img

ব্রিটিশ রাজবধূর মেডিকেল নথি চুরির চেষ্টা

প্রকাশিত :  ১৭:৪৮, ২০ মার্চ ২০২৪

ব্রিটিশ রাজবধূর মেডিকেল নথি চুরির চেষ্টা

ব্রিটিশ রাজবধূ কেট মিডলটনের পেটে সার্জারি বা অস্ত্রোপচার করা হয়েছিল যেই হাসপাতালে, সেখান থেকে তাঁর মেডিকেল নথি চুরির চেষ্টা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

৪২ বছর বয়সি প্রিন্সেস অব ওয়েলস কেট জানুয়ারিতে লন্ডন ক্লিনিকে চিকিৎসা নেন। কেট মিডলটনের পেটে সার্জারি বা অস্ত্রোপচার করা হয়েছিল সেই হাসপাতালে, সেখান থেকে তার মেডিকেল নথি চুরির চেষ্টা হয়েছে। সেখানকার এক কর্মীর বিরুদ্ধে রেকর্ড হাতিয়ে নেওয়ার এ অভিযোগ উঠেছে।

গত ডিসেম্বরে লোকচক্ষুর আড়ালে চলে যান কেট মিডলটন। তার হঠাৎ অনুপস্থিতি নিয়ে নানা গুজবেরও সৃষ্টি হয়। কেনসিংটন প্যালেসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, গত জানুয়ারিতে পেটে অস্ত্রোপচারের পর বাড়িতেই সুস্থ হয়ে উঠছেন তিনি। 

যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম দ্য মিররের প্রতিবেদন অনুসারে, গত জানুয়ারিতে চিকিৎসাধীন থাকাকালীন লন্ডন ক্লিনিকে এক কর্মী কেটের মেডিকেল রেকর্ড হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। 

তথ্য কমিশনার কার্যালয়ের এক মুখপাত্র গতকাল মঙ্গলবার বলেন, ‘আমরা নিরাপত্তা লঙ্ঘনের অভিযোগ পেয়েছি এবং প্রদত্ত তথ্যগুলো পর্যবেক্ষণ করছি।’

সম্প্রতি কয়েক দিন ধরে একটি কারসাজি করা ছবিকে ঘিরে বিতর্কের মুখে রয়েছেন কেট মিডলটন। মা দিবস উপলক্ষে সন্তানসহ তার একটি ছবি প্রকাশ করে কয়েকটি বার্তা সংস্থা। কিন্তু ছবি সম্পাদনার অভিযোগে রয়টার্স, বিবিসি, এএফপি, গেটি ইমেজেস এই ছবি সরিয়ে ফেলে। অস্ত্রোপচারের পর এটিই ছিল প্রিন্সেসের প্রথম আনুষ্ঠানিক ছবি। 

পরবর্তীতে ডিজিটালি এডিটেড ছবি প্রকাশের জন্য ক্ষমা চান প্রিন্সেস।

 

যুক্তরাজ্য এর আরও খবর

ইংলিশ চ্যানেলে নৌকা ডুবে শিশুসহ নিহত ৫ | JANOMOT | জনমত

img

ব্রিটেনের সাধারণ নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করলেন ঋষি সুনাক

প্রকাশিত :  ১৯:০০, ২২ মে ২০২৪

ব্রিটেনের সাধারণ নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক। আগামী ৪ জুলাই অনুষ্ঠিত হবে ব্রিটেনের সাধারণ নির্বাচন। গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ঋষি সুনাক নিজেই। খবর বিবিসি।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর গত পাঁচ বছর ব্রিটেনকে সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং সময়ের মধ্য দিয়ে পার করতে হয়েছে উল্লেখ করে সুনাক বলেন, তিনি সেই চ্যালেঞ্জগুলোর বিরুদ্ধে লড়াই করেছেন এবং এটি তাকে ব্রিটিশ হিসেবে গর্বিত করেছে।

এসব চ্যালেঞ্জের কারণ হিসেবে তিনি কোভিড-১৯ এবং রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধকে দায়ী করে বলেন, ইউক্রেনের যুদ্ধ বিশ্ব নিরাপত্তাকে হুমকির মুখে ফেলেছে। 

যুক্তরাজ্যের অর্থনীতি এখনও ঘুরে দাঁড়াচ্ছে এবং মুদ্রাস্ফীতি স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে এসেছে উল্লেখ করে সুনাক বলেন, তিনি ক্ষমতায় থাকাকালীন সবকিছু ঠিকঠাক ছিল বলে দাবি করতে পারেন না এবং তা করবেনও না। তবে, তিনি যা অর্জন করেছেন, তা নিয়ে তিনি গর্বিত।

প্রধানমন্ত্রী সুনাক বলেন, আসন্ন নির্বাচনে আবারও নির্বাচিত হলে তিনি প্রমাণ করবেন, তার নেতৃত্বে রক্ষণশীল সরকার যুক্তরাজ্যের অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতাকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলবে না। তবে তিনি স্বীকার করেছেন, বর্তমান পরিস্থিতি অনেক লোকের পক্ষে মোকাবিলা করা সহজ নয়।