img

যৌক্তিক খরচে হজব্রত পালন করতে আমরা তৎপর : ধর্মমন্ত্রী

প্রকাশিত :  ০৭:২৭, ২০ এপ্রিল ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ০৭:২৯, ২০ এপ্রিল ২০২৪

যৌক্তিক খরচে হজব্রত পালন করতে আমরা তৎপর : ধর্মমন্ত্রী
রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে চার দিনব্যাপী হজযাত্রীদের প্রশিক্ষণ কার্যক্রমে বক্তব্য রাখছেন ধর্মমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান।

ধর্মমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান বলেছেন, এদেশের হজযাত্রীরা যাতে একেবারেই যৌক্তিক খরচে হজব্রত পালন করতে পারে সে বিষয়ে আমরা তৎপর রয়েছি। ডলারের দাম বৃদ্ধির পরও গত বছরের তুলনায় এ বছর সাধারণ হজ প্যাকেজের খরচ কমানো হয়েছে। যার পরিমাণ সরকারিভাবে ১ লাখ ৪ হাজার ১৭৮ টাকা এবং বেসরকারিভাবে কমেছে ৮২ হাজার ৮১৮ টাকা। 

শনিবার (২০ এপ্রিল) সকালে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ঢাকাসহ সারাদেশে চার দিনব্যাপী হজযাত্রীদের প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ধর্মমন্ত্রী এসব কথা বলেন। 

তিনি বলেন, হজযাত্রীদের নিবন্ধন থেকে শুরু করে দাপ্তরিক যে প্রক্রিয়াগুলো রয়েছে সেগুলো আরো কীভাবে সহজ করা যায়, হজযাত্রীদের আরেকটু বেশি কমফোর্ট দেওয়া যায়, সে বিষয়েও আমরা কাজ করছি। সরকার হজযাত্রীদের সর্বোত্তম সেবা দিতে বদ্ধপরিকর।

জানা যায়, চার দিনব্যাপী এই প্রশিক্ষণ কার্যক্রমে ঢাকাসহ সারাদেশে ৩০ হাজার হজযাত্রী প্রশিক্ষণ গ্রহণ করবেন। এ বছর সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৪ হাজার ২৮৩ জন এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৭৮ হাজার ৮৯৫ জন হজে যাচ্ছেন। প্রশিক্ষণ কার্যক্রমে বিভিন্ন সেমিনারের মাধ্যমে হজযাত্রীদের কীভাবে তারা হজে যাওয়ার প্রস্তুতি নেবেন, সঙ্গে কি কী নেবেন, সেখানে কীভাবে হজ পালন করবেন, কীভাবে ফিরে আসবেন, বিপদে পড়লে কী করবেন ইত্যাদি বিষয়ে শেখানো হবে।

ধর্মমন্ত্রী ফরিদুল হক খান বলেন, আপনারা সবাই যাতে সহি-শুদ্ধভাবে হজব্রত পালন করতে পারেন সেজন্যই এই প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এখানে আপনাদের প্রশিক্ষণের জন্য অত্যন্ত দক্ষ প্রশিক্ষক নির্বাচন করা হয়েছে। আপনারা যদি প্রশিক্ষণের প্রতি মনযোগী হতে পারেন তাহলে আপনারা হজের নিয়ম-কানুন, হুকুম-আহকাম, ধারাবাহিক আনুষ্ঠানিকতা সবকিছু আয়ত্তে আনতে পারবেন, ইনশাল্লাহ। 

মন্ত্রী বলেন, প্রশিক্ষণটা যত ভালোভাবে গ্রহণ করতে পারবেন, আপনাদের দক্ষতা ততবেশি শানিত হবে, আত্মবিশ্বাস ততটাই বৃদ্ধি পাবে। জীবনের প্রতিটিক্ষেত্রেই সফলতা ও উৎকর্ষতার প্রধান হাতিয়ার হলো প্রশিক্ষণ। কোনো কিছু না বুঝলে প্রশিক্ষক যারা থাকবেন তাদের জিজ্ঞাসা করবেন। যতবেশি প্রশ্ন করতে পারবেন ততবেশি শিখতে ও জানতে পারবেন। নিজেকে সমৃদ্ধ করতে পারবেন। সৌদি আরবে আপনার পরিচয় শুধু একজন হজযাত্রী নয়, আপনার পরিচয়-আপনি একজন বাংলাদেশি। আপনার আচার আচরণ, কথাবার্তা ও চালচলনের মাধ্যমেই বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশের ভাবমূতি প্রকাশ পাবে। সে দেশের আইন-কানুন, নিয়ম-শৃঙ্খলা প্রতিপালনে যাতে কোনোরূপ বিচ্যুতি না ঘটে সেদিকে যত্নবান হতে হবে। আপনার কারণে দেশের ভাবমূর্তি ও সম্মান যেন ক্ষুণ্ন না হয় সেদিকে বিশেষভাবে সতর্ক থাকবেন। কেউ চায় না হজযাত্রী কষ্ট পাক, হজযাত্রা অসুন্দর হোক। সরকারও করে না, সরকারের যারা প্রতিনিধি তারাও করে না, যারা সহযোগী তারাও করে না। যারা এজেন্সির মালিক তারাও করে না।

তিনি আরো বলেন, গত বছর একজন এজেন্সি মালিক হাজীদের টাকা নিয়ে পালিয়ে গেছে। তারপরও একজন হজযাত্রী থেকে যায়নি। সবাই যেতে পেরেছে। ওই এজেন্সি মালিককে ৫০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে, জামানত বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে, লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে। এজন্য এজেন্সি মালিকরা সচেতন হয়েছে। তারপরও তাদের যদি কোনো ত্রুটি বিচ্যুতি হয়, তাহলে আপনারা (হজযাত্রী) অভিযোগ দেবেন। আমরা সেটির শুনানি করে যার যতটুকু শাস্তি পাওয়া দরকার ততটুকু দেবো।

img

এমপি আনার হত্যায় ৮ দিনের রিমান্ডে তিন আসামি

প্রকাশিত :  ১১:৪১, ২৪ মে ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ১৫:৪৪, ২৪ মে ২০২৪

রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে চার দিনব্যাপী হজযাত্রীদের প্রশিক্ষণ কার্যক্রমে বক্তব্য রাখছেন ধর্মমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান।

ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আট দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। 

শুক্রবার (২৪ মে) বিকেলে ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দিলরুবা আফরোজ তিথির আদালত শুনানি শেষে এই রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

গ্রেফতার আসামিরা হলেন আমানুল্লাহ ওরফে শিমুল ভূঁইয়া, শিলাস্তি রহমান ও ফয়সাল আলী ওরফে সাজি।

এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের ওয়ারী জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার মাহফুজুল ইসলাম তিন আসামির ১০ দিন করে রিমান্ড চেয়ে আদালতে তোলেন। 

গত বুধবার (২২ মে) রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানায় এমপি আনারের মেয়ে মুমতারিন ফেরদৌস ডরিন এই মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় তিনি উল্লেখ করেন, মানিক মিয়া এভিনিউয়ের বাসায় আমরা সপরিবারে বসবাস করি। ৯ মে রাত ৮টার দিকে আমার বাবা আনোয়ারুল আজীম আনার গ্রামের বাড়ি ঝিনাইদহ যাওয়ার উদ্দেশে যাত্রা করেন। ১১ মে বিকেল পৌনে ৫টার দিকে বাবার সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বললে বাবার কথাবার্তায় কিছুটা অসংলগ্ন মনে হয়। এরপর বাবার মোবাইল নম্বরে একাধিকবার কল দিলেও বন্ধ পাই।

১৩ মে বাবার ভারতীয় নম্বর থেকে উজির মামার হোয়াটসঅ্যাপে একটি ক্ষুদেবার্তা আসে। এতে লেখা ছিল, ‘আমি হঠাৎ করে দিল্লি যাচ্ছি, আমার সঙ্গে ভিআইপি রয়েছে। আমি অমিত সাহার কাজে নিউটাউন যাচ্ছি। আমাকে ফোন দেয়ার দরকার নাই। আমি পরে ফোন দেবো।’ এছাড়া আরও কয়েকটি বার্তা আসে। ক্ষুদেবার্তাগুলো আমার বাবার মোবাইল ফোন ব্যবহার করে অপহরণকারীরা করে থাকতে পারে।

গত ১২ মে ঝিনাইদহর কালীগঞ্জ থেকে কলকাতায় যাওয়ার পরদিন রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়ে যান তিনবারের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার। বুধবার সকালের দিকে তার খুনের খবর প্রকাশ্যে আসে। পুলিশ বলছে, কলকাতার উপকণ্ঠে নিউটাউনের অভিজাত আবাসন সঞ্জীভা গার্ডেনের একটি ফ্ল্যাটে আনারকে খুন করা হয়। খুনের আলামত মুছে ফেলতে দেহ কেটে টুকরো টুকরো করে ফেলা হয়। এরপর সুটকেস ও পলিথিনে ভরে ফেলে দেওয়া হয় বিভিন্ন জায়গায়।

এদিকে আলোচিত এই হত্যাকাণ্ডের অন্যতম অভিযুক্ত কসাই জিহাদ হাওলাদারকে ১২ দিনের হেফাজতে পেয়েছে কলকাতার গোয়েন্দা পুলিশ। শুক্রবার (২৪ মে) তাকে পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগনার বারাসাতের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের (সিজিএম) এজলাসে তোলা হলে বিচারক শুভঙ্কর এই আদেশ দেন।

জিহাদের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় হত্যার উদ্দেশ্যে অপহরণ, অপরাধমূলক নরহত্যা এবং তথ্য লোপাট, অর্থাৎ অস্ত্র ও মরদেহ পরিকল্পনা করে সরিয়ে ফেলার তিনটি অভিযোগ আনা হয়েছে।