চলতি সপ্তাহে আসছে ৮ প্রতিষ্ঠানের ডিভিডেন্ড-ইপিএস

প্রকাশিত :  ০৯:৪০, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ০৯:৫১, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

চলতি সপ্তাহে আসছে ৮ প্রতিষ্ঠানের ডিভিডেন্ড-ইপিএস

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ৮ প্রতিষ্ঠানের ডিভিডেন্ড-ইপিএস আসছে চলতি সপ্তাহে। প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে- সোনালী আঁশ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইলস, রিল্যায়েন্স ইন্স্যুরেন্স, কেঅ্যান্ডকিউ (বাংলাদেশ), গ্রিন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড, এনসিসিবিএল মিউচুয়াল ফান্ড-ওয়ান, আইসিবি এমসিএল সিএমএসএফ গোল্ডেন জুবিলি মিউচুয়াল ফান্ড, ভ্যানগার্ড এএমএল রূপালী ব্যাংক ব্যালান্সড ফান্ড। স্টক এক্সচেঞ্জ সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

এনসিসিবিএল মিউচুয়াল ফান্ড-ওয়ানের বোর্ড সভা বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বেলা আড়াইটায় অনুষ্ঠিত হবে। একই দিন বেলা ৩টায় অনুষ্ঠিত হবে গোল্ডেন জুবিলি মিউচুয়াল ফান্ডের সভাও। ভ্যানগার্ড এএমএল রূপালী ব্যাংক ব্যালেন্সড ফান্ডের বোর্ড সভা আগামীকাল বেলা সাড়ে ৩টায় অনুষ্ঠিত হবে। সভায় প্রতিষ্ঠান ৩টি ৩১ ডিসেম্বর, ২০২৩ অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে ইউনিট হোল্ডারদের জন্য ডিভিডেন্ড ঘোষণা করবে।

অপরদিকে, আগামীকাল সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সোনালী আঁশ ইন্ডাস্ট্রিজ, সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইলস, রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স, কেঅ্যান্ডকিউ ও গ্রিন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্সের বোর্ড সভা অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে রিল্যায়েন্স ইন্স্যুরেন্স ও গ্রিন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্সের বোর্ড সভা যথাক্রমে বেলা আড়াইটায় ও বেলা পৌনে ৩টায় অনুষ্ঠিত হবে। বিকাল সাড়ে ৪টায় সোনালী আঁশ ইন্ডাস্ট্রিজ, সন্ধ্যা ৬টায় সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইলস ও বেলা আড়াইটায় কে অ্যান্ড কিউর বোর্ড সভা অনুষ্ঠিত হবে।

কোম্পানিগুলোর মধ্যে রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স ও গ্রিন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স ৩১ ডিসেম্বর, ২০২৩ অর্থবছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে শেয়ার হোল্ডারদের জন্য ডিভিডেন্ড ঘোষণা করবে।

অপরদিকে, সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইলস, রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স, কেঅ্যান্ডকিউ ৩১ ডিসেম্বর, ২০২৩ সময়ের দ্বিতীয় প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করবে।

Leave Your Comments


ফেব্রুয়ারিতে এলো ৮ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স

প্রকাশিত :  ১৫:৫৬, ০৩ মার্চ ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ১৬:১৪, ০৩ মার্চ ২০২৪

সদ্যবিদায়ি ফেব্রুয়ারি মাসে ২১৬ কো‌টি ৬০ লাখ মার্কিন ডলার বা ২.১৬ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স এসেছে দেশে; যা চলতি ২০২৩-২৪ অর্থবছরের ৮ মাসের (জুলাই-ফেব্রুয়ারি) মধ্যে সর্বোচ্চ।

রোবার বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, বৈধ চ্যানেলে ২১৬ কোটি ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। এর আগের মাস জানুয়ারি মাসে ২১০ কোটি ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছিলেন প্রবাসীরা।

বৈধ চ্যানেলে চলতি বছরের প্রথম আট মাসে বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত ১৩ দশমিক ২৬ বিলিয়ন ডলার রেমিট্যান্স পেয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র মো: মেজবাউল হক বলেন, সরকার ও ব্যাংকগুলো প্রণোদনা দেয়ায় বৈধ চ্যানেলে রেমিট্যান্স প্রবাহ বেড়েছে।

তিনি বলেন, ব্যাংকগুলোকে তাদের আর্থিক উৎস থেকে অতিরিক্ত প্রণোদনা দেয়ার নির্দেশনা দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক, যা বৈধ চ্যানেলে রেমিট্যান্স প্রবাহ বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখে।

প্রবাসী আয়ের ওপর সরকারের আড়াই শতাংশ প্রণোদনা দিয়ে ব্যাংকগুলো অতিরিক্ত আড়াই শতাংশ বেশি দামে ডলার কিনতে পারছে। মোট প্রণোদনা পাচ্ছে ৫ শতাংশ। ফলে বৈধ চ্যানেলে দেশে রেমিট্যান্স আসছে।

বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সাউথ এশিয়ান নেটওয়ার্ক অন ইকোনমিক মডেলিংয়ের (সানেম) নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপক ড. সেলিম রায়হান বলেন, রেমিট্যান্সের ওপর ৫ শতাংশ প্রণোদনা সাময়িকভাবে রেমিট্যান্স বাড়াতে সহায়তা করবে। কিন্তু দীর্ঘমেয়াদি কোনো সমাধান হবে না।

ড. রায়হান বলেন, ‘রেমিট্যান্স বাড়াতে হলে হুন্ডি বন্ধ করতে হবে। হুন্ডি বন্ধ করতে হলে মানি লন্ডারিং বন্ধ করতে হবে। এখন প্রচুর টাকা বিদেশে পাচার হচ্ছে। যেকোনো উপায়ে এটাকে নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।’ সূত্র : ইউএনবি

img