষিত রাখবে। যে কেউ এই পেনড্রাইভ অ্যাক্সেস করতে পারবেন না। কেবল অথরাইজড লোকজনই এই ইউএসবি ড্রাইভ ব্যবহার করতে পারবেন।

নির্মাতা প্রতিষ্ঠান জানিয়েছে, নতুন এই ইউএসবি ডিভাইসটি সেটআপ করাও খুব সহজ। এটি ব্যবহার করতে আলাদা করে কোনো সফটওয়্যার ড্রাইভার ইনস্টল করার দরকার হবে না। ইউজাররা খুব সহজেই ড্রাইভে প্লাগ-ইন করে পাসওয়ার্ড বা ফিঙ্গারপ্রিন্টের মাধ্যমে অথেন্টিকেট করতে পারবেন।


Leave Your Comments


ইন্টেলকে ১০ বিলিয়ন ডলার ভর্তুকি দেবে যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশিত :  ০৬:০৩, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ০৮:২৪, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বাইডেন প্রশাসন যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম চিপ উত্পাদনকারী কোম্পানি ইন্টেলকে ১ হাজার কোটি ডলার ভর্তুকি দেওয়ার কথা বিবেচনা করছে। এই ভর্তুকি নিয়ে আলোচনা চলছে। ব্লুমবার্গ প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে।

এ ভর্তুকির বিষয়ে এখন আলোচনা চলছে বলেও প্রতিবেদনে উঠে এসেছে। এতে ঋণ ও সরাসরি অনুদানও থাকবে বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও ইন্টেলের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এরই মধ্যে চিপস অ্যাক্টের অধীনে দু’টি অনুদানের ঘোষণা দিয়েছে। মার্কিন বাণিজ্য সচিব গিনা রাইমন্ডো চলতি মাসের শুরুতে এক বিবৃতি দিয়েছিলেন। সেখানে তার বিভাগ থেকে সেমিকন্ডাক্টর উত্পাদন বাড়াতে দুই মাসের মধ্যে ৩ হাজার ৯০০ কোটি ডলারের বিলিয়ন প্রোগ্রাম থেকে তহবিল পুরস্কার দেওয়ার কথা জানিয়েছিলেন।

চিপ উত্পাদন ও সরবরাহ চেইনে বিনিয়োগের জন্যই এ তহবিল গঠন করা হয়েছে। এছাড়া ভর্তুকির মাধ্যমে নতুন কারখানা স্থাপন করা হবে, যেটি দেশটির অভ্যন্তরীণ পর্যায়ে উত্পাদন বাড়াতে সহায়তা করবে। ওহাইওতে একটি নতুন সাইটসহ অ্যারিজোনা ও নিউ মেক্সিকোয় দীর্ঘমেয়াদে চিপ কারখানা স্থাপনে কয়েক হাজার কোটি ডলার ব্যয়ের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে ইন্টেল।

কোম্পানির বিবৃতি অনুযায়ী, ওহাইওর কারখানাটি বিশ্বের অন্যতম বড় চিপ উত্পাদন কেন্দ্র হতে যাচ্ছে। তবে সম্প্রতি ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, মার্কিন কোম্পানিটি ২০২৬ সালের আগে ওহাইওতে কারখানা স্থাপনের কাজ শেষ করতে পারবে না।

ইন্টেল ছাড়াও মাইক্রোন ও স্যামসাং ইলেকট্রনিকস যুক্তরাষ্ট্রে আলাদা চিপ উত্পাদন কেন্দ্র স্থাপনের বিষয়ে কাজ করছে বলেও জানা গেছে।


img