img

ব্রাজিলের কোপা দলে চার নতুন মুখ, বাদ পড়লেন এডারসন

প্রকাশিত :  ০৮:৩৪, ২০ মে ২০২৪

ব্রাজিলের কোপা দলে চার নতুন মুখ, বাদ পড়লেন এডারসন

দুই আসর পর আবারও যুক্তরাষ্ট্রে বসতে যাচ্ছে দক্ষিণ আমেরিকার শ্রেষ্ঠত্বের আসর কোপা আমেরিকা। এই আসরকে সামনে রেখে সবার আগে চমক দেখিয়ে দল ঘোষণা করে ব্রাজিল। তবে ঘোষিত দলে থাকা গোলরক্ষক এদারসনকে নিয়ে শঙ্কাটা ছিল আগে থেকেই। শেষ পর্যন্ত সেটাই সত্যি হল। চোখে চোট পাওয়ায় মাঠের বাইরে থাকা এদারসন মিস করবেন আসছে কোপা আমেরিকা। শুরুতে দলে রাখলেও ব্রাজিলের চূড়ান্ত স্কোয়াড থেকে বাদ পড়েছেন ম্যানচেস্টার সিটি গোলরক্ষক।

এদিকে আসন্ন কোপায় দক্ষিণ আমেরিকার গভর্নিং বডি কনমেবল দলগুলোকে তাদের স্কোয়াড ২৩ জন থেকে বাড়িয়ে ২৬ জনের করার অনুমতি দেওয়ার পর এদারসনের বিকল্প সহ আরও নতুন তিন ফুটবলারকে দলে ডেকেছেন দরিভাল জুনিয়র। এই দফায়ও সুযোগ মেলেনি অভিজ্ঞ মিডফিল্ডার কাসেমিরো, গাব্রিয়েল জেসুসদের। এক বিবৃতিতে ব্রাজিলিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন (সিবিএফ) বিষয়টি জানায়। 

নতুন তিন জন ফুটবলার হলেন জুভেন্তাস ডিফেন্ডার ব্রেমার, আতালান্তার মিডফিল্ডার এদারসন ও পোর্তো ফরোয়ার্ড পেপে। আর ৩০ বছর বয়সী গোলরক্ষক এদেরসনের বিকল্প হিসেবে দলে নেওয়া হয়েছে সাও পাওলোর রাফায়েলকে।

গত সপ্তাহে টটেনহাম হটস্পারের বিপক্ষে প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচ চলাকালীন ক্রিস্তিয়ান রোমেরোর সাথে সংঘর্ষের সময় এদারসন তার চোখের সকেটের একটি ছোট ফ্র্যাকচারের শিকার হন। এরপর তাকে বদলি হিসেবে তুলে নেওয়া হয়। গত রবিবার ওয়েস্ট হ্যামের বিপক্ষে জয়ের ম্যাচেও খেলেননি আর। এবার ছিটকে গেলেন কোপা আমেরিকা থেকেও।

চলতি মাসের শুরুতে ঘোষিত ২৩ জনের স্কোয়াডে দরিভাল রাখেন তরুণ স্ট্রাইকার এন্দ্রিককে। সম্প্রতি পালমেইরাসের হয়ে খেলার সময় তিনিও চোটে পড়েন। তবে ২৬ জনের দলেও তার থাকাটা বলে দেয়, চোট হয়ত গুরুতর নয় ১৭ বছর বয়সী এই ফুটবলারের।

এবারের কোপা আমেরিকায় ব্রাজিল খেলবে ডি-গ্রুপে। এই গ্রুপে তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী হলো- কলম্বিয়া, প্যারাগুয়ে ও কোস্টারিকা। প্রতিযোগিতার ৯ বারের চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল তাদের কোপা আমেরিকা অভিযান শুরু করবে কোস্টারিকার বিরুদ্ধে, আগামী ২৪ জুন।

খুলনাকে হারিয়ে প্রথম জয়ের স্বাদ নিল সিলেট

টি-20 বিশ্বকাপ

img

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দাপুটে জয় ইংল্যান্ডের

প্রকাশিত :  ০৯:০১, ২০ জুন ২০২৪

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সুপার এইটে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৪ উইকেটে ১৮০ রানের জবাবে ১৫ বল হাতে রেখে ২ উইকেটে ১৮১ তুলে জয় নিশ্চিত করে ইংল্যান্ড।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) সেন্ট লুসিয়ার ড্যারেন স্যামি জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে জিতে ক্যারিবিয়ানদের ব্যাটিংয়ে পাঠান ইংলিশ অধিনায়ক জস বাটলার। ব্যাট করতে নেমে দলকে ভালো শুরু এনে দেন দুই ওপেনার ব্রান্ডন কিং ও জনসন চার্লস।

তবে দলীয় ৪০ রানে ১৩ বলে ২৩ রান করে রিটার্ড হার্ট হয়ে ফিরে যান কিং। এরপর নিকোলাস পুরানকে সঙ্গে নিয়ে রানের চাকা সচল রাখেন জনসন। জনসন ৩৪ বলে ৩৮ ও পুরান ৩২ বলে ৩৬ রান করেন 

মাঝে অধিনায়ক রোভম্যান পাওয়েল ১৭ বলে ৩৬ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন। শেষ দিকে শেরফান রাদারফোর্ডের ২৫ বলে ২৮ রানে ভর করে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৮০ রান সংগ্রহ করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

১৮১ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে দলকে ভালো শুরু এনে দেন দুই ইংলিশ ওপেনার ফিল সল্ট ও জস বাটলার। উদ্বোধনী জুটিতে ৬৭ রান যোগ করেন এই দুই ব্যাটার। 

তবে এরপর দ্রুতই জোড়া উইকেট হারায় ইংল্যান্ড। বাটলার ২২ বলে ২৫ ও মঈন আলি ১০ বলে ১৩ রান করে সাজঘরে ফিরে যান। তাদের বিদায়ের পর জনি বেয়ারস্টোকে সঙ্গে নিয়ে ক্যারিবিয়ান বোলারদের ওপর চড়াও হন সল্ট।

আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে ফিফটি তুলে নেন সল্ট। এই দুই ব্যাটারের ব্যাটে ১৫ বল হাতে রেখে ৮ উইকেটের জয় পায় ইংল্যান্ড। ক্যারিবিয়ানদের পক্ষে আন্দ্রে রাসেল ও রস্টন চেজ নেন ১টি করে উইকেট।