ভূমিকম্পে কেঁপে উঠলো যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াই দ্বীপ

প্রকাশিত :  ০৩:৪৪, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

ভূমিকম্পে কেঁপে উঠলো যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াই দ্বীপ

যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জে ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে । মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ জানিয়েছে, স্থানীয় সময় শুক্রবার ভূমিকম্পটি আঘাত হেনেছে। হাওয়াই দ্বীপের পাহালার কাছে  আঘাত হানা ভূমিকম্পটির মাত্রা ছিল ৫ দশমিক ৭ ।  তবে ওই ভূমিকম্প থেকে কোনো সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়নি। খবর এএফপির।

মার্কিন ভূতাত্ত্বিক জরিপ জানিয়েছে, এর উপকেন্দ্র ছিল ভূপৃষ্ঠ থেকে প্রায় ৩৭ কিলোমিটার গভীরে।

ভূমিকম্পের সময় পুরো হাওয়াই দ্বীপেই প্রচণ্ড কম্পন অনুভূত হয়েছে। লোকজন সে সময় আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। ধারণা করা হচ্ছে, এই ভূমিকম্প থেকে খুব একটা ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।

টেকটোনিক প্লেটে অবস্থানের কারণে হাওয়াই দ্বীপে প্রায়ই ভূমিকম্প আঘাত হানে। এটি কিলাউয়াসহ ৬টি সক্রিয় আগ্নেয়গিরির অবস্থান। পর্যটকরা হেলিকপ্টারে করে এসব এলাকা পরিদর্শন করে।

বিশ্বের বৃহত্তম আগ্নেয়গিরি মাউনা লোও এই হাওয়াই দ্বীপেই অবস্থিত। ২০২২ সালে এক সপ্তাহব্যাপী এই আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাত হয়েছে। চার দশকের মধ্যে প্রথমবারের মতো সেখানে অগ্ন্যুৎপাত হয়। সে সময় ৬০ মিটার উঁচুতে লাভার স্রোত দেখা গেছে।

Leave Your Comments


গাজার হাসপাতালে ক্ষুধা-অপুষ্টিতে মারা গেল আরও ১৫ শিশু

প্রকাশিত :  ১২:০১, ০৩ মার্চ ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ১২:০৯, ০৩ মার্চ ২০২৪

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকার কামাল আদওয়ান হাসপাতালে পানিশূন্যতা ও অপুষ্টিতে ভুগে আরও ১৫ শিশুর মৃত্যু হয়েছে। তীব্র অপুষ্টির বিরুদ্ধে ইউনিসেফ প্রধানের সতর্ক করার পরই গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ তথ্য জানিয়েছে। খবর আল-জাজিরার 

অবরুদ্ধ গাজায় বিপর্যয়কর মানবিক পরিস্থিতির আরও অবনতির খবরের মধ্যে এই ১৫ শিশু মৃত্যুর তথ্য জানা গেল।

এর আগে ২৮ ফেব্রুয়ারি কামাল আদওয়ান হাসপাতালে চার শিশুর মৃত্যু হয়। এরপর আল শিফা হাসপাতালে আরও দুই শিশুর মৃত্যু হয়।

প্রায় পাঁচমাস ধরে গাজায় হামলা চালাচ্ছে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী। দীর্ঘ সময় ধরে চলা এ হামলার কারণে অবরুদ্ধ এ ভূখণ্ডটিতে তীব্র মানবিক সংকট দেখা দিয়েছে। দুর্ভিক্ষের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছেছে কয়েক লাখ বাসিন্দা।

লাখো মানুষ উদ্বাস্তু, খোলা আকাশের নিচে দিন কাটাচ্ছে। ইসরায়েলের বাধায় গাজায় ত্রাণ সহায়তা সরবরাহের গতি আরও মন্থর হয়ে গেছে। ত্রাণ না পৌঁছানোয় ছোট ছোট শিশুরাও অনাহারে থাকছে।

আল-জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, খাদ্যের অভাবে শরণার্থী শিবিরে থাকা মায়েরা নবজাতকদের বুকের দুধ খাওয়াতে পারছেন না। তারা দুধের পরিবর্তে নবজাতকদের খেজুর খাওয়াচ্ছেন।

এদিকে জাতিসংঘের মানবিক সহায়তা সমন্বয়কারী সংস্থা জানিয়েছে, উত্তর গাজামুখী অর্ধেকের বেশি ত্রাণ সহায়তাকে গত মাসে সেখানে প্রবেশের অনুমতি দেয়নি ইসরায়েল। কোথায় ও কীভাবে এই ত্রাণ সহায়তা দেয়া হবে–সে বিষয়েও জাতিসংঘের ওপর খবরদারি করছে ইসরায়েলি সেনারা।


img