img

নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্ল্যান্টে চাকরি, পদসংখ্যা ৫৩

প্রকাশিত :  ১০:৩৮, ০৩ এপ্রিল ২০২৪

নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্ল্যান্টে চাকরি, পদসংখ্যা ৫৩

জনবল নেবে নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্ল্যান্ট কোম্পানি বাংলাদেশ লিমিটেড (এনপিসিবিএল)। এ প্রতিষ্ঠানে ১০ ক্যাটাগরির পদে ৮ম, ১০ম ও ১৬তম গ্রেডে ৫৩ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহী প্রার্থীদের অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

১. পদের নাম: এক্সিকিউটিভ ট্রেইনি (ইলেকট্রিক্যাল)

পদসংখ্যা: ৭

যোগ্যতা: সরকার ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন কর্তৃক অনুমোদিত যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি থাকতে হবে। সব পাবলিক পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ/সিজিপিএ ৫.০০-এর মধ্যে ৪.০০ অথবা ৪.০০-এর মধ্যে ৩.০০ থাকতে হবে। বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় যোগাযোগে সাবলীল হতে হবে। কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশন বিশেষভাবে মাইক্রোসফট ওয়ার্ড, এক্সেল, পাওয়ার পয়েন্ট ও ইউনিকোড টাইপিংয়ে দক্ষ হতে হবে।

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর। তবে বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের জন্য বয়স ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য।

কর্মস্থল: বাংলাদেশের যেকোনো পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বা এনপিসিবিএল নির্ধারিত যেকোনো স্থানে।

বেতন: প্রথম দুই বছর প্রবেশনকালে মাসিক বেতন ৩৫,৬০০ টাকা (আলোচনা সাপেক্ষে)। এ ছাড়া উৎসব ভাতাও দেওয়া হবে।

সুযোগ-সুবিধা: প্রবেশনকাল শেষে এনপিসিবিএলের নিয়মিত চাকরিতে নিয়োগের (অ্যাসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার) পর অষ্টম গ্রেডে মূল বেতন ৬২,৪০০ টাকা ও পারিবারিক আবাসনসুবিধা (অথবা পারিবারিক আবাসনসুবিধা না দিতে পারলে মূল বেতনের ৪০ থেকে ৬০ শতাংশ হারে বাড়িভাড়া ভাতা) এবং প্রযোজ্যতা অনুসারে মূল বেতনের ৪০ শতাংশ হারে প্রকল্প ভাতা/বিদ্যুৎকেন্দ্র ভাতা, ছুটি নগদায়ন, যৌথ বিমা, কনট্রিবিউটরি প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটিসহ অন্যান্য প্রান্তিক সুবিধা এনপিসিবিএলের বিধিমালা ও নীতিমালা অনুসারে প্রদান করা হবে।

২. পদের নাম: এক্সিকিউটিভ ট্রেইনি (ইলেকট্রনিকস)

পদসংখ্যা: ১১

যোগ্যতা: সরকার ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন কর্তৃক অনুমোদিত যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি অথবা অ্যাপ্লাইড ফিজিকস অ্যান্ড ইলেকট্রনিকস বিষয়ে চার বছর মেয়াদি বিএসসি/এমএসসি ডিগ্রি থাকতে হবে। সব পাবলিক পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ/সিজিপিএ ৫.০০-এর মধ্যে ৪.০০ অথবা ৪.০০-এর মধ্যে ৩.০০ থাকতে হবে। বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় যোগাযোগে সাবলীল হতে হবে। কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশন বিশেষভাবে মাইক্রোসফট ওয়ার্ড, এক্সেল, পাওয়ার পয়েন্ট ও ইউনিকোড টাইপিংয়ে দক্ষ হতে হবে।

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর। তবে বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের জন্য বয়স ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য।

কর্মস্থল: বাংলাদেশের যেকোনো পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বা এনপিসিবিএল নির্ধারিত যেকোনো স্থানে।

বেতন: প্রথম দুই বছর প্রবেশনকালে মাসিক বেতন ৩৫,৬০০ টাকা (আলোচনা সাপেক্ষে)। এ ছাড়া উৎসব ভাতাও দেওয়া হবে।

সুযোগ-সুবিধা: প্রবেশনকাল শেষে এনপিসিবিএলের নিয়মিত চাকরিতে নিয়োগের (অ্যাসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার) পর অষ্টম গ্রেডে মূল বেতন ৬২,৪০০ টাকা ও পারিবারিক আবাসনসুবিধা (অথবা পারিবারিক আবাসনসুবিধা না দিতে পারলে মূল বেতনের ৪০ থেকে ৬০ শতাংশ হারে বাড়িভাড়া ভাতা) এবং প্রযোজ্যতা অনুসারে মূল বেতনের ৪০ শতাংশ হারে প্রকল্প ভাতা/বিদ্যুৎকেন্দ্র ভাতা, ছুটি নগদায়ন, যৌথ বিমা, কনট্রিবিউটরি প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটিসহ অন্যান্য প্রান্তিক সুবিধা এনপিসিবিএলের বিধিমালা ও নীতিমালা অনুসারে প্রদান করা হবে।

৩. পদের নাম: এক্সিকিউটিভ ট্রেইনি (কেমিস্ট্রি)

পদসংখ্যা: ৮

যোগ্যতা: সরকার ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন কর্তৃক অনুমোদিত যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রসায়ন বিষয়ে চার বছর মেয়াদি বিএসসি/এমএসসি ডিগ্রি থাকতে হবে। সব পাবলিক পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ/সিজিপিএ ৫.০০-এর মধ্যে ৪.০০ অথবা ৪.০০-এর মধ্যে ৩.০০ থাকতে হবে। বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় যোগাযোগে সাবলীল হতে হবে। কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশন বিশেষভাবে মাইক্রোসফট ওয়ার্ড, এক্সেল, পাওয়ার পয়েন্ট ও ইউনিকোড টাইপিংয়ে দক্ষ হতে হবে।

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর। তবে বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের জন্য বয়স ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য।

কর্মস্থল: বাংলাদেশের যেকোনো পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বা এনপিসিবিএল নির্ধারিত যেকোনো স্থানে।

বেতন: প্রথম দুই বছর প্রবেশনকালে মাসিক বেতন ৩৫,৬০০ টাকা (আলোচনা সাপেক্ষে)। এ ছাড়া উৎসব ভাতাও দেওয়া হবে।

সুযোগ-সুবিধা: প্রবেশনকাল শেষে এনপিসিবিএলের নিয়মিত চাকরিতে নিয়োগের (অ্যাসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার) পর অষ্টম গ্রেডে মূল বেতন ৬২,৪০০ টাকা ও পারিবারিক আবাসনসুবিধা (অথবা পারিবারিক আবাসনসুবিধা না দিতে পারলে মূল বেতনের ৪০ থেকে ৬০ শতাংশ হারে বাড়িভাড়া ভাতা) এবং প্রযোজ্যতা অনুসারে মূল বেতনের ৪০ শতাংশ হারে প্রকল্প ভাতা/বিদ্যুৎকেন্দ্র ভাতা, ছুটি নগদায়ন, যৌথ বিমা, কনট্রিবিউটরি প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটিসহ অন্যান্য প্রান্তিক সুবিধা এনপিসিবিএলের বিধিমালা ও নীতিমালা অনুসারে প্রদান করা হবে।

৪. পদের নাম: মেডিকেল অফিসার

পদসংখ্যা: ২

যোগ্যতা: স্বীকৃত মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস ডিগ্রি থাকতে হবে। বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিলের নিবন্ধন থাকতে হবে। সব পাবলিক পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ/সিজিপিএ ৫.০০-এর মধ্যে ৪.০০ অথবা ৪.০০-এর মধ্যে ৩.০০ থাকতে হবে। বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় যোগাযোগে সাবলীল হতে হবে। কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশন বিশেষভাবে মাইক্রোসফট ওয়ার্ড, এক্সেল, পাওয়ার পয়েন্ট ও ইউনিকোড টাইপিংয়ে দক্ষ হতে হবে।

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর। তবে বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের জন্য বয়স ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য।

কর্মস্থল: বাংলাদেশের যেকোনো পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বা এনপিসিবিএল নির্ধারিত যেকোনো স্থানে।

বেতন: প্রথম দুই বছর প্রবেশনকালে মাসিক বেতন ৩৫,৬০০ টাকা (আলোচনা সাপেক্ষে)। এ ছাড়া উৎসব ভাতাও দেওয়া হবে।

সুযোগ-সুবিধা: প্রবেশনকাল শেষে এনপিসিবিএলের নিয়মিত চাকরিতে নিয়োগের (মেডিকেল অফিসার) পর অষ্টম গ্রেডে মূল বেতন ৬২,৪০০ টাকা ও পারিবারিক আবাসনসুবিধা (অথবা পারিবারিক আবাসনসুবিধা না দিতে পারলে মূল বেতনের ৪০-৬০ শতাংশ হারে বাড়িভাড়া ভাতা) এবং প্রযোজ্যতা অনুসারে মূল বেতনের ৪০ শতাংশ হারে প্রকল্প ভাতা/বিদ্যুৎকেন্দ্র ভাতা, ছুটি নগদায়ন, যৌথ বিমা, কনট্রিবিউটরি প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটিসহ অন্যান্য প্রান্তিক সুবিধা এনপিসিবিএলের বিধিমালা ও নীতিমালা অনুসারে প্রদান করা হবে।


৫. পদের নাম: জুনিয়র এক্সিকিউটিভ ট্রেইনি (ইলেকট্রনিকস)

পদসংখ্যা: ৩

যোগ্যতা: সরকার অনুমোদিত যেকোনো প্রতিষ্ঠান থেকে ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং ইন ইলেকট্রনিকস টেকনোলজিতে ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং থাকতে হবে। সব পাবলিক পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ/সিজিপিএ ৫.০০-এর মধ্যে ৪.০০ অথবা ৪.০০-এর মধ্যে ৩.০০ থাকতে হবে। বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় যোগাযোগে সাবলীল হতে হবে। কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশন বিশেষভাবে মাইক্রোসফট ওয়ার্ড, এক্সেল, পাওয়ার পয়েন্ট ও ইউনিকোড টাইপিংয়ে দক্ষ হতে হবে।

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর। তবে বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের জন্য বয়স ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য।

কর্মস্থল: বাংলাদেশের যেকোনো পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বা এনপিসিবিএল নির্ধারিত যেকোনো স্থানে।

বেতন: প্রথম দুই বছর প্রবেশনকালে মাসিক বেতন ২৭,১০০ টাকা (আলোচনা সাপেক্ষে)। এ ছাড়া উৎসব ভাতাও দেওয়া হবে।

সুযোগ-সুবিধা: প্রবেশনকাল শেষে এনপিসিবিএলের নিয়মিত চাকরিতে নিয়োগের (সাব-অ্যাসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার/সাব-অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার) পর দশম গ্রেডে মূল বেতন ৪৮,০০০ টাকা ও পারিবারিক আবাসনসুবিধা (অথবা পারিবারিক আবাসনসুবিধা না দিতে পারলে মূল বেতনের ৪০ থেকে ৬০ শতাংশ হারে বাড়িভাড়া ভাতা) এবং প্রযোজ্যতা অনুসারে মূল বেতনের ৪০ শতাংশ হারে প্রকল্প ভাতা/বিদ্যুৎকেন্দ্র ভাতা, ছুটি নগদায়ন, যৌথ বিমা, কনট্রিবিউটরি প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটিসহ অন্যান্য প্রান্তিক সুবিধা এনপিসিবিএলের বিধিমালা ও নীতিমালা অনুসারে প্রদান করা হবে।

৬. পদের নাম: জুনিয়র এক্সিকিউটিভ ট্রেইনি (এনভায়রনমেন্ট অ্যান্ড সোশ্যাল ইউনিট)

পদসংখ্যা: ৩

যোগ্যতা: সরকার অনুমোদিত যেকোনো প্রতিষ্ঠান থেকে এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্সে বিএসসি ডিগ্রি থাকতে হবে। সব পাবলিক পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ/সিজিপিএ ৫.০০-এর মধ্যে ৪.০০ অথবা ৪.০০-এর মধ্যে ৩.০০ থাকতে হবে। বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় যোগাযোগে সাবলীল হতে হবে। কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশন বিশেষভাবে মাইক্রোসফট ওয়ার্ড, এক্সেল, পাওয়ার পয়েন্ট ও ইউনিকোড টাইপিংয়ে দক্ষ হতে হবে।

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর। তবে বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের জন্য বয়স ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য।

কর্মস্থল: বাংলাদেশের যেকোনো পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বা এনপিসিবিএল নির্ধারিত যেকোনো স্থানে।

বেতন: প্রথম দুই বছর প্রবেশনকালে মাসিক বেতন ২৭,১০০ টাকা (আলোচনা সাপেক্ষে)। এ ছাড়া উৎসব ভাতাও দেওয়া হবে।

সুযোগ-সুবিধা: প্রবেশনকাল শেষে এনপিসিবিএলের নিয়মিত চাকরিতে নিয়োগের (সাব-অ্যাসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার/সাব-অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার) পর দশম গ্রেডে মূল বেতন ৪৮,০০০ টাকা ও পারিবারিক আবাসনসুবিধা (অথবা পারিবারিক আবাসনসুবিধা না দিতে পারলে মূল বেতনের ৪০ থেকে ৬০ শতাংশ হারে বাড়িভাড়া ভাতা) এবং প্রযোজ্যতা অনুসারে মূল বেতনের ৪০ শতাংশ হারে প্রকল্প ভাতা/বিদ্যুৎকেন্দ্র ভাতা, ছুটি নগদায়ন, যৌথ বিমা, কনট্রিবিউটরি প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটিসহ অন্যান্য প্রান্তিক সুবিধা এনপিসিবিএলের বিধিমালা ও নীতিমালা অনুসারে প্রদান করা হবে।

৭. পদের নাম: জুনিয়র টেকনিশিয়ান (ইলেকট্রনিকস)

পদসংখ্যা: ৩

যোগ্যতা: সরকার অনুমোদিত যেকোনো প্রতিষ্ঠান থেকে এইচএসসি (ভোকেশনাল) [ইলেকট্রনিক কন্ট্রোল অ্যান্ড কমিউনিকেশন/ইলেকট্রনিক টেকনোলজি] বা সমমানের বিজ্ঞান শিক্ষা থাকতে হবে। যেকোনো পাবলিক পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ/সিজিপিএ ৫.০০-এর মধ্যে ৪.০০ অথবা ৪.০০-এর মধ্যে ৩.০০ থাকতে হবে। বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় যোগাযোগে সাবলীল হতে হবে।

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর। তবে বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের জন্য বয়স ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য।

কর্মস্থল: বাংলাদেশের যেকোনো পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বা এনপিসিবিএল নির্ধারিত যেকোনো স্থানে।

বেতন: প্রথম দুই বছর প্রবেশনকালে মাসিক বেতন ১৭,০৪৫ টাকা। এ ছাড়া উৎসব ভাতাও দেওয়া হবে।

সুযোগ-সুবিধা: প্রবেশনকাল শেষে এনপিসিবিএলের নিয়মিত চাকরিতে নিয়োগের পর ১৬তম গ্রেডে মূল বেতন ২১,৬০০ টাকা ও পারিবারিক আবাসনসুবিধা (অথবা পারিবারিক আবাসনসুবিধা না দিতে পারলে মূল বেতনের ৪০ থেকে ৬০ শতাংশ হারে বাড়িভাড়া ভাতা) এবং প্রযোজ্যতা অনুসারে মূল বেতনের ৪০ শতাংশ হারে প্রকল্প ভাতা/বিদ্যুৎকেন্দ্র ভাতা, ছুটি নগদায়ন, যৌথ বিমা, কনট্রিবিউটরি প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটিসহ অন্যান্য প্রান্তিক সুবিধা এনপিসিবিএলের বিধিমালা ও নীতিমালা অনুসারে প্রদান করা হবে।

৮. পদের নাম: জুনিয়র টেকনিশিয়ান (কুলিং অ্যান্ড এয়ার কন্ডিশনিং)

পদসংখ্যা: ৩

যোগ্যতা: সরকার অনুমোদিত যেকোনো প্রতিষ্ঠান থেকে এইচএসসি (ভোকেশনাল) [রেফ্রিজারেশন অ্যান্ড এয়ার কন্ডিশনিং/রেফ্রিজারেশন টেকনোলজি] বা সমমানের প্রযুক্তি শিক্ষা থাকতে হবে। যেকোনো পাবলিক পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ/সিজিপিএ ৫.০০-এর মধ্যে ৪.০০ অথবা ৪.০০-এর মধ্যে ৩.০০ থাকতে হবে। বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় যোগাযোগে সাবলীল হতে হবে।

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর। তবে বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের জন্য বয়স ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য।

কর্মস্থল: বাংলাদেশের যেকোনো পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বা এনপিসিবিএল নির্ধারিত যেকোনো স্থানে।

বেতন: প্রথম দুই বছর প্রবেশনকালে মাসিক বেতন ১৭,০৪৫ টাকা। এ ছাড়া উৎসব ভাতাও দেওয়া হবে।

সুযোগ-সুবিধা: প্রবেশনকাল শেষে এনপিসিবিএলের নিয়মিত চাকরিতে নিয়োগের পর ১৬তম গ্রেডে মূল বেতন ২১,৬০০ টাকা ও পারিবারিক আবাসনসুবিধা (অথবা পারিবারিক আবাসনসুবিধা না দিতে পারলে মূল বেতনের ৪০ থেকে ৬০ শতাংশ হারে বাড়িভাড়া ভাতা) এবং প্রযোজ্যতা অনুসারে মূল বেতনের ৪০ শতাংশ হারে প্রকল্প ভাতা/বিদ্যুৎকেন্দ্র ভাতা, ছুটি নগদায়ন, যৌথ বিমা, কনট্রিবিউটরি প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটিসহ অন্যান্য প্রান্তিক সুবিধা এনপিসিবিএলের বিধিমালা ও নীতিমালা অনুসারে প্রদান করা হবে।

৯. পদের নাম: জুনিয়র ল্যাব টেকনিশিয়ান (ফিজিকস/কেমিস্ট্রি)

পদসংখ্যা: ৩

যোগ্যতা: সরকার অনুমোদিত যেকোনো প্রতিষ্ঠান থেকে এইচএসসি (বিজ্ঞান) বা সমমান পাস বা ফিজিকস/কেমিস্ট্রি/কেমিক্যাল টেকনোলজি বিষয়ে সমমানের বিজ্ঞান শিক্ষা থাকতে হবে। যেকোনো পাবলিক পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ/সিজিপিএ ৫.০০-এর মধ্যে ৪.০০ অথবা ৪.০০-এর মধ্যে ৩.০০ থাকতে হবে। বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় যোগাযোগে সাবলীল হতে হবে।

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর। তবে বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের জন্য বয়স ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য।

কর্মস্থল: বাংলাদেশের যেকোনো পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বা এনপিসিবিএল নির্ধারিত যেকোনো স্থানে।

বেতন: প্রথম দুই বছর প্রবেশনকালে মাসিক বেতন ১৭,০৪৫ টাকা। এ ছাড়া উৎসব ভাতাও দেওয়া হবে।

সুযোগ-সুবিধা: প্রবেশনকাল শেষে এনপিসিবিএলের নিয়মিত চাকরিতে নিয়োগের পর ১৬তম গ্রেডে মূল বেতন ২১,৬০০ টাকা ও পারিবারিক আবাসনসুবিধা (অথবা পারিবারিক আবাসনসুবিধা না দিতে পারলে মূল বেতনের ৪০-৬০ শতাংশ হারে বাড়িভাড়া ভাতা) এবং প্রযোজ্যতা অনুসারে মূল বেতনের ৪০ শতাংশ হারে প্রকল্প ভাতা/বিদ্যুৎকেন্দ্র ভাতা, ছুটি নগদায়ন, যৌথ বিমা, কনট্রিবিউটরি প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটিসহ অন্যান্য প্রান্তিক সুবিধা এনপিসিবিএলের বিধিমালা ও নীতিমালা অনুসারে প্রদান করা হবে।

১০. পদের নাম: রিগার

পদসংখ্যা: ১০

যোগ্যতা: সংশ্লিষ্ট কাজে এক বছরের অভিজ্ঞতাসহ সরকার অনুমোদিত যেকোনো প্রতিষ্ঠান থেকে এইচএসসি বা সমমান পাস হতে হবে। যেকোনো পাবলিক পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ/সিজিপিএ ৫.০০-এর মধ্যে ৪.০০ অথবা ৪.০০-এর মধ্যে ৩.০০ থাকতে হবে। বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় যোগাযোগে সাবলীল হতে হবে।

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর। তবে বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের জন্য বয়স ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য।

কর্মস্থল: বাংলাদেশের যেকোনো পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বা এনপিসিবিএল নির্ধারিত যেকোনো স্থানে।

বেতন: প্রথম দুই বছর প্রবেশনকালে মাসিক বেতন ১৭,০৪৫ টাকা। এ ছাড়া উৎসব ভাতাও দেওয়া হবে।

সুযোগ-সুবিধা: প্রবেশনকাল শেষে এনপিসিবিএলের নিয়মিত চাকরিতে নিয়োগের পর ১৬তম গ্রেডে মূল বেতন ২১,৬০০ টাকা ও পারিবারিক আবাসনসুবিধা (অথবা পারিবারিক আবাসনসুবিধা না দিতে পারলে মূল বেতনের ৪০-৬০ শতাংশ হারে বাড়িভাড়া ভাতা) এবং প্রযোজ্যতা অনুসারে মূল বেতনের ৪০ শতাংশ হারে প্রকল্প ভাতা/বিদ্যুৎকেন্দ্র ভাতা, ছুটি নগদায়ন, যৌথ বিমা, কনট্রিবিউটরি প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটিসহ অন্যান্য প্রান্তিক সুবিধা এনপিসিবিএলের বিধিমালা ও নীতিমালা অনুসারে প্রদান করা হবে।

শর্ত

যোগদানকারীকে যোগদানের সময় এ মর্মে অঙ্গীকারনামা দাখিল করতে হবে যে তিনি এনপিসিবিএলে যোগদানের তারিখ থেকে কমপক্ষে ১০ বছর চাকরি করবেন। যদি এনপিসিবিএলে ১০ বছর চাকরি সমাপ্তির আগে স্বেচ্ছায় এনপিসিবিএল ত্যাগ করেন, তবে তিনি এনপিসিবিএল, সরকার বা অন্য যেকোনো কর্তৃপক্ষ কর্তৃক তাঁর জন্য ব্যয়কৃত সমুদয় অর্থ পরিশোধ করতে বাধ্য থাকবেন।

আবেদন যেভাবে

আগ্রহী প্রার্থীদের এই ওয়েবসাইটে ফরম পূরণের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। নিয়োগসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য এই লিংক ও এই লিংকে  জানা যাবে। 

আবেদন ফি

আবেদন নিশ্চিতকরণের জন্য এই ওয়েবসাইটে উল্লেখিত নির্দেশনা অনুসরণ করে যেকোনো টেলিটক মোবাইল থেকে প্রতিটি পদের জন্য এসএমএসের মাধ্যমে অফেরতযোগ্য ৫০০ টাকা পরিশোধ করতে হবে।

আবেদনের শেষ সময়: ৪ এপ্রিল ২০২৪, রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত।

img

বিদ্যুৎ কোম্পানিতে চাকরি, পদসংখ্যা ১৪

প্রকাশিত :  ১১:০৬, ২৬ মে ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ১১:০৭, ২৬ মে ২০২৪

জনবল রনরব সরকারি বিদ্যুৎ উৎপাদন কোম্পানি রুরাল পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেডে (আরপিসিএল)। এই কোম্পানিতে চার ক্যাটাগরির পদে ১০ম থেকে ১৩তম গ্রেডে ১৪ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহী প্রার্থীদের অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

১. পদের নাম: সাব–অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার

পদসংখ্যা: ১১ (ইলেকট্রিক্যাল ৬টি ও মেকানিক্যাল ৫টি)

যোগ্যতা: স্বীকৃত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ইলেকট্রিক্যাল/মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ডিপ্লোমা থাকতে হবে। শিক্ষাজীবনের কোনো পরীক্ষায় তৃতীয় বিভাগ/শ্রেণি বা সমমানের জিপিএ/সিজিপিএ গ্রহণযোগ্য নয়। গ্রেডিং পদ্ধতিতে পাসের ক্ষেত্রে জিপিএ/সিজিপিএ ৫-এর স্কেলে ৩.০ ও ৪-এর স্কেলে ২.৫০ থাকতে হবে। নেতৃত্বের সক্ষমতা থাকতে হবে। বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় সাবলীল হতে হবে। কম্পিউটার পরিচালনায় দক্ষতা থাকতে হবে।

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর

মূল বেতন: ৪০,০০০ টাকা (গ্রেড-১০)। এ ছাড়া প্রতিষ্ঠানের নীতিমালা অনুযায়ী অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হবে।

২. পদের নাম: অডিটর

পদসংখ্যা: ১

যোগ্যতা: বাণিজ্য বিভাগে স্নাতক ডিগ্রি থাকতে হবে। সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে অন্তত দুই বছর চাকরির অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। গ্রেডিং পদ্ধতিতে পাসের ক্ষেত্রে জিপিএ/সিজিপিএ ৫-এর স্কেলে ২.৫ ও ৪-এর স্কেলে ২.২৫ থাকতে হবে।

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর

মূল বেতন: ২৮,০০০ টাকা (গ্রেড-১২)। এ ছাড়া প্রতিষ্ঠানের নীতিমালা অনুযায়ী অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হবে।

৩. পদের নাম: অ্যাকাউন্ট্যান্ট

পদসংখ্যা: ১

যোগ্যতা: বাণিজ্য বিভাগে স্নাতক ডিগ্রি থাকতে হবে। সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে অন্তত দুই বছর চাকরির অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। গ্রেডিং পদ্ধতিতে পাসের ক্ষেত্রে জিপিএ/সিজিপিএ ৫-এর স্কেলে ২.৫ ও ৪-এর স্কেলে ২.২৫ থাকতে হবে।

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর

মূল বেতন: ২৮,০০০ টাকা (গ্রেড-১২)। এ ছাড়া প্রতিষ্ঠানের নীতিমালা অনুযায়ী অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হবে।

৪. পদের নাম: স্টোর অ্যাসিস্ট্যান্ট

পদসংখ্যা: ১

যোগ্যতা: স্নাতক ডিগ্রি অথবা এইচএসসি পাস। সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে অন্তত পাঁচ বছর চাকরির অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। গ্রেডিং পদ্ধতিতে পাসের ক্ষেত্রে জিপিএ/সিজিপিএ ৫-এর স্কেলে ২.৫ ও ৪-এর স্কেলে ২.২৫ থাকতে হবে।

বয়স: সর্বোচ্চ ৩০ বছর

মূল বেতন: ২৬,০০০ টাকা (গ্রেড-১৩)। এ ছাড়া প্রতিষ্ঠানের নীতিমালা অনুযায়ী অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হবে।

বয়সসীমা

২৮ মে ২০২৪ তারিখে আবেদনকারীর বয়স উল্লিখিত সীমার মধ্যে থাকতে হবে। বীর মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও নাতি-নাতনিদের জন্য সর্বোচ্চ বয়স ৩২ বছর। বিভাগীয় প্রার্থীদের ক্ষেত্রে বয়সসীমা শিথিলযোগ্য।

আবেদন যেভাবে

আগ্রহী প্রার্থীদের এই ওয়েবসাইটে  ফরম পূরণের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। নিয়োগসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য এই লিংকে জানা যাবে।

আবেদন ফি

অনলাইনে ফরম পূরণের অনধিক ৭২ ঘণ্টার মধ্যে আবেদন ফি বাবদ ৫০০ টাকা টেলিটক প্রিপেইড মোবাইল নম্বর থেকে এসএমএসের মাধ্যমে জমা দিতে হবে। আবেদন ফি জমা দেওয়ার বিস্তারিত পদ্ধতি এই ওয়েবসাইটে জানা যাবে।

আবেদনের সময়সীমা: ২৮ মে ২০২৪, রাত ১১টা পর্যন্ত।