সহায়তাকারী আটক

img

লন্ডনে আব্দুশ শুকুর এজেদিকে ধরিয়ে দিতে ২০ হাজার পাউন্ড ঘোষণা

প্রকাশিত :  ০৯:০৩, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ০৯:০৮, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

লন্ডনে আব্দুশ শুকুর এজেদিকে ধরিয়ে দিতে ২০ হাজার পাউন্ড ঘোষণা

সাউথ লন্ডনে মা ও তার দুই মেয়ের উপর রাসায়নিক পদার্থ দিয়ে হামলাকারী আব্দুশ শুকুর এজেদি পলাতক রয়েছেন। তাকে সহায়তাকারী এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ২২ বছর বয়সী এই ব্যক্তিকে জামিনে মুক্তি দেয়া হয়েছে। গত বুধবার লন্ডনে মা ও তার দুই মেয়ের উপর হামলার পর থেকে পলাতক রয়েছে আব্দুল শুকুর এজেদি।

পুলিশ জানায় সোমবার ভোরে অভিযান চালিয়ে এজেদিকে সহায়কারী ব্যক্তিকে আটক করতে সমর্থ হয় পুলিশ। একই সাথে বুধবার রাতে সাউথওয়ার্ক ব্রিজ এলাকায় আব্দুল শুকুর এজিদিকে নতুন করে দেখা গেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এদিকে আহমদ ৩১ বছর বয়সী মহিলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার ডান চোখ চিরদিনের জন্য দৃষ্টিশক্তি হারাতে পারেন। পুলিশ সাংবাদিকদের জানিয়েছেন তার এই ক্ষতি সারাজীবনে বয়ে বেড়াতে হবে।


আরও পড়ুন: ব্রিটেন-আমেরিকায় পাল্টা হামলার হুমকি হুথিদের


তবে আহত দুই শিশু তেমন মারাত্মক আহত হয়নি বলে নিশ্চিত করেছে পুলিশ। আহত মহিলার সাথে আক্রমনকারী এজিদের কি সম্পর্ক রয়েছে তা জানার চেস্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তবে আহত দুই শিশুর পিতা এজিদ নয় তা নিশ্চিত করা গেছে।

এদিকে এজেদিকে গ্রেফতার করতে জোর তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে পুলিশ। আব্দুল শুকুর এজেদি নামক এই ব্যক্তিকে আটক করতে সহায়তা করলে ২০ হাজার পাউন্ড পুরস্কার ঘোষনা করেছে পুলিশ।

মেট পুলিশ জানিয়েছে আব্দুল শুকুরকে সর্বশেষ ৩১ জানুয়ারী টাওয়ার হিল আন্ডারগ্রাউন্ড স্টেশন থেকে বের হতে সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে। তাকে ধরিয়ে দিতে জনগনের সহায়তা চেয়েছে মেট পুলিশ।

গত বুধবার সন্তেহভাজন শুকুর ক্ষতিকর পদার্থ দিয়ে ক্লাফহামে মা ও মেয়ের উপর হামলা চালায় এতে ৩ ও আট বছর বয়সী শিশু মারাত্মক আহত হয়।

মেট পুলিশ জানিয়েছে যে পর্দাথ দিয়ে আক্রমন করা হয়েছে, তা পরিক্ষা করে দেখা গেছে খুবই শক্তিশালী ক্ষতিকর পদার্থ। তাই শুকুরকে ধরতে পুলিশ লন্ডনের ২টি এবং নিউক্যাসলের তিনটি ঠিকানায় ইতিমধ্যে তাল্লাশি চালিয়েছে।

যুক্তরাজ্য এর আরও খবর

img

ইরানের ওপর ব্রিটেন-আমেরিকার নতুন নিষেধাজ্ঞা

প্রকাশিত :  ১৮:২২, ১৮ এপ্রিল ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ০৪:০২, ১৯ এপ্রিল ২০২৪

ইহুদিবাদী ইসরায়েলের প্রধান মিত্রদেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য ইরানের ওপর ফের নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দিয়েছে। ইসরায়েলে ইরানের হামলার পর পাল্টা প্রতিক্রিয়া হিসেবে এই নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে দেশ দুটি। খবর পলিটিকো ইইউ ও আল জাজিরার।

যুক্তরাষ্ট্রের অর্থ মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ইরানের ইউএভি (ড্রোন) উৎপাদনের সঙ্গে যুক্ত ১৬ ব্যক্তি এবং ২টি প্রতিষ্ঠানের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। এরা ইরানের শাহেদ ড্রোন নির্মাণের সঙ্গে যুক্ত। ওই ড্রোন ১৩ এপ্রিলের হামলায় ব্যবহার করা হয়েছে।

যুক্তরাজ্যও ইরানের ড্রোন ও ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির সঙ্গে যুক্ত দেশটির সামরিক বাহিনী-সংশ্লিষ্ট বেশ কয়েকটি সংস্থা, ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিচ্ছে।

শনিবার রাতে ইসরাইলে প্রত্যাশিত ও অভাবনীয় হামলা চালায় ইরান। ১ এপ্রিল সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কে ইরানের কনস্যুলেটে ইসরাইলের বিমান হামলায় কয়েকজন জ্যেষ্ঠ সেনা কর্মকর্তা নিহতের প্রতিশোদ হিসেবে ওই হামলা চালানো হয়।

এ হামলায় তিন শতাধিক ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করে ইরান। এগুলোর বেশির ভাগই আকাশে ধ্বংস করার দাবি করেছে ইসরাইল। এ হামলা রুখতে ইসরাইলকে সহায়তা করে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স ও জর্ডান।

এ হামলার জবাবে ইরানে পাল্টা হামলা চালানোর ঘোষণা দিয়েছে ইসরাইল। দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, নিজেদের সুরক্ষার অধিকার ইসরাইলের রয়েছে।

ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞার ঘোষণা দিয়ে এক বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থমন্ত্রী জ্যানেট ইয়েলেন বলেছেন, আজকে যুক্তরাজ্যের সঙ্গে সমন্বয় এবং অংশীদার ও মিত্রদের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে আমরা ইসরাইলে ইরানের নজিরবিহীন হামলার জবাব দিতে দ্রুত ও সুনির্দিষ্ট পদক্ষেপ নিচ্ছি।

ইরানের মারাত্মক কর্মকাণ্ডের গুরুত্বপূর্ণ দিকগুলো ব্যাহত ও নস্যাৎ করার লক্ষ্যে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থনৈতিক উপকরণগুলো (টুল) ব্যবহার করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি। আগামীতে ইরানের ওপর আরও নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার লক্ষ্যে কর্তৃপক্ষগুলোর তৎপরতা অব্যাহত থাকবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।