img

আপাতত কোনো কোম্পানিই জেড ক্যাটাগরিতে যাচ্ছে না

প্রকাশিত :  ০৯:৪১, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

আপাতত কোনো কোম্পানিই জেড ক্যাটাগরিতে যাচ্ছে না

শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) সর্বশেষ নির্দেশনা অনুযায়ি পরবর্তী ডিভিডেন্ড ঘোষণা না দেওয়ার পর্যন্ত কোনো কোম্পানির শ্রেণি পরিবর্তন হবে না। তাই পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোনো কোম্পানিই আপাতত ‘জেড’ক্যাটাগরিতে যাচ্ছে না। 

বিএসইসির সর্বশেষ নির্দেশনায় বলা হয়েছে, নিয়ন্ত্রক সংস্থার অনুমোদন ছাড়া শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত কোনো কোম্পানিকে নিয়মনীতি পরিপালন না করার (নন কমপ্লায়েন্স) জন্য জেড শ্রেণিভুক্ত করতে পারবে না কোনো স্টক এক্সচেঞ্জ। এই ধরনের পরিস্থিতিতে কোনো কোম্পানির শ্রেণি পরিবর্তন করতে হলে আগে নিয়ন্ত্রক সংস্থার অনুমোদন নিতে হবে।

নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি বলেছে, শেয়ারবাজারের তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর মধ্য থেকে জেড শ্রেণিভুক্ত করার যে বিধান করা হয়েছে, তা সামনের ডিভিডেন্ড ঘোষণার পর থেকে কার্যকর হবে। এর ফলে আপাতত কোনো কোম্পানি জেড শ্রেণিভুক্ত হবে না। সাধারণত শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলো জুন ও ডিসেম্বর শেষে ডিভিডেন্ড ঘোষণা করে থাকে। যেসব কোম্পানির আর্থিক বছর জুলাই-জুনভিত্তিক, তারা ডিভিডেন্ড ঘোষণা করে অক্টোবরের মধ্যে। আর যেসব কোম্পানির আর্থিক বছর ডিসেম্বরে শেষ হয়, সেগুলো ডিভিডেন্ড ঘোষণা করে এপ্রিলের মধ্যে। আর্থিক বছর শেষ হওয়ার চার মাসের মধ্যে ডিভিডেন্ড ঘোষণার বিধান রয়েছে।

কয়েক দিন ধরে শেয়ারবাজারে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে গুজব ছিল, অর্ধশতাধিক কোম্পানি জেড শ্রেণিভুক্ত হতে যাচ্ছে। এই গুজবকে ঘিরে শেয়ারবাজারে কয়েক দিন দরপতনও ঘটেছে। এমন পরিস্থিতিতে নিয়ন্ত্রক সংস্থা নতুন নির্দেশনা দিয়ে বিষয়টি স্পষ্ট করেছে। এরফলে বাজার আবারও আপট্রেন্ডে পরিচালিত হবে- বিনিয়োগকারীরা এমনটাই আশা করছেন।

img

দেশের ইতিহাসে সোনার সর্বোচ্চ দাম

প্রকাশিত :  ১২:১৭, ০৮ এপ্রিল ২০২৪

ঈদুল ফিতরের আগে আবারো বাড়ানো হয়েছে স্বর্ণের দাম। একদিনের ব্যবধানে ভরিতে ১ হাজার ৭৫০ টাকা বাড়িয়ে ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি সোনার দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ১ লাখ ১৭ হাজার ৫৭৩ টাকা। যা দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ।

সোমবার এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায় বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন (বাজুস)। এ দাম সোমবার থেকেই কার্যকর করা হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

এর আগে গত শনিবার সোনার দাম বাড়ানো হয়। সেদিন ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি সোনার দাম ১ হাজার ৭৫০ টাকা বাড়িয়ে ১ লাখ ১৫ হাজার ৮২৪ টাকা করা হয়।

স্থানীয় বাজারে তেজাবী সোনার (পাকা সোনা) দাম বাড়ার পরিপ্রেক্ষিতে নতুন এ দাম নির্ধারণ করা হয়েছে। 

এর আগে গত ৬ এপ্রিল ঘোষণা দিয়ে ৭ এপ্রিল থেকে ভালো মানের এক ভরি সোনার দাম ১ লাখ ১৫ হাজার ৮২৪ টাকা নির্ধারণ করা হয়। এতে অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে সোনার সর্বোচ্চ দামের নতুন রেকর্ড সৃষ্টি হয়। একদিনের ব্যবধানে এখন দাম বাড়ানোর মাধ্যমে আবার নতুন রেকর্ড সৃষ্টি হল।

সোমবার বাজুস স্ট্যান্ডিং কমিটি অন প্রাইসিং অ্যান্ড প্রাইস মনিটরিং কমিটি বৈঠক করে দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। পরে কমিটি চেয়ারম্যান মাসুদুর রহমানের সই করা এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, স্থানীয় বাজারে তেজাবী সোনার দাম বেড়েছে। তাই সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় বাংলাদেশ জুয়েলারি অ্যাসোসিয়েশন সোনার নতুন দাম নির্ধারণ করেছে। যা সোমবার বিকেল ৪টা থেকে কার্যকর হবে।

এছাড়া ১৮ ক্যারেটের এক ভরি সোনার দাম ১ হাজার ৪৫৮ টাকা বাড়িয়ে ৯৬ হাজার ২২৮ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। আর সনাতন পদ্ধতির এক ভরি সোনার দাম ১ হাজার ২২৫ টাকা বাড়িয়ে ৮০ হাজার ১৯০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

অবশ্য সোনার গহনা কিনতে ক্রেতাদের এরচেয়ে বেশি অর্থ গুনতে হবে। কারণ বাজুস নির্ধারণ করা দামের ওপর ৫ শতাংশ ভ্যাট যোগ করে সোনার গহনা বিক্রি করা হয়। একই সঙ্গে ভরিপ্রতি মজুরি ধরা হয় নূন্যতম ৩ হাজার ৪৯৯ টাকা। ফলে আগামীকাল মঙ্গলবার থেকে ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি সোনার গহনা কিনতে ভ্যাট ও মজুরিসহ ক্রেতাদের ১ লাখ ২৬ হাজার ৯৫১ টাকা গুনতে হবে।

এর আগে ৭ এপ্রিল সবচেয়ে ভালো মানের বা ২২ ক্যারেটের এক ভরি সোনার দাম ১ হাজার ৭৫০ টাকা বাড়িয়ে নির্ধারণ করা হয় ১ লাখ ১৫ হাজার ৮২৪ টাকা। ২১ ক্যারেটের এক ভরি সোনার দাম ১ হাজার ৬৯২ টাকা বাড়িয়ে ১ লাখ ১০ হাজার ৫৭৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়।

এছাড়া ১৮ ক্যারেটের এক ভরি সোনার দাম ১ হাজার ৪৫৮ টাকা বাড়িয়ে ৯৪ হাজার ৭৭০ টাকা নির্ধারণ করা হয়। আর সনাতন পদ্ধতির এক ভরি সোনার দাম ১ হাজার ১৬৬ টাকা বাড়িয়ে ৭৮ হাজার ৯৬৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়। সোমবার বিকেল ৪টা পর্যন্ত এ দামে সোনা বিক্রি হবে। আর বিকেল ৪টার পর থেকে বিক্রি হবে নতুন দামে।

সোনার দাম বাড়ানো হলেও অপরিবর্তিত রয়েছে রূপার দাম। ২২ ক্যারেটের এক ভরি রূপার দাম ২ হাজার ১০০ টাকা, ২১ ক্যারেটের এক ভরি রূপার দাম ২ হাজার ৬ টাকা, ১৮ ক্যারেটের এক ভরি রূপার দাম ১ হাজার ৭১৫ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতির এক ভরি রূপার দাম ১ হাজার ২৮৩ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।