মুক্তি পেয়েছে আহমেদ রুবেলের ‘পেয়ারার সুবাস’

প্রকাশিত :  ০৯:৫৪, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ১০:০০, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

মুক্তি পেয়েছে আহমেদ রুবেলের ‘পেয়ারার সুবাস’

নিজের সিনেমা ‘পেয়ারার সুবাস’ গিয়ে মারা যান অভিনেতা আহমেদ রুবেল। তার মৃত্যুর দুইদিন পর ৯ ফেব্রুয়ারি মুক্তি পেল ছবিটি। দেশব্যাপী ২৭টি প্রেক্ষাগৃহে চলছে সিনেমাটি।
আট বছর ধরে মুক্তির অপেক্ষায় ছিল ছবিটি। সিরাজগঞ্জ ও পাবনার বিভিন্ন লোকেশনে দৃশ্যধারণ করা হয়েছে এই সিনেমার। আহমেদ রুবেল ছাড়াও এতে অভিনয় করেছেন সুষমা সরকার, জয়া আহসান, তারিক আনাম খান পেমুখ। ছবিটি নির্মাণ করেছেন নূরুল আলম আতিক।


বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় ‘পেয়ারার সুবাস’র বিশেষ প্রদর্শনীতে যোগ দিতে যাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু  অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছার আগে অসুস্থবোধ করলে তাকে নিকটস্থ স্কয়ার হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে নেওয়ার পর দায়িত্বরত চিকিৎসকরা আহমেদ রুবেলকে মৃত ঘোষণা করেন।

যে সিনেমা হলগুলোতে ছবিটি মুক্তি পেয়েছে সেগুলো হলো, স্টার সিনেপ্লেক্স (বসুন্ধরা সিটি শপিং মল, এস.কে এস টাওয়ার, সিমান্ত সম্ভার, সনি স্কোয়ার, বঙ্গবন্ধু মিলিটারী জাদুঘর, বালি আর্কিড, চট্রগ্রাম), বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই টেক পার্ক, রাজশাহী ব্লকবাস্টার সিনেমাস-যমুনা ফিউচার পার্ক, লায়নস সিনেমাস (জিনজিরা), সিলভার স্ক্রীন (চট্রগ্রাম), গ্র্যান্ড সিলেট মুভি থিয়েটার (সিলেট), শ্যামলী সিনেমা (ঢাকা), মমো-ইন (বগুড়া), ম্যাজিক মুভি থিয়েটার ফ্যান্টাসী পার্ক (দিয়াবাড়ী), সিনেস্কোপ (নারায়নগঞ্জ), রুটস সিনেক্লাব (সিরাজগঞ্জ), গুলশান সিনেপ্লেক্স (নারায়নগঞ্জ), মধুমিতা সিনেমা (ঢাকা), সেনা অডিটোরিয়াম (সাভার), সুগন্ধা (চট্রগ্রাম), শঙ্খ সিনেমা (খুলনা), শাপলা সিনেমা (রংপুর), ছায়াবানী সিনেমা (ময়মনসিংহ), নন্দিতা সিনেমা (সিলেট), মর্ডান সিনেমা (দিনাজপুর), লিবার্টি সিনেমা (খুলনা) এবং স্পনীল সিনেপ্লেক্স (কুষ্টিয়া)।

Leave Your Comments


স্বামী রকিবের সাথে ভিডিও দিয়ে যা বললেন মাহি

প্রকাশিত :  ০৯:৩৪, ০৩ মার্চ ২০২৪

বেশ কিছুদিন ধরেই আলোচনায় রয়েছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি ও তার স্বামী রকিব সরকার। গত ১৬ ফেব্রুয়ারি হঠাৎ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিচ্ছেদের ঘোষণা দিয়ে বসেন ঢাকাই সিনেমার আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। তবে স্বামী রকিব সরকারের সঙ্গে সংসার ভাঙার খবর জানালেও কারণ স্পষ্ট করেননি এ নায়িকা। এরপর স্বামীর পদবিও মুছে ফেলেন তিনি। বর্তমানে ছেলেকে নিয়ে আলাদাই থাকছেন এই নায়িকা।  

তবে বিচ্ছেদের ঘোষণা দিলেও স্বামীর প্রতি সম্মান আর ভালোবাসা যেন একই রয়ে গেছে মাহির। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মাঝেমধ্যে ঢুঁ মারলেই তার চিহ্ন পাওয়া যায়। আবার অন্যদিকে একাকিত্বে ভুগছেন বলেও প্রতিনিয়ত ফেসবুকে জানান দেন এই নায়িকা।

রোববার (৩ মার্চ) নিজের ফেসবুকে স্বামীর সঙ্গে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন মাহি। ক্যাপশনে নায়িকা লিখেছেন— ‘যদিও এটি আমাদের মধ্যে শেষ হয়ে গেছে, এবং আমি তোমাকে আমার জীবনে ফিরে পেতে চাই না, এই ভালোবাসা আমাদের ইতিহাসের অংশ হয়ে যাবে। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত স্মৃতি হয়ে থাকবে।’

আগের মতো এখন চলচ্চিত্রে নিয়মিত নন মাহি। রাজনীতিতেও নিজের শক্ত অবস্থান গড়তে পারলেন না। একদিকে দ্বিতীয় সংসারও ভাঙল, অন্যদিকে অভিনেত্রীর ছেলের গায়ের রং নিয়েও রয়েছে নানান সমালোচনা। সব মিলিয়ে বলা যায়, বিষণ্নতায় ভুগছেন মাহি।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের ২৪ মে সিলেটের ব্যবসায়ী পারভেজ মাহমুদ অপুকে বিয়ে করেছিলেন মাহি। এর কয়েক বছর পরেই ২০২০ সালে মে মাসে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দেওয়া এক পোস্টে পারভেজ মাহমুদ অপুর সঙ্গে বিচ্ছেদের কথা জানান তিনি। পরে ২০২১ সালে রাজনীতিবিদ ও ব্যবসায়ী কামরুজ্জামান সরকার রকিবকে বিয়ে করেন মাহিয়া মাহি।

img