img

নেদারল্যান্ডস দলে বড় পরিবর্তন, বাদ পড়লেন ক্লাসেন

প্রকাশিত :  ১০:৩৩, ২৩ মে ২০২৪

নেদারল্যান্ডস দলে বড় পরিবর্তন, বাদ পড়লেন ক্লাসেন

ওয়েস্ট ইন্ডিজ-যুক্তরাষ্ট্রে আগামী ১ জুন শুরু হচ্ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। বিশ্বকাপ শুরুর আগে আইসিসির বেঁধে দেওয়া নির্ধারিত সময় শেষ হওয়ার আগেই নেদারল্যান্ডস তাদের স্কোয়াডে পরিবর্তন এনেছে। ২৫ মে পর্যন্ত ঘোষিত স্কোয়াডে পরিবর্তন আনার সুযোগ ছিল। তা মেনেই দুটি পরিবর্তন এনেছে ডাচরা। যারা বাংলাদেশের সঙ্গে গ্রুপ ডিতে আছে।

শেষ মুহূর্তে পিঠের পুরোনো চোট ফিরে এসেছে ক্লাসেনের। যার ফলে বিশ্বকাপে খেলতে পারছেন না তিনি। অন্যদিকে ডোরাম পড়েছেন অন্যরকম বিড়ম্বনায়। হাত ভেঙে ফেলায় ছিটকে গেছেন বিশ্বকাপ থেকে। 

টুর্নামেন্ট শুরুর এক সপ্তাহ আগে ছিটকে যাওয়া দুই ক্রিকেটার ফ্রেড ক্লাসেন ও ড্যানিয়েল ডোরাম। তাদের দুজনের বদলি হিসেবে দলে ডাকা হয়েছে সাকিব জুলফিকার ও কাইল ক্লেইনকে। 

বদলি হিসেবে ডাক পাওয়া দুজনের মধ্যে ক্লেইন ট্রাভেলিং রিজার্ভ হিসেবে স্কোয়াডে ছিলেন। নতুন করে বিশ্বকাপের জন্য ডাক পেলেন সাকিব জুলফিকার।

লেগ স্পিনার সাকিব জুলফিকার (২৭) নেদারল্যান্ডসের হয়ে এখন পর্যন্ত ছয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন। অন্যদিকে ডানহাতি মিডিয়াম পেসার ক্লেইন এখন পর্যন্ত ডাচদের হয়ে খেলেছেন একটি ম্যাচ। 

বিশ্বকাপে গ্রুপ ‘ডি’তে খেলবে নেদারল্যান্ডস। তাদের সঙ্গে আছে বাংলাদেশ, নেপাল, শ্রীলংকা ও দক্ষিণ আফ্রিকা। আগামী ৪ জুন ডালাসে নেপালের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে নেদারল্যান্ডসের বিশ্বকাপ অভিযান শুরু।

ইতোমধ্যে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে বর্তমানে স্কটল্যান্ড ও আয়ারল্যান্ডের সঙ্গে একটি ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলছে নেদারল্যান্ডস। 

নেদারল্যান্ডস দল

স্কট অ্যাডওয়ার্ডস (অধিনায়ক), আরিয়ান দত্ত, বাস ডি লিড, সাকিব জুলফিকার, কাইল ক্লেইন, লোগান ফন ভিক, ম্যাক্স ও\'ডাউড, মাইকেল লেভিট, পল ভ্যান মিকেরেন, সায়ব্র্যান্ড এঙ্গেলব্রেখট, তেজা নিদামানারু, টিম প্রিঙ্গলে, বিক্রম সিং, ভিভ কিংমা, ওয়েসলি বারেসি।


খুলনাকে হারিয়ে প্রথম জয়ের স্বাদ নিল সিলেট

টি-20 বিশ্বকাপ

img

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দাপুটে জয় ইংল্যান্ডের

প্রকাশিত :  ০৯:০১, ২০ জুন ২০২৪

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সুপার এইটে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৪ উইকেটে ১৮০ রানের জবাবে ১৫ বল হাতে রেখে ২ উইকেটে ১৮১ তুলে জয় নিশ্চিত করে ইংল্যান্ড।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) সেন্ট লুসিয়ার ড্যারেন স্যামি জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে জিতে ক্যারিবিয়ানদের ব্যাটিংয়ে পাঠান ইংলিশ অধিনায়ক জস বাটলার। ব্যাট করতে নেমে দলকে ভালো শুরু এনে দেন দুই ওপেনার ব্রান্ডন কিং ও জনসন চার্লস।

তবে দলীয় ৪০ রানে ১৩ বলে ২৩ রান করে রিটার্ড হার্ট হয়ে ফিরে যান কিং। এরপর নিকোলাস পুরানকে সঙ্গে নিয়ে রানের চাকা সচল রাখেন জনসন। জনসন ৩৪ বলে ৩৮ ও পুরান ৩২ বলে ৩৬ রান করেন 

মাঝে অধিনায়ক রোভম্যান পাওয়েল ১৭ বলে ৩৬ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন। শেষ দিকে শেরফান রাদারফোর্ডের ২৫ বলে ২৮ রানে ভর করে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৮০ রান সংগ্রহ করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

১৮১ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে দলকে ভালো শুরু এনে দেন দুই ইংলিশ ওপেনার ফিল সল্ট ও জস বাটলার। উদ্বোধনী জুটিতে ৬৭ রান যোগ করেন এই দুই ব্যাটার। 

তবে এরপর দ্রুতই জোড়া উইকেট হারায় ইংল্যান্ড। বাটলার ২২ বলে ২৫ ও মঈন আলি ১০ বলে ১৩ রান করে সাজঘরে ফিরে যান। তাদের বিদায়ের পর জনি বেয়ারস্টোকে সঙ্গে নিয়ে ক্যারিবিয়ান বোলারদের ওপর চড়াও হন সল্ট।

আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে ফিফটি তুলে নেন সল্ট। এই দুই ব্যাটারের ব্যাটে ১৫ বল হাতে রেখে ৮ উইকেটের জয় পায় ইংল্যান্ড। ক্যারিবিয়ানদের পক্ষে আন্দ্রে রাসেল ও রস্টন চেজ নেন ১টি করে উইকেট।