img

মেলানিয়া ট্রাম্পকে যে পরামর্শ দিলেন স্টর্মি ড্যানিয়েলস

প্রকাশিত :  ০৯:২৭, ০৫ জুন ২০২৪

মেলানিয়া ট্রাম্পকে যে পরামর্শ দিলেন স্টর্মি ড্যানিয়েলস

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যৌন সম্পর্কের বিষয়ে মুখ বন্ধ করতে পর্ন তারকা স্টর্মি ড্যানিয়েলসকে ১ লাখ ৩০ হাজার ডলার ঘুষ দিয়েছিলেন। সম্প্রতি মার্কিন আদালত এটা নিয়ে ট্রাম্পকে দোষী সাব্যস্ত করেছে। এবার মেলানিয়া ট্রাম্প নিয়ে কথা বলেছেন স্টর্মি ড্যানিয়েলস। তিনি বলেছেন, মেলানিয়া ট্রাম্পের  উচিত তার অভিযুক্ত স্বামীকে ছেড়ে চলে যাওয়া। ডেইলি মিররকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ড্যানিয়েলস এসব কথা বলেন।

ডেইলি মিরের উপস্থাপক ড্যানিয়েলসকে প্রশ্ন করেন মেলানিয়ার ট্রাম্পকে ছেড়ে যাওয়া উচিত কিনা। জবাবে তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ।’

স্টর্মি ড্যানিয়েলস এ সময় বলেন, আমি জানি না, তাদের মধ্যে কোনো চুক্তি আছে কিনা। তবে মেলানিয়ার উচিত ট্রাম্পকে ছেড়ে যাওয়া।

উপস্থাপক তখন কী কারণে ছেড়ে যাওয়া উচিত প্রশ্ন করলে স্টর্মি ড্যানিয়েলস বলেন, এই কারণে নয় যে ট্রাম্প আমার কিংবা অন্য কোনো নারীর সঙ্গে কী করেছে, বরং তিনি (ট্রাম্প) একজন অভিযুক্ত অপরাধী বলে।

এর সুস্পষ্ট কারণ তালিকাভুক্ত হয়েছে উল্লেখ করে স্টর্মি বলেন, তিনি নিপীড়ক এবং যৌন নিপীড়ন ও কর জালিয়াতিতে অভিযুক্ত।

মেলানিয়া কিংবা ট্রাম্পের জ্যেষ্ঠ কন্যা ইভানকাকে কেন আদালত কক্ষে দেখা যায়নি, এমন প্রশ্নের জবাবে স্টর্মি বলেন, হয়তো মেলানিয়া তার সন্তানকে এই ভয়ানক পরিস্থিতির মুখোমুখি করতে চাননি। যেহেতু মেলানিয়া ও ইভানকা উভয়েরই শিশুসন্তান রয়েছে; সে কারণেই তারা এমনটা করতে পারেন।

এদিকে রবিবার মার্কিন সম্প্রচারমাধ্যম ফক্স নিউজের ‘ফক্স অ্যান্ড ফ্রেন্ডস সানডে’ অনুষ্ঠানে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প বলেন, মামলার বিচার তার স্ত্রী মেলানিয়া ট্রাম্পের জন্য ‘কঠিন’ বিষয় ছিল। 

ফক্স নিউজকে ট্রাম্প বলেন, মেলানিয়া ভালো আছেন। কিন্তু এটা (ফৌজদারি বিচার) তার জন্য খুবই কঠিন একটি বিষয় ছিল। তাকে এই (বিচারসংশ্লিষ্ট) সব বাজে জিনিস পড়তে হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার ওই মামলার ৩৪টি অভিযোগের সব কটিতে ট্রাম্পকে দোষী সাব্যস্ত করেন নিউইয়র্কের একটি আদালত। মামলায় অভিযোগ আনা হয়েছিল, পর্ন তারকা স্টর্মি ড্যানিয়েলসের সঙ্গে ট্রাম্পের যৌন সম্পর্ক হয়েছিল। সে বিষয়ে মুখ বন্ধ রাখতে ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে স্টর্মিকে অর্থ দেওয়া হয়। কিন্তু তা ট্রাম্পের ব্যবসায়িক নথিতে উল্লেখ করা হয়নি।




img

বিরল রোগে আক্রান্ত কিংবদন্তি গায়িকা অলকা

প্রকাশিত :  ০৮:৩০, ১৮ জুন ২০২৪

কিংবদন্তি গায়িকা অলকা ইয়াগনিককে অনেকদিন ধরেই পাওয়া যাচ্ছে না বলিউডে। যার ঝুলিতে রয়েছে প্রায় কয়েকশ সুপার হিট গানের লম্বা লিস্ট। যিনি বলিউডে রাজত্ব করছেন প্রায় নব্বইয়ের দশক থেকে। তার কণ্ঠের জনপ্রিয় গানগুলি গুণগুণ করে তরুণ থেকে প্রবীণ প্রজন্ম সবাই। গত বছরেই তার গান শোনার শ্রোতা সংখ্যা রেকর্ড গড়েছিল। পিছিয়ে দিয়েছিল বিশ্বের অন্যতম খ্যাতনামা ব্যান্ড ‘BTS’ আর্মি কেও। কিন্তু বহুদিন ধরেই, গায়িকা লাইমলাইটে নেই। যদি ও বর্তমানে তরুণ প্রজন্মের সঙ্গীত শিল্পীদের ভিড়ে হারিয়ে যাচ্ছে পুরোনো প্রজন্মের সংগীত শিল্পীরা । তাতে অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। কিন্তু অলকা ইয়াগনিকের কণ্ঠ যেন আইকনিক। সম্প্রতি গায়িকা তার হারিয়ে যাওয়ার কারণ নিজেই ইনস্টাগ্রামের মাধ্যমে ভক্তদের জানিয়েছেন। নিজের জীবনের একটি দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা শেয়ার করলেন। বিরল ভাইরাস আক্রমণ করেছে গায়িকাকে। যার কারণে তার বিরল সংবেদনশীল স্নায়ু শ্রবণশক্তি হ্রাস পেয়েছে।

পোস্টটি শেয়ার করে অলকা লিখেছেন, ‘আমার সমস্ত ভক্ত, বন্ধু, অনুরাগী এবং শুভাকাঙ্ক্ষীদের জন্য। কয়েক সপ্তাহ আগে, আমি যখন একটি ফ্লাইট থেকে নামছিলাম, তখন হঠাৎ অনুভব করলাম- আমি কিছুই শুনতে পাচ্ছি না। এই পর্বের কয়েক সপ্তাহ পর, আমি এখন আমার সমস্ত বন্ধু এবং শুভাকাঙ্ক্ষীদের জন্য এই পোস্ট। যারা জানতে চায় কেন আমি অ্য়াকশনে অনুপস্থিত।’

নিজের শরীরের আরও আপডেট দিয়ে অলকা লেখেন, ‘ভাইরাল আক্রমণের কারণে এটি একটি বিরল সংবেদনশীল স্নায়ুর সমস্যা। যার কারণে শ্রবণশক্তি হ্রাস পেয়েছে। এই আকস্মিক, বড় ধাক্কা আমার অজান্তেই শরীরে গ্রাস করেছে। আমি এটির সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছি। দয়া করে আপনারা অমার জন্য প্রার্থনা করবেন।’

অলকা তার এই পোস্টে জোরে মিউজিক শোনা ও হেডফোনে খুব উচ্চ আওয়াজ রাখা থেকেও বিরত করেন নিজের অনুরাগীদের। লেখেন, ‘আমার অনুরাগী এবং তরুণ সহকর্মীদের জন্য, আমি খুব জোরে মিউজিক এবং হেডফোনের সংস্পর্শে আসার বিষয়ে সতর্কতামূলক শব্দ যোগ করব। আমি আমার পেশাগত জীবনের স্বাস্থ্যগত বিপদগুলি শেয়ার করতে চাই। আপনাদের সবার ভালোবাসা এবং সমর্থন দিয়ে আমি পুনরুদ্ধার করার আশা করছি। আমার বিশ্বাস, শিগগিরই আপনাদের কাছে ফিরে আসব।’

অলকা ইয়াগনিকের এই পোস্ট হতবাক করেছে তার অনুগামীদের। ইলা অরুণ লিখলেন, ‘এটা শুনে খুব কষ্ট পেলাম। প্রিয়তম অলকা আমি তোমার ছবি দেখেছি এবং সঙ্গে সঙ্গে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছি। তারপর আমি যা পড়লাম, এটি হৃদয়বিদারক। তবে সেরা ডাক্তারদের ওপর ভরসা রাখ। তুমি ভালো থাকবে এবং শিগগিরই আমরা তোমার মিষ্টি কণ্ঠ শুনতে পাব। ভালোবাসা। সবসময় নিজের যত্ন নিও।’

সোনু নিগম লিখলেন, ‘আমার মনেই হয়েছিল সব ঠিক নেই। ফিরেই তোমার সঙ্গে দেখা করব। দ্রুত সেরে ওঠো।’ ৫৪ বছর বয়সী অলকার শেষ গান গেয়েছেন ‘ক্রু’ এবং ‘অমর সিং চামকিলা’ ছবিতে।