প্রতিদিনই বাড়ছে পেঁয়াজের দাম

প্রকাশিত :  ০৪:৫৮, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ১০:২৩, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

প্রতিদিনই বাড়ছে পেঁয়াজের দাম

রাজধানীর বাজারগুলোতে প্রতিনিয়ত বাড়ছে পেঁয়াজের দাম। গেল মাসের মাঝামাঝিতে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৭০ থেকে ৮০ টাকায় বিক্রি হলেও ঠিক শেষের দিকে এসে প্রতি কেজি পেঁয়াজের দাম সেঞ্চুরি হাঁকায়।  এরপর পেঁয়াজের দাম ১০৫ থেকে ১১০-এর মধ্যে ছিল। গতকাল সেই পেঁয়াজের দাম কেজিতে ১২০ টাকা ওঠে। আর আজ তা ১৩০ টাকায় গিয়ে ঠেকেছে। ফলে মাত্র ১৫ দিনের ব্যবধানে কেজিতে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে মোটামুটি ৫০ টাকা। গড়ে প্রতিদিন কেজিতে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে ৩ টাকার বেশি। 

আজ (শনিবার) রাজধানীর বিভিন্ন বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ১৩০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে। ব্যবসায়ীরা বলছে, মুড়িকাটা পেঁয়াজ একেবারেই শেষের দিকে হওয়ায় এই পেঁয়াজের সরবরাহ কমেছে বাজারে। তাই এই দাম বাড়তি আরও কয়েক দিন থাকবে, এরপর হালি পেঁয়াজ উঠতে শুরু করলে দাম অনেক কমে যাবে।

হঠাৎ পেঁয়াজের এমন বাড়তি দামের বিষয়ে বিক্রেতা আলমগীর হোসেন বলেন, পাইকারি বাজারেই পেঁয়াজের দাম গতকাল থেকে বাড়তি যাচ্ছে। গতকাল কারওয়ান বাজারেই দাম পড়েছে প্রতি কেজি ১০৫ থেকে ১১০ টাকা। এরপর আছে পরিবহন খরচ, রাস্তা খরচ, দোকান খরচ। সব মিলিয়ে আজ পেঁয়াজ ১২০/১৩০ টাকায় খুচরা বাজারে বিক্রি হচ্ছে। এক সপ্তাহ আগে পাইকারি বাজার থেকে পেঁয়াজ কেনা পড়তো ৮০/৮৫ টাকা,  তখন আমরা খুচরা দোকানে ১০০/১০৫ টাকায় বিক্রি করেছি। কিন্তু গতকাল থেকে দাম বেড়ে যাওয়ায় আর পারছি না।

মগবাজার এলাকার বাসিন্দা খোরশেদ আলম বাজার করতে গিয়ে পেঁয়াজের দাম শুনে নিজের কানকেই যেন বিশ্বাস করতে পারছিলেন না। তিনি বলেন, ৩/৪ দিন আগেই পেঁয়াজ কিনলাম ১০০ টাকা কেজি। আজ দেখছি হয়েছে ১৩০ টাকা। তিনদিনের মধ্যে এক লাফে ৩০ টাকা বেড়ে গেল, অথচ বাজার নিয়ন্ত্রণের কোনো উদ্যোগ দেখতে পেলাম না। 


আরও পড়ুন : হু হু করে বাড়ছে পেঁয়াজের দাম


তিনি আরও বলেন, ব্যবসায়ীরা সাধারণ ক্রেতাদের জিম্মি করে এভাবে যখন তখন পেঁয়াজের দাম বাড়িয়ে দেবে অথচ বাজার তদারকি, মনিটরিং থাকবে না, এটা কেমন কথা? আমরা কি সব সময়ই অসাধু ব্যবসায়ীদের কাছে হার মেনে বেশি দামে কিনেই যাব?

পাবনা থেকে পাইকারি দরে পেঁয়াজ কিনে ঢাকায় খুচরা বিক্রি করেন আলমগীর হোসেন নামে একজন ব্যবসায়ী। তিনি বলেন, গত সপ্তাহে পাবনাতে প্রতি কেজি পেঁয়াজ পাইকারি কেনা পড়েছে ৮০ থেকে ৮৫ টাকা, সেই পেঁয়াজ রাজধানীতে খুচরা বিক্রি হয়েছে ১০০ টাকা কেজি। আগের সপ্তাহে সেখানে প্রতি মণ (৪০ কেজি) পেঁয়াজ কেনা পড়তো ৩২০০ থেকে ৩৪০০ টাকা কেজি, বর্তমানে সেটা পড়ছে ৩৮০০/৩৯০০ টাকা। 

তিনি আরও বলেন, মূলত নতুন পেঁয়াজ বা মুড়িকাটা কৃষকের পেঁয়াজ তোলা শেষের দিকে। প্রায় দেড় মাস আগে এই পেঁয়াজ বাজারে আসতে শুরু করেছিল, এখন কৃষকের সেই পেঁয়াজ শেষের দিকে। ফলে সরবরাহ কমতে শুরু করেছে, আর চাহিদার তুলনায় সরবরাহ না থাকায় হঠাৎ করে পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেছে। এখন কৃষকের মূল পেঁয়াজ হালি পেঁয়াজ যেটা বছর জুড়ে পাওয়া যায় সেই পেঁয়াজ উঠতে কিছুদিন সময় লাগবে। সে পর্যন্ত এমন বাড়তি দাম থাকতে পারে বাজারে।

অন্যদিকে মিরপুর শেওড়াপাড়া এলাকার খুচরা বিক্রেতা মুদির দোকানি হালিম উদ্দিন বলেন, কারওয়ান বাজারসহ অন্যান্য পাইকারি বাজারে প্রতি পাল্লার (৫ কেজিতে এক পাল্লা) দাম পড়ে যাচ্ছে ৫২৫ থেকে ৫৫০ টাকা। সেই পেঁয়াজ পরিবহন খরচ দিয়ে এনে অন্যান্য সব খরচের হিসেব করে প্রতি কেজি ১২০ থেকে ১৩০ টাকায় বিক্রি করছি। আমরা যখন পাইকারি বাজারে বেশি দামে কিনে আনি তখন আমাদের খুচরা দোকানেই বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি করতে হয়। আবার যখন পাইকারি বাজারে কম দামে পেতে শুরু করব তখন আবার কম দামেই পেঁয়াজ বিক্রি করব ক্রেতাদের কাছে।

ট্রেডিং কর্পোরেশনের অব  বাংলাদেশের (টিসিবি) সহকারী পরিচালক (বাজার তথ্য) নাসির উদ্দিন তালুকদার জানিয়েছেন, গতকাল বাজারে পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে প্রতি কেজি সর্বোচ্চ ১২০ টাকায়। গত সপ্তাহে এই পেঁয়াজের দাম ছিল ৯০ টাকা আর এক মাস আগে এই পেঁয়াজের দাম ছিল ৮৫ থেকে ১০০ টাকার মধ্যে। কিন্তু গত বছর এই সময় এই পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে ৩০ থেকে ৪০ টাকার মধ্যে।


Leave Your Comments


২২ মিউচুয়াল ফান্ডে কমেছে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ

প্রকাশিত :  ১১:৫৭, ০৩ মার্চ ২০২৪

ডিসেম্বর মাসের তুলনায় জানুয়ারি মাসে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ কমেছে শেয়ারবাজারের ৩৭টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে ২২টি প্রতিষ্ঠানের। একই সময়ে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ বেড়েছে ১৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২টির। ডিএসই সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ কমেছে এমন ২২টি প্রতিষ্ঠান হলো- এবি ব্যাংক ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড, প্রাইম ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড, এআইবিএল ফার্স্ট ইসলামিক মিউচুয়াল ফান্ড, ডিবিএইচ ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড, ফার্স্ট বাংলাদেশ ফিক্সড ইনকাম ফান্ড, আইসিবি এএমসিএল সিএমএসএফ গোল্ডেন জুবিলি মিউচুয়াল ফান্ড, আইসিবি এএমসিএল থার্ড এনআরবি মিউচুয়াল ফান্ড, আইসিবি এএমসিএল ফার্স্ট অগ্রণী ব্যাংক মিউচুয়াল ফান্ড, আইসিবি এএমসিএল সেকেন্ড মিউচুয়াল ফান্ড, আইসিবি এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ট এমএফ ১: স্কিম ১, আইসিবি এএমসিএল সোনালী ব্যাংক লিমিটেড ফার্ট মিউচুয়াল ফান্ড, আইএফআইএল ইসলামিক মিউচুয়াল ফান্ড-১, এমবিএল ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড, এনসিসিবিএল মিউচুয়াল ফান্ড-১, ফিনিক্স ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড, প্রাইম ব্যাংক ফার্স্ট আইসিবি এএমসিএল মিউচুয়াল ফান্ড, রিলায়েন্স ওয়ান রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স মিউচুয়াল ফান্ডের ফার্স্ট স্কিম, এসইএমএল এফবিএলএসএল গ্রোথ ফান্ড, আইবিবিএল শরিয়াহ ফান্ড, এসইএমএল লেকচার ইক্যুইটি ম্যানেজমেন্ট ফান্ড, ভ্যানগার্ড এএমএল বিডি ফাইন্যান্স মিউচুয়াল ফান্ড ওয়ান, ভ্যানগার্ড এএমএল রূপালী ব্যাংক ব্যালেন্সড ফান্ড।

রিলায়েন্স ওয়ান রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স মিউচুয়াল ফান্ডের ফার্স্ট স্কিম

প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ কমেছে রিলায়েন্স ওয়ান রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স মিউচুয়াল ফান্ডের ফার্স্ট স্কিমের। ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ৪৫.০৭ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ১২.৮২ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৩২.২৫ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ৩৪.৯৩ শতাংশ থেকে ১২.৮২ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৭.৭৫ শতাংশে।

প্রাইম ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড

ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ৪৩.৩৫ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ৫.৯৭ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৩৭.৩৮ শতাংশে। একই সময়ে বিদেশি বিনিয়োগ ০.১২ শতাংশ থেকে ০.০৭ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ০.০৫ শতাংশে। আর সাধারণ বিনিয়োগ ৫৪.৫৩ শতাংশ থেকে ৬.০৪ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬০.৫৭ শতাংশে।

এবি ব্যাংক ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড

ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ১৪.০৭ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ০.৩৭ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ১৩.৭০ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ৭০.৪২ শতাংশ থেকে ০.৩৭ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭০.৭৯ শতাংশে।

এআইবিএল ফার্স্ট ইসলামিক মিউচুয়াল ফান্ড

ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ৫৪.৬১ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ৪.০২ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৫০.৫৯ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ৩৫.৩৯ শতাংশ থেকে ৪.০২ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৯.৪১ শতাংশে।

ডিবিএইচ ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড

ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ৩৪.১৭ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ০.৭২ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৩৩.৪৫ শতাংশে। একই সময়ে বিদেশি বিনিয়োগ ছিল ৫.৪৪ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ৫.৪৪ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ০.০০ শতাংশে। আর সাধারণ বিনিয়োগ ৪৩.৭২ শতাংশ থেকে ৬.১৬ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৯.৮৮ শতাংশে।

ফার্স্ট বাংলাদেশ ফিক্সড ইনকাম ফান্ড

ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ২৯.৫০ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ০.১৮ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ২৯.৩২ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ১৬.৫৩ শতাংশ থেকে ০.১৮ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৬.৭১ শতাংশে।

আইসিবি এএমসিএল সিএমএসএফ গোল্ডেন জুবিলি মিউচুয়াল ফান্ড

ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ২০.৪৬ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ৬.৬৩ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ১৩.৮৩ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ৯.৫৪ শতাংশ থেকে ৬.৬৩ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৬.১৭ শতাংশে।

আইসিবি এএমসিএল থার্ড এনআরবি মিউচুয়াল ফান্ড

ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ৫৪.১০ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ৬.২৮ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৪৭.৮২ শতাংশে। একই সময়ে বিদেশি বিনিয়োগ ছিল ৬.৮২ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ২.৮৭ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৩.৯৫ শতাংশে। আর সাধারণ বিনিয়োগ ২৯.০৫ শতাংশ থেকে ৯.১৫ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৮.২০ শতাংশে।

আইসিবি এএমসিএল ফার্স্ট অগ্রণী ব্যাংক মিউচুয়াল ফান্ড

ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ৪০.৮২ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ৩.২১ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৩৭.৬১ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ৮.২৪ শতাংশ থেকে ৩.২১ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১.৪৫ শতাংশে।

আইসিবি এএমসিএল সেকেন্ড মিউচুয়াল ফান্ড

ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ৫৭.৮৪ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ১.৮১ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৫৬.০৩ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ৪২.১৫ শতাংশ থেকে ১.৮১ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৩.৯৬ শতাংশে।

আইসিবি এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ট এমএফ ১: স্কিম ১

ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ৫০.১১ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ৩.৪০ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৪৬.৭১ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ৩৯.৮৮ শতাংশ থেকে ৩.৪০ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৩.২৮ শতাংশে।

আইসিবি এএমসিএল সোনালী ব্যাংক লিমিটেড ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড

ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ৬৭.৯৩ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ৬.৩০ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৬১.৬৩ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ৭.০৭ শতাংশ থেকে ৬.৩০ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩.৩৭ শতাংশে।

আইএফআইএল ইসলামিক মিউচুয়াল ফান্ড-১

ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ৬৫.৫৩ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ১০.৬০ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৫৪.৯৩ শতাংশে। একই সময়ে বিদেশি বিনিয়োগ ছিল ৭.৬৩ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ৭.৬২ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ০.০১ শতাংশে। আর সাধারণ বিনিয়োগ ২৫.৮৪ শতাংশ থেকে ১৮.২২ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৪.০৬ শতাংশে।

এমবিএল ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড

ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ৫০.৮৫ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ১.৪২ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৪৯.৪৩ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ৩৯.১৫ শতাংশ থেকে ১.৪২ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪০.৫৭ শতাংশে।

এনসিসিবিএল মিউচুয়াল ফান্ড-১

ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ৭০.২২ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ৩.৩৪ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৬৬.৮৮ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ১৪.৭৮ শতাংশ থেকে ৩.৩৪ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৮.১২ শতাংশে।

ফিনিক্স ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড

ডিসেম্বর মাসে কোম্পানিটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ১৬.৩৩ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ০.৫৩ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ১৫.৮০ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ৫০.৩৩ শতাংশ থেকে ০.৫৩ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫১.৩৭ শতাংশে।

প্রাইম ব্যাংক ফার্স্ট আইসিবি এএমসিএল মিউচুয়াল ফান্ড

ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ৬১.২৮ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ১০.১৮ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৫১.১০ শতাংশে। একই সময়ে বিদেশি বিনিয়োগ ছিল ১.৯৫ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ১.৮৫ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ০.১০ শতাংশে। আর সাধারণ বিনিয়োগ ১৬.৭৭ শতাংশ থেকে ১২.০৩ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৮.৮০ শতাংশে।

এসইএমএল এফবিএলএসএল গ্রোথ ফান্ড

ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ১৮.৩৪ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ১.৫৬ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ১৬.৭৮ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ৬৭.২৭ শতাংশ থেকে ১.৫৬ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬৮.৮৩ শতাংশে।

এসইএমএল আইবিবিএল শরিয়াহ ফান্ড

ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ২৮.০৯ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ৩.৪৭ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ২৪.৬২ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ২১.৯১ শতাংশ থেকে ৩.৪৭ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৫.৩৮ শতাংশে।

এসইএমএল লেকচার ইক্যুইটি ম্যানেজমেন্ট ফান্ড

ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ১৩.৪৮ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ২.৭২ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ১০.৭৬ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ৭৬.৫২ শতাংশ থেকে ২.৭২ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৯.২৪ শতাংশে।

ভ্যানগার্ড এএমএল বিডি ফাইন্যান্স মিউচুয়াল ফান্ড ওয়ান

ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ৮০.২৯ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ১.১৪ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৭৯.১৫ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ১৭.৭৯ শতাংশ থেকে ১.১৪ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৮.৯৩ শতাংশে।

ভ্যানগার্ড এএমএল রূপালী ব্যাংক ব্যালেন্সড ফান্ড

ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠানটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ ছিল ৬৪.৫০ শতাংশ, যা জানুয়ারি মাসে ০.৬০ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৬৩.৯০ শতাংশে। একই সময়ে সাধারণ বিনিয়োগ ১০.৩০ শতাংশ থেকে ০.৬০ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০.৯০ শতাংশে।

img