শেখ হাসিনাকে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর চিঠি

প্রকাশিত :  ১১:০৩, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ১৩:৫০, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

শেখ হাসিনাকে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর চিঠি

স্বল্পোন্নত দেশের স্ট্যাটাস থেকে বাংলাদেশের উত্তরণে সহায়তা করার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে চিঠি দিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক। চিঠিতে দু’দেশের মধ্যে ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক ও নিরাপত্তা অংশীদারত্ব জোরদারের বিষয়টি গুরুত্ব পেয়েছে।

ঋষি সুনাক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে লেখা চিঠিতে বলেন, আপনারা সরকারের ঐতিহাসিক পঞ্চম মেয়াদে যাত্রা শুরু করেছেন এবং সাম্প্রতিক বছরগুলোতে আপনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের চমকপ্রদ উন্নয়ন অর্জনের প্রতিফলন ঘটিয়েছেন। এসময় আমি আমাদের দুই দেশের মধ্যে ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক ও নিরাপত্তা অংশীদারিত্ব জোরদার এবং স্বল্পোন্নত দেশ থেকে বাংলাদেশের উত্তরণে সমর্থনে আমার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করছি।

বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) লন্ডনস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন এ তথ্য জানিয়েছে।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, আমাদের অংশীদারিত্ব এক গভীর অভিন্ন ইতিহাস ও বন্ধুত্বের ওপর ভিত্তি করে গড়ে উঠেছে, যা মানুষে-মানুষে দৃঢ় বন্ধনের ওপর ভিত্তি করে গড়ে উঠেছে।

সুনাক আশা প্রকাশ করেন, অধিকার ও স্বাধীনতার অগ্রগতির পাশাপাশি রাজনৈতিক সমঝোতার মাধ্যমে বাংলাদেশ এগিয়ে যেতে পারে।

তিনি আরো বলেন, এই মূল্যবোধগুলো কমনওয়েলথ পরিবারের মূল ভিত্তি এবং এটি একটি গতিশীল গণতান্ত্রিক সমাজ গঠন করে, যা অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির জন্য প্রয়োজনীয় বিনিয়োগ আকর্ষণ করে।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, আমি অভিবাসন বিষয়ে সহযোগিতাকে আমাদের দ্বিপক্ষীয় আলোচ্যসূচির একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হিসেবে দেখছি।

চিঠিতে বলা হয়, আপনি সদয়ভাবে যুক্তরাজ্যে অবৈধভাবে অবস্থানরত বাংলাদেশি নাগরিকদেরকে ফেরত পাঠানোর একটি টেকসই ও সুশৃঙ্খল উপায়কে সমর্থন করেছেন।

তিনি লিখেছেন, আমি আশা করছি,পারস্পরিক সহযোগিতার বৃহত্তর আলোচ্যসূচির অংশ হিসেবে প্রক্রিয়াটি চূড়ান্ত হয়েছে।

দু’দেশের গুরুত্বপূর্ণ ও ঐতিহাসিক সম্পর্ক আরও এগিয়ে নিতে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কাজ করতে আগ্রহ ব্যক্ত করেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী।

Leave Your Comments


গাজার পক্ষে প্রচার চালিয়ে ব্রিটিশ এমপির জয়

প্রকাশিত :  ১৫:২৩, ০১ মার্চ ২০২৪

যুক্তরাজ্যের বামপন্থি রাজনীতিবিদ জর্জ গ্যালোওয়ে গাজার পক্ষে প্রচার চালিয়ে পার্লামেন্টের উপনির্বাচনে জয় পেয়েছেন। তবে নির্বাচনে জয় পেলেও হারিয়েছেন লেবার পার্টির সমর্থন। 

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা এ খবর জানিয়েছে।

দেশটির উত্তরের শহর রোচডেলের আসনে জয়ী হয়েছেন ওয়ার্কার্স পার্টির প্রবীণ রাজনীতিবিদ জর্জ গ্যালোওয়ে। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বীর চেয়ে ১২ হাজার ৩৩৫ ভোট বেশি পেয়েছেন তিনি।

শুক্রবার নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশের পর লেবার পার্টির কিয়ের স্টারমারকে উদ্দেশ করে গ্যালোওয়ে বলেন, গাজায় নিরপরাধ মানুষকে হত্যার সমর্থন দিয়েছেন স্টারমার। গাজা যুদ্ধবিরতির আহ্বান প্রত্যাখ্যান করেছিলেন তিনি।

যুক্তরাজ্যের মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ এলাকাগুলোতে গ্যালোওয়ে ফিলিস্তিনের পক্ষে প্রচার চালাচ্ছেন।

img