img

সিডনিতে সম্মিলিত বিজয়া সম্মিলন অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত :  ০৮:৪৯, ০৬ নভেম্বর ২০২৩

সিডনিতে সম্মিলিত বিজয়া সম্মিলন অনুষ্ঠিত

বিপুল উৎসাহ ও আনন্দে শারদীয় দুর্গোৎসব শেষ হবার দুই সপ্তাহ পর অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসরত ২৩টি পূজা ও সাংস্কৃতিক সংগঠন আজ সম্পন্ন করলো সম্মিলিত বিজয়া সম্মিলন ২০২৩। এই আয়োজনের আহ্বান ছিল ‘অশুভের বিনাশ হোক, শুচি হোক বিশ্বলোক’। সব আসুরিক শক্তির বিনাশ করে, সমগ্র বিশ্বে শান্তি, মঙ্গল ও শুভ শক্তির উন্মেষ হোক, এটাই ছিল প্রার্থনা ও আহ্বান। এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অস্ট্রেলিয়ার প্রাদেশিক ও ফেডারেল পর্যায়ের কয়েকজন এমপি ও মন্ত্রী, কমিউনিটির বিপুল সংখ্যক সদস্য, স্পন্সর ও মিডিয়া। 

সিডনির সাবার্ব ক্যাম্পসির ওরিয়ন ফাংশান সেন্টারে গতকাল ৪ নভেম্বর (শনিবার) বিকাল ৪টায় শুরু হয়ে রাত ৯টা পর্যন্ত চলে এই আনন্দঘন মহাসম্মিলন। নিউ সাউথ ওয়েলস প্রদেশ থেকে ১৬টি সংগঠন এবং ভিক্টোরিয়া প্রদেশ থেকে তিনটি সংগঠনসহ বাকি চারটি প্রদেশ থেকে একটি করে, মোট ২৩টি সংগঠনের কয়েকশ’ সদস্য সপরিবারে ও সবান্ধবে এতে অংশগ্রহণ করেন। যেসব সংগঠনের প্রতিনিধি বা সদস্যরা সশরীরে অংশগ্রহণ করতে পারেননি, তারা বিজয়ার শুভেচ্ছা বার্তা, পূজার ছবি ও ভিডিও পাঠিয়েছেন। এতে উপস্থিতি আংশিক ভার্চুয়াল হলেও অংশগ্রহণে পূর্ণতা পেয়েছে। 

বিকাল ৫টায় তুষার রায়ের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠান শুরু হয়। কান্ট্রি অ্যাকনলেজমেন্ট, বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া এবং পরমেশ ভট্টাচার্য ও অপু সাহার সমন্বয়ে মঙ্গলপ্রদীপ জ্বালিয়ে ঢাক ও শঙ্খের মূখরিত বাজনার সাথে উলুধ্বনিতে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা হয়। এরপর পবিত্র গীতা থেকে পাঠ করেন অনন্যা ভূইয়া ও অংকিতা দত্ত। 

সম্মিলিত বিজয়া সম্মিলনের উদ্যোগে ও পরিকল্পনায় এবং আকাশ দের তত্ত্বাবধানে নির্মিত এবছর সমগ্র অস্ট্রেলিয়ায় সকল পূজার ছবি, ভিডিও এবং গত বছরের বিজয়া সম্মিলনের ছবিসহ একটি ভিডিও প্রদর্শিত হয়। ঐক্যবদ্ধ হয়ে আনন্দ উৎসব পালন এবং সম্মিলিত শক্তিতে অশুভ শক্তিকে রুখে দেবার বার্তাও ছিল এই ভিডিওতে, যা সবাইকে উদ্বুদ্ধ করে। বিজয়া উপলক্ষে ‘শক্তিরূপিণী দুর্গা তুমি ভক্তিরূপে এসো’ গানের সাথে বিশেষ নৃত্য পরিবেশন করেন বাংলাদেশ পূজা এসোসিয়েশনের পেশাদার নৃত্যশিল্পী মৌসুমী সাহা। 

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন নিউ সাউথ ওয়েলস পার্লামেন্টের মন্ত্রী সোফি কটসিস এমপি। তিনি এই সমন্বিত বর্ণিল ও প্রাণোস্ফূরণময় উৎসব পালনের ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, বহুজাতিক ও বহুসাংস্কৃতিক সমাজে এমন উৎসব ও উদ্যোগ নিশ্চিতভাবেই কমিউনিটিতে প্রাণ ও প্রেরণা সঞ্চার করবে। আর অশুভ শক্তির বিরুদ্ধে নিরন্তর সংগ্রামের এই প্রত্যয়ে বক্তাগণও সংহতি প্রকাশ করেন। 

উপস্থিত সকল সংগঠনের সভাপতি ও প্রতিনিধিগণ মঞ্চে দাঁড়িয়ে শুভেচ্ছা বিনিময় ও ঐক্য অটুট রাখার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে দেবযানী রায়ের সঞ্চালনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গান ও নৃত্যে অংশগ্রহণ করেন সিডনির একঝাঁক মেধাবী শিল্পীরা । তাছাড়া দুজন জনপ্রিয় অতিথি কণ্ঠশিল্পীর গানও অন্তর্ভূক্ত ছিল, যা সবাইকে মুগ্ধ করে। শুধু বাঙালি কমিউনিটির উৎসব নয়, এই প্রদেশের একটি বর্ণিল ও প্রাণময় উৎসব ছিল এই আয়োজন, এমনটি বলেছেন উপস্থিত অনেক অতিথি। সকল বিচারে এই আয়োজন ছিল গুরুত্বপূর্ণ, ঋদ্ধ ও স্মরণীয়।

কমিউনিটি এর আরও খবর

img

লন্ডনে ‘ডিজিটাল থেকে স্মার্ট বাংলাদেশ অগ্রযাত্রায় আমাদের করণীয়’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত :  ১৯:৪০, ২২ জুন ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ২০:২৬, ২২ জুন ২০২৪

প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বে তথ্য প্রযুক্তির উন্নয়ন ছাড়া কোন দেশ বা জাতির ভাগ্য পরিবর্তন সম্ভব নয়। এ মন্তব্য বাংলাদেশ সরকারের মন্ত্রী পরিষদ ও আইসিটি মন্ত্রনালয়ের এটুআই এর কৌশলগত যোগাযোগ ডিরেক্টর আশফাক জামানের। ২১ জুন শুক্রবার সন্ধ্যায় লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে ‘বঙ্গবন্ধু লেখক ও সাংবাদিক ফোরাম’ ইউকে আয়োজিত ’বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা : ডিজিটাল থেকে স্মার্ট বাংলাদেশ অগ্রযত্রায় আমাদের করনীয় শীর্ষ’ সেমিনারে কীনোট স্পীকারের বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

আশফাক জামান বলেন, জাতির জনকের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে তারই সুযোগ্য উত্তরসূরী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে ডিজিটাল থেকে স্মার্ট বাংলাদেশে রূপান্তরে কাজ করছেন। বাংলাদেশ এখন তথ্য প্রযুক্তিতে অনেক এগিয়ে গেছে। এর সুফল যাতে সকলে ভোগ করতে পারে এজন্য আমাদের সকলকে কাজ করতে হবে।

সেমিনারের হোষ্ট বঙ্গবন্ধু লেখক সাংবাদিক ফোরামের সেক্রেটারী সাংবাদিক শাহ মোস্তাফিজুর রহমান বেলালের সঞ্চালনায় ও লন্ডনবাংলা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি জনমত সম্পাদক সৈয়দ নাহাস পাশার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সেমিনারে আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন ব্রিজইন্ডিয়া ফাউন্ডেশনের পরিচালক প্রতীক দাতানি, ওয়েষ্ট লন্ডন চেম্বার অফ কমার্সের নির্বাহী পরিচালক অ্যালান রাইডস (গ্রাড), ভূ-রাজনৈতিক বিশ্লেষক প্রিয়জিত দেব সরকার।