দ্বিগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে রাশমিকার পারিশ্রমিক

প্রকাশিত :  ০৩:২৯, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ০৬:৫১, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

দ্বিগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে রাশমিকার পারিশ্রমিক

রণবীর কাপুর অভিনীত ছবি ‘অ্যানিমেল’ মুক্তি পেয়েছে গত ১ ডিসেম্বর। সন্দীপ রেড্ডি ভাঙ্গা পরিচালিত এ ছবি মুক্তির চার দিনের মধ্যেই বক্স অফিসে প্রায় ২৪০ কোটি টাকার ব্যবসা করেছে। ছবিটি হিট হওয়ার পরই রাতারাতি যেন প্রযোজক ও পরিচালকদের কাছে অধরা হয়ে গেলেন ছবিটির নায়িকা রাশমিকা মান্দানা।

দক্ষিণী এই অভিনেত্রী এর আগেও পুষ্পা ছবি দিয়েও প্রযোজকদের একপ্রকার ওয়ার্নিং দিয়েছিলেন যে এবার থেকে তার পারিশ্রমিক আর কম দিলে চলবে না। বাড়াতে হবে ছবিতে তার পারিশ্রমিক।

গত কয়েক বছরে বলিউডে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করার তাগিদে বেশ পরিশ্রম করছেন রাশমিকা। অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে ‘গুডবাই’ ছবিতে কাজ করে বলিউডে আত্মপ্রকাশ করলেও ব্যর্থ হোন বক্স অফিসে ঝড় তুলতে। তবে ‘অ্যানিম্যাল’র সাফল্য যেন সব ব্যর্থতাকে ছাপিয়ে গেল। এ বার বলিউডে পায়ের তলার জমি শক্ত হতেই রাতারাতি পারিশ্রমিক বাড়িয়ে ফেললেন অভিনেত্রী।

আগে তিনি ২ কোটি টাকা নিতেন প্রতি ছবিতে। তবে ‘অ্যানিমেল’ হিট হতেই প্রায় দ্বিগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে তার পারিশ্রমিক। সাড়ে ৪ কোটি টাকা চাইছেন রাশমিকা। এমন অভিযোগ বেশ কিছু প্রযোজকদের। যদিও এই খবর একেবারে নাকচ করে দিয়েছেন অভিনেত্রী।

তিনি বলেন, ‘আমি ভাবছি এই কথাগুলো রটায় কারা। তবে এখন এত কিছু শোনার পর মনে হচ্ছে আমার বোধহয় ভেবে দেখা উচিত। আমার খালি মনে হয়, আমি যা করছি সেটা যাতে আমার পারিশ্রমিকের সঙ্গে যথার্থ হয়।’ যদিও রাশমিকা সত্যিই পারিশ্রমিক একটু বাড়িয়েছেন কি না, তা গোপন রাখতে চাইলেন নিজেই।

Leave Your Comments


স্বামী রকিবের সাথে ভিডিও দিয়ে যা বললেন মাহি

প্রকাশিত :  ০৯:৩৪, ০৩ মার্চ ২০২৪

বেশ কিছুদিন ধরেই আলোচনায় রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি ও তার স্বামী রকিব সরকার। গত ১৬ ফেব্রুয়ারি হঠাৎ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিচ্ছেদের ঘোষণা দিয়ে বসেন ঢাকাই সিনেমার আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে স্বামী রকিব সরকারের সঙ্গে সংসার ভাঙার খবর জানালেও কারণ স্পষ্ট করেননি এ নায়িকা। এরপর স্বামীর পদবিও মুছে ফেলেন তিনি। বর্তমানে ছেলেকে নিয়ে আলাদাই থাকছেন এই নায়িকা।  

তবে বিচ্ছেদের ঘোষণা দিলেও স্বামীর প্রতি সম্মান আর ভালোবাসা যেন একই রয়ে গেছে মাহির। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মাঝেমধ্যে ঢুঁ মারলেই তার চিহ্ন পাওয়া যায়। আবার অন্যদিকে একাকিত্বে ভুগছেন বলেও প্রতিনিয়ত ফেসবুকে জানান দেন এই নায়িকা।

রোববার (৩ মার্চ) নিজের ফেসবুকে স্বামীর সঙ্গে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন মাহি। ক্যাপশনে নায়িকা লিখেছেন— ‘যদিও এটি আমাদের মধ্যে শেষ হয়ে গেছে, এবং আমি তোমাকে আমার জীবনে ফিরে পেতে চাই না, এই ভালোবাসা আমাদের ইতিহাসের অংশ হয়ে যাবে। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত স্মৃতি হয়ে থাকবে।’

আগের মতো এখন চলচ্চিত্রে নিয়মিত নন মাহি। রাজনীতিতেও নিজের শক্ত অবস্থান গড়তে পারলেন না। একদিকে দ্বিতীয় সংসারও ভাঙল, অন্যদিকে অভিনেত্রীর ছেলের গায়ের রং নিয়েও রয়েছে নানান সমালোচনা। সব মিলিয়ে বলা যায়, বিষণ্নতায় ভুগছেন মাহি।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের ২৪ মে সিলেটের ব্যবসায়ী পারভেজ মাহমুদ অপুকে বিয়ে করেছিলেন মাহি। এর কয়েক বছর পরেই ২০২০ সালে মে মাসে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দেওয়া এক পোস্টে পারভেজ মাহমুদ অপুর সঙ্গে বিচ্ছেদের কথা জানান তিনি। পরে ২০২১ সালে রাজনীতিবিদ ও ব্যবসায়ী কামরুজ্জামান সরকার রকিবকে বিয়ে করেন মাহিয়া মাহি।

img