img

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে চাকরি, পদসংখ্যা ২৪

প্রকাশিত :  ১২:০৫, ০২ মে ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ১২:১৪, ০২ মে ২০২৪

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে চাকরি, পদসংখ্যা ২৪

জনবল নিয়োগ দেবে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে। নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্ল্যান্ট কোম্পানি বাংলাদেশ লিমিটেডের (এনপিসিবিএল) অধীনে এই বিদ্যুৎকেন্দ্রে সিকিউরিটি অ্যান্ড ফিজিক্যাল প্রোটেকশন সার্ভিস ডিভিশনে ছয় ক্যাটাগরির পদে ২৪ জন পুরুষ কর্মী নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহী প্রার্থীদের অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

১. পদের নাম: ট্রেইনি ইঞ্জিনিয়ার (সিকিউরিটি অ্যান্ড ফিজিক্যাল প্রোটেকশন)

পদসংখ্যা: ১

যোগ্যতা: সরকার ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন কর্তৃক অনুমোদিত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অ্যাপ্লাইড ফিজিকস অ্যান্ড ইলেকট্রনিকস/ ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং/ ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিক অ্যান্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে স্নাতক (চার বছর)/ স্নাতকোত্তর ডিগ্রি বা বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি থাকতে হবে। প্রতিটি পাবলিক পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ/সিজিপিএ ৫–এর মধ্যে ৪.০০ অথবা ৪–এর মধ্যে ৩.০০ থাকতে হবে; সনাতন ফলাফল পদ্ধতির অধীন প্রতিটি পাবলিক পরীক্ষায় প্রথম বিভাগ থাকতে হবে। কাজের প্রকৃতি বিবেচনায় কেবল পুরুষ প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশনে বিশেষভাবে এমএস ওয়ার্ড, এমএস এক্সেল ও এমএস পাওয়ার পয়েন্ট এবং ইউনিকোড টাইপিংয়ে দক্ষতা থাকতে হবে। মৌখিক ও লিখিত উভয় ক্ষেত্রে বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় যোগাযোগে সাবলীল হতে হবে। ন্যূনতম উচ্চতা ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি, ন্যূনতম বুকের মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ৩১ ইঞ্চি ও সম্প্রসারিত অবস্থায় ৩৩ ইঞ্চি এবং ওজন বয়স ও উচ্চতার সঙ্গে অনুমোদিত ন্যূনতম পরিমাপে থাকতে হবে।

কর্মস্থল: রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বা এনপিসিবিএল নির্ধারিত যেকোনো স্থানে

বেতন: প্রথম দুই বছর প্রবেশনকাল গণ্য হবে, তবে তা প্রবেশনকালীন প্রশিক্ষণের ফলাফল/পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে বাড়ানো হতে পারে। প্রবেশনকালে নির্ধারিত হারে সাকল্য বেতন ও বিধি মোতাবেক উৎসব ভাতা প্রদান করা হবে। সাকল্যে বেতন হবে ৩৫,৬০০ টাকা। প্রবেশনকাল সফলভাবে সমাপ্তিতে এনপিসিবিএলে ট্রেইনি ইঞ্জিনিয়ারের চাকরি ইঞ্জিনিয়ার বা সমমান (গ্রেড-৮) পদে নিয়মিতকরণ/নিশ্চিতকরণ করা হবে। তখন মাসিক মূল বেতন হবে ৬২,৪০০ টাকা।

সুযোগ–সুবিধা: এনপিসিবিএলে নিয়মিত চাকরিতে নিয়োগের পর নির্ধারিত হারে মাসিক মূল বেতন ও পারিবারিক আবাসনসুবিধা (অথবা পারিবারিক আবাসনসুবিধা না দিতে পারলে মূল বেতনের ৪০ থেকে ৬০ শতাংশ হারে বাড়িভাড়া ভাতা) এবং প্রযোজ্যতা অনুসারে মূল বেতনের ৪০ শতাংশ হারে প্রকল্প ভাতা বা বিদ্যুৎকেন্দ্র ভাতা, অর্জিত ছুটি নগদায়ন, যৌথ বিমা, কনট্রিবিউটরি প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটিসহ অন্যান্য প্রান্তিক সুবিধা এনপিসিবিএলের বিধিমালা ও নীতিমালা অনুসারে দেওয়া হবে।

২. পদের নাম: ট্রেইনি ইঞ্জিনিয়ার (সার্ভার)

পদসংখ্যা: ৫

যোগ্যতা: সরকার ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন কর্তৃক অনুমোদিত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অ্যাপ্লাইড ফিজিকস অ্যান্ড ইলেকট্রনিকস/ ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং/ ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিক অ্যান্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে স্নাতক (চার বছর)/ স্নাতকোত্তর ডিগ্রি বা বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি থাকতে হবে। প্রতিটি পাবলিক পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ/সিজিপিএ ৫-এর মধ্যে ৪.০০ অথবা ৪-এর মধ্যে ৩.০০ থাকতে হবে; সনাতন ফলাফল পদ্ধতির অধীন প্রতিটি পাবলিক পরীক্ষায় প্রথম বিভাগ থাকতে হবে। কাজের প্রকৃতি বিবেচনায় কেবল পুরুষ প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশনে বিশেষভাবে এমএস ওয়ার্ড, এমএস এক্সেল ও এমএস পাওয়ার পয়েন্ট এবং ইউনিকোড টাইপিংয়ে দক্ষতা থাকতে হবে। মৌখিক ও লিখিত উভয় ক্ষেত্রে বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় যোগাযোগে সাবলীল হতে হবে। ন্যূনতম উচ্চতা ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি, ন্যূনতম বুকের মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ৩১ ইঞ্চি ও সম্প্রসারিত অবস্থায় ৩৩ ইঞ্চি এবং ওজন বয়স ও উচ্চতার সঙ্গে অনুমোদিত ন্যূনতম পরিমাপে থাকতে হবে।

কর্মস্থল: রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বা এনপিসিবিএল নির্ধারিত যেকোনো স্থানে

বেতন: প্রথম দুই বছর প্রবেশনকাল গণ্য হবে, তবে তা প্রবেশনকালীন প্রশিক্ষণের ফলাফল/পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে বাড়ানো হতে পারে। প্রবেশনকালে নির্ধারিত হারে সাকল্য বেতন ও বিধি মোতাবেক উৎসব ভাতা প্রদান করা হবে। সাকল্যে বেতন হবে ৩৫,৬০০ টাকা। প্রবেশনকাল সফলভাবে সমাপ্তিতে এনপিসিবিএলে ট্রেইনি ইঞ্জিনিয়ারের চাকরি ইঞ্জিনিয়ার বা সমমান (গ্রেড-৮) পদে নিয়মিতকরণ/নিশ্চিতকরণ করা হবে। তখন মাসিক মূল বেতন হবে ৬২,৪০০ টাকা।

সুযোগ-সুবিধা: এনপিসিবিএলে নিয়মিত চাকরিতে নিয়োগের পর নির্ধারিত হারে মাসিক মূল বেতন ও পারিবারিক আবাসনসুবিধা (অথবা পারিবারিক আবাসনসুবিধা না দিতে পারলে মূল বেতনের ৪০ থেকে ৬০ শতাংশ হারে বাড়িভাড়া ভাতা) এবং প্রযোজ্যতা অনুসারে মূল বেতনের ৪০ শতাংশ হারে প্রকল্প ভাতা বা বিদ্যুৎকেন্দ্র ভাতা, অর্জিত ছুটি নগদায়ন, যৌথ বিমা, কনট্রিবিউটরি প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটিসহ অন্যান্য প্রান্তিক সুবিধা এনপিসিবিএলের বিধিমালা ও নীতিমালা অনুসারে দেওয়া হবে।

৩. পদের নাম: ট্রেইনি ইঞ্জিনিয়ার (ইলেকট্রনিকস)

পদসংখ্যা: ১০

যোগ্যতা: সরকার ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন কর্তৃক অনুমোদিত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অ্যাপ্লাইড ফিজিকস অ্যান্ড ইলেকট্রনিকস বিষয়ে চার বছর মেয়াদি স্নাতক/স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অথবা ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং/ ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিক অ্যান্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি থাকতে হবে। প্রতিটি পাবলিক পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ/সিজিপিএ ৫-এর মধ্যে ৪.০০ অথবা ৪-এর মধ্যে ৩.০০ থাকতে হবে; সনাতন ফলাফল পদ্ধতির অধীন প্রতিটি পাবলিক পরীক্ষায় প্রথম বিভাগ থাকতে হবে। কাজের প্রকৃতি বিবেচনায় কেবল পুরুষ প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশনে বিশেষভাবে এমএস ওয়ার্ড, এমএস এক্সেল ও এমএস পাওয়ার পয়েন্ট এবং ইউনিকোড টাইপিংয়ে দক্ষতা থাকতে হবে। মৌখিক ও লিখিত উভয় ক্ষেত্রে বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় যোগাযোগে সাবলীল হতে হবে। ন্যূনতম উচ্চতা ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি, ন্যূনতম বুকের মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ৩১ ইঞ্চি ও সম্প্রসারিত অবস্থায় ৩৩ ইঞ্চি এবং ওজন বয়স ও উচ্চতার সঙ্গে অনুমোদিত ন্যূনতম পরিমাপে থাকতে হবে।

কর্মস্থল: রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বা এনপিসিবিএল নির্ধারিত যেকোনো স্থানে

বেতন: প্রথম দুই বছর প্রবেশনকাল গণ্য হবে, তবে তা প্রবেশনকালীন প্রশিক্ষণের ফলাফল/পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে বাড়ানো হতে পারে। প্রবেশনকালে নির্ধারিত হারে সাকল্য বেতন ও বিধি মোতাবেক উৎসব ভাতা প্রদান করা হবে। সাকল্যে বেতন হবে ৩৫,৬০০ টাকা। প্রবেশনকাল সফলভাবে সমাপ্তিতে এনপিসিবিএলে ট্রেইনি ইঞ্জিনিয়ারের চাকরি ইঞ্জিনিয়ার বা সমমান (গ্রেড-৮) পদে নিয়মিতকরণ/নিশ্চিতকরণ করা হবে। তখন মাসিক মূল বেতন হবে ৬২,৪০০ টাকা।

সুযোগ-সুবিধা: এনপিসিবিএলে নিয়মিত চাকরিতে নিয়োগের পর নির্ধারিত হারে মাসিক মূল বেতন ও পারিবারিক আবাসন–সুবিধা (অথবা পারিবারিক আবাসনসুবিধা না দিতে পারলে মূল বেতনের ৪০ থেকে ৬০ শতাংশ হারে বাড়িভাড়া ভাতা) এবং প্রযোজ্যতা অনুসারে মূল বেতনের ৪০ শতাংশ হারে প্রকল্প ভাতা বা বিদ্যুৎকেন্দ্র ভাতা, অর্জিত ছুটি নগদায়ন, যৌথ বিমা, কনট্রিবিউটরি প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটিসহ অন্যান্য প্রান্তিক সুবিধা এনপিসিবিএলের বিধিমালা ও নীতিমালা অনুসারে দেওয়া হবে।

৪. পদের নাম: ট্রেইনি ইঞ্জিনিয়ার (সিকিউরিটি অ্যানালাইসিস)

পদসংখ্যা: ৩

যোগ্যতা: সরকার ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন কর্তৃক অনুমোদিত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যেকোনো বিষয়ে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি থাকতে হবে। প্রতিটি পাবলিক পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ/সিজিপিএ ৫-এর মধ্যে ৪.০০ অথবা ৪-এর মধ্যে ৩.০০ থাকতে হবে; সনাতন ফলাফল পদ্ধতির অধীন প্রতিটি পাবলিক পরীক্ষায় প্রথম বিভাগ থাকতে হবে। কাজের প্রকৃতি বিবেচনায় কেবল পুরুষ প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশনে বিশেষভাবে এমএস ওয়ার্ড, এমএস এক্সেল ও এমএস পাওয়ার পয়েন্ট এবং ইউনিকোড টাইপিংয়ে দক্ষতা থাকতে হবে। মৌখিক ও লিখিত উভয় ক্ষেত্রে বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় যোগাযোগে সাবলীল হতে হবে। ন্যূনতম উচ্চতা ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি, ন্যূনতম বুকের মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ৩১ ইঞ্চি ও সম্প্রসারিত অবস্থায় ৩৩ ইঞ্চি এবং ওজন বয়স ও উচ্চতার সঙ্গে অনুমোদিত ন্যূনতম পরিমাপে থাকতে হবে।

কর্মস্থল: রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বা এনপিসিবিএল নির্ধারিত যেকোনো স্থানে

বেতন: প্রথম দুই বছর প্রবেশনকাল গণ্য হবে, তবে তা প্রবেশনকালীন প্রশিক্ষণের ফলাফল/পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে বাড়ানো হতে পারে। প্রবেশনকালে নির্ধারিত হারে সাকল্য বেতন ও বিধি মোতাবেক উৎসব ভাতা প্রদান করা হবে। সাকল্যে বেতন হবে ৩৫,৬০০ টাকা। প্রবেশনকাল সফলভাবে সমাপ্তিতে এনপিসিবিএলে ট্রেইনি ইঞ্জিনিয়ারের চাকরি ইঞ্জিনিয়ার বা সমমান (গ্রেড-৮) পদে নিয়মিতকরণ/নিশ্চিতকরণ করা হবে। তখন মাসিক মূল বেতন হবে ৬২,৪০০ টাকা।

সুযোগ-সুবিধা: এনপিসিবিএলে নিয়মিত চাকরিতে নিয়োগের পর নির্ধারিত হারে মাসিক মূল বেতন ও পারিবারিক আবাসনসুবিধা (অথবা পারিবারিক আবাসনসুবিধা না দিতে পারলে মূল বেতনের ৪০ থেকে ৬০ শতাংশ হারে বাড়িভাড়া ভাতা) এবং প্রযোজ্যতা অনুসারে মূল বেতনের ৪০ শতাংশ হারে প্রকল্প ভাতা বা বিদ্যুৎকেন্দ্র ভাতা, অর্জিত ছুটি নগদায়ন, যৌথ বিমা, কনট্রিবিউটরি প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটিসহ অন্যান্য প্রান্তিক সুবিধা এনপিসিবিএলের বিধিমালা ও নীতিমালা অনুসারে দেওয়া হবে।

৫. পদের নাম: ট্রেইনি সাব–অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার (ইলেকট্রনিক মেইনটেন্যান্স)

পদসংখ্যা: ৩

যোগ্যতা: বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে সরকার অনুমোদিত কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ইলেকট্রনিক টেকনোলজি/ডাটা টেলিকমিউনিকেশন অ্যান্ড নেটওয়ার্কিং টেকনোলজি/টেলিকমিউনিকেশন টেকনোলজি/কম্পিউটার টেকনোলজি/কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজিতে ডিপ্লোমা-ইন-ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি। প্রতিটি পাবলিক পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ/সিজিপিএ ৫-এর মধ্যে ৪.০০ অথবা ৪-এর মধ্যে ৩.০০ থাকতে হবে; সনাতন ফলাফল পদ্ধতির অধীন প্রতিটি পাবলিক পরীক্ষায় প্রথম বিভাগ থাকতে হবে। কাজের প্রকৃতি বিবেচনায় কেবল পুরুষ প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশনে বিশেষভাবে এমএস ওয়ার্ড, এমএস এক্সেল ও এমএস পাওয়ার পয়েন্ট এবং ইউনিকোড টাইপিংয়ে দক্ষতা থাকতে হবে। মৌখিক ও লিখিত উভয় ক্ষেত্রে বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় যোগাযোগে সাবলীল হতে হবে। ন্যূনতম উচ্চতা ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি, ন্যূনতম বুকের মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ৩১ ইঞ্চি ও সম্প্রসারিত অবস্থায় ৩৩ ইঞ্চি এবং ওজন বয়স ও উচ্চতার সঙ্গে অনুমোদিত ন্যূনতম পরিমাপে থাকতে হবে।

কর্মস্থল: রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বা এনপিসিবিএল নির্ধারিত যেকোনো স্থানে

বেতন: প্রথম দুই বছর প্রবেশনকাল গণ্য হবে, তবে তা প্রবেশনকালীন প্রশিক্ষণের ফলাফল/পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে বাড়ানো হতে পারে। প্রবেশনকালে নির্ধারিত হারে সাকল্য বেতন ও বিধি মোতাবেক উৎসব ভাতা প্রদান করা হবে। সাকল্যে বেতন হবে ২৭,১০০ টাকা। প্রবেশনকাল সফলভাবে সমাপ্তিতে এনপিসিবিএলে ট্রেইনি সাব-অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ারের চাকরি সাব-অ্যাসিস্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার বা সমমান (গ্রেড-১০) পদে নিয়মিতকরণ/নিশ্চিতকরণ করা হবে। তখন মাসিক মূল বেতন হবে ৪৮,০০০ টাকা।

সুযোগ-সুবিধা: এনপিসিবিএলে নিয়মিত চাকরিতে নিয়োগের পর নির্ধারিত হারে মাসিক মূল বেতন ও পারিবারিক আবাসনসুবিধা (অথবা পারিবারিক আবাসনসুবিধা না দিতে পারলে মূল বেতনের ৪০ থেকে ৬০ শতাংশ হারে বাড়িভাড়া ভাতা) এবং প্রযোজ্যতা অনুসারে মূল বেতনের ৪০ শতাংশ হারে প্রকল্প ভাতা বা বিদ্যুৎকেন্দ্র ভাতা, অর্জিত ছুটি নগদায়ন, যৌথ বিমা, কনট্রিবিউটরি প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটিসহ অন্যান্য প্রান্তিক সুবিধা এনপিসিবিএলের বিধিমালা ও নীতিমালা অনুসারে দেওয়া হবে।

৬. পদের নাম: ট্রেইনি টেকনিক্যাল অ্যাটেনডেন্ট

পদসংখ্যা: ২

যোগ্যতা: বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে সরকার অনুমোদিত কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে এসএসসি (ভোকেশনাল) পাস। সংশ্লিষ্ট কাজে পাঁচ বছর চাকরির অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। প্রতিটি পাবলিক পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ/সিজিপিএ ৫-এর মধ্যে ৪.০০ অথবা ৪-এর মধ্যে ৩.০০ থাকতে হবে; সনাতন ফলাফল পদ্ধতির অধীন প্রতিটি পাবলিক পরীক্ষায় প্রথম বিভাগ থাকতে হবে। কাজের প্রকৃতি বিবেচনায় কেবল পুরুষ প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশনে বিশেষভাবে এমএস ওয়ার্ড, এমএস এক্সেল ও এমএস পাওয়ার পয়েন্ট এবং ইউনিকোড টাইপিংয়ে দক্ষতা থাকতে হবে। মৌখিক ও লিখিত উভয় ক্ষেত্রে বাংলা ও ইংরেজি ভাষায় যোগাযোগে সাবলীল হতে হবে। ন্যূনতম উচ্চতা ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি, ন্যূনতম বুকের মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ৩১ ইঞ্চি ও সম্প্রসারিত অবস্থায় ৩৩ ইঞ্চি এবং ওজন বয়স ও উচ্চতার সঙ্গে অনুমোদিত ন্যূনতম পরিমাপে থাকতে হবে।

কর্মস্থল: রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বা এনপিসিবিএল নির্ধারিত যেকোনো স্থানে

বেতন: প্রথম দুই বছর প্রবেশনকাল গণ্য হবে, তবে তা প্রবেশনকালীন প্রশিক্ষণের ফলাফল/পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে বাড়ানো হতে পারে। প্রবেশনকালে নির্ধারিত হারে সাকল্য বেতন ও বিধি মোতাবেক উৎসব ভাতা প্রদান করা হবে। সাকল্যে বেতন হবে ১৬,৫৫০ টাকা। প্রবেশনকাল সফলভাবে সমাপ্তিতে এনপিসিবিএলে ট্রেইনি টেকনিক্যাল অ্যাটেনডেন্টের চাকরি টেকনিক্যাল অ্যাটেনডেন্ট (গ্রেড-১৭) পদে নিয়মিতকরণ/নিশ্চিতকরণ করা হবে। তখন মাসিক মূল বেতন হবে ২০,৪০০ টাকা।

সুযোগ-সুবিধা: এনপিসিবিএলে নিয়মিত চাকরিতে নিয়োগের পর নির্ধারিত হারে মাসিক মূল বেতন ও পারিবারিক আবাসনসুবিধা (অথবা পারিবারিক আবাসনসুবিধা না দিতে পারলে মূল বেতনের ৪০ থেকে ৬০ শতাংশ হারে বাড়িভাড়া ভাতা) এবং প্রযোজ্যতা অনুসারে মূল বেতনের ৪০ শতাংশ হারে প্রকল্প ভাতা বা বিদ্যুৎকেন্দ্র ভাতা, অর্জিত ছুটি নগদায়ন, যৌথ বিমা, কনট্রিবিউটরি প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটিসহ অন্যান্য প্রান্তিক সুবিধা এনপিসিবিএলের বিধিমালা ও নীতিমালা অনুসারে দেওয়া হবে।

বয়স

আবেদনের শেষ তারিখে সর্বোচ্চ বয়সসীমা ৩০ বছর। তবে বীর মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তানের জন্য ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য।

শর্ত

যোগদানকারীকে যোগদানের সময় এ মর্মে অঙ্গীকারনামা দাখিল করতে হবে যে তিনি এনপিসিবিএলে যোগদানের তারিখ থেকে কমপক্ষে ১০ বছর চাকরি করবেন। যদি এনপিসিবিএলে ১০ বছর চাকরি সমাপ্তির আগে স্বেচ্ছায় এনপিসিবিএল ত্যাগ করেন, তবে তিনি এনপিসিবিএল, সরকার বা অন্য যেকোনো কর্তৃপক্ষ কর্তৃক তাঁর জন্য ব্যয়কৃত সমুদয় অর্থ পরিশোধ করতে বাধ্য থাকবেন।

এনপিসিবিএলে যোগদানের সময় যোগদানকারীকে গোপনীয়তা এবং নিরাপত্তাসংক্রান্ত একটি ঘোষণাপত্র দাখিল করতে হবে এবং ঘোষণা মোতাবেক যোগদানকারীকে কোম্পানি বা রাষ্ট্রের বা সরকারের বা কোনো এনপিপির নিরাপত্তার জন্য ক্ষতিকর বলে প্রতীয়মান হলে কর্তৃপক্ষ কোনো ক্ষতিপূরণ ছাড়াই চাকরির অবসানসহ যেকোনো আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবে।

আবেদন যেভাবে

আগ্রহী প্রার্থীদের এই ওয়েবসাইটে ফরম পূরণের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। নিয়োগসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য এই ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

আবেদন ফি

প্রত্যেক প্রার্থীকে তাঁর আবেদন নিশ্চিতকরণের জন্য এই  ওয়েবসাইটে  উল্লেখিত নির্দেশনা অনুসরণ করে যেকোনো টেলিটক নম্বর থেকে এসএমএসের মাধ্যমে অফেরতযোগ্য ৫০০ টাকা পরিশোধ করতে হবে।

আবেদনের সময়সীমা: ৫ মে ২০২৪, রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত।

img

রেলওয়েতে চাকরির সুযোগ, পদসংখ্যা ৩৩৮

প্রকাশিত :  ১১:১৪, ১৫ জুন ২০২৪

চার পদে ৩৩৮ জনবল নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। আগ্রহী প্রার্থীদের অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

পদের নাম: ট্রেন এক্সামিনার

পদসংখ্যা: ৪৫

যোগ্যতা: স্নাতক বা সমমান পাস

বেতন স্কেল: ১১,৩০০-২৭,৩০০ টাকা


পদের নাম: ট্রেন কন্ট্রোলার

পদসংখ্যা: ২৭

যোগ্যতা: স্নাতক পাস

বেতন স্কেল: ১১,৩০০-২৭,৩০০ টাকা

পদসংখ্যা: ১৮

যোগ্যতা: স্নাতক পাস

বেতন স্কেল: ১০,২০০-২৪,৬৮০ টাকা


পদের নাম: ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস

পদসংখ্যা: ২৪৮

যোগ্যতা: এসএসসি বা সমমান পাস

বেতন স্কেল: ১০,২০০-২৪,৬৮০ টাকা

বয়স

প্রার্থীর বয়স ১৮ মার্চ তারিখে ১৮-৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে। তবে বীর মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও শারীরিক প্রতিবন্ধীদের ক্ষেত্রে সরকারি বিধি অনুযায়ী সর্বোচ্চ ৩২ বছর পর্যন্ত শিথিলযোগ্য। বীর মুক্তিযোদ্ধা/শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নাতি-নাতনিদের ক্ষেত্রে বয়স ৩০ বছর।

যেভাবে আবেদন

পরীক্ষায় অংশগ্রহণে ইচ্ছুক প্রার্থীদের এই ওয়েসাইটে  প্রবেশ করে আবেদন করতে হবে। নিয়োগ ও আবেদনসংক্রান্ত আরও বিস্তারিত তথ্য জানা যাবে এই লিংকে ।

আবেদন ফি

ট্রেন এক্সামিনার, ট্রেন কন্ট্রোলার ও ট্রাফিক অ্যাপ্রেন্টিস পদের জন্য সার্ভিস চার্জসহ ২২৩ টাকা এবং ট্রেড অ্যাপ্রেন্টিস পদের জন্য ১১২ টাকা আবেদন করার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে টেলিটক প্রি-পেইডের মাধ্যমে জমা দিতে হবে।

আবেদনের সময়সীমা

১ জুলাই থেকে ৮ আগস্ট পর্যন্ত।