img

নিউইয়র্কের ব্রঙ্কসে মামুন’স টিউটোরিয়ালের বর্ণিল অ্যাওয়ার্ড প্রদান

প্রকাশিত :  ১৫:০৫, ০৮ জুন ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ১৫:২৩, ০৮ জুন ২০২৪

নিউইয়র্কের ব্রঙ্কসে মামুন’স টিউটোরিয়ালের বর্ণিল অ্যাওয়ার্ড প্রদান

একঝাঁক মেধাবী শিক্ষার্থীদের নিয়ে নিউইয়র্কের ব্রঙ্কসে মামুন’স টিউটোরিয়ালের ২০২৪ সালের অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠিত হয়েছে। মামুন’স টিউটোরিয়েল থেকে প্রাইভেট শিক্ষা নিয়ে বিশেষায়িত স্কুল ও কলেজে ভর্তির সুযোগ পাওয়া শিক্ষার্থীদের পদক ও সনদ দিয়ে সম্মাননা জানিয়েছে মামুন’স টিউটোরিয়াল।

২ জুন রোববার ব্রঙ্কসের গোল্ডেন প্যালেস মিলনায়তনে আয়োজিত বর্ণিল এ অনুষ্ঠানে শুরুতেই সবাইকে স্বাগত জানান মামুন’স টিউটোরিয়েলের কর্ণধার শেখ আল মামুন এবং ডাঃ নাহিদ খান। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডা. অগাস্টিন ওগারেলো। বিশেষ অতিথি ছিলেন নিউইয়র্ক সিটির মেয়র অফিসের প্রধান প্রশাসনিক কর্মকর্তা মীর বাশার, সিপিএ জাকির চৌধুরী, ব্রঙ্কস কমিউনিটি বোর্ড -৯ এর চেয়ারম্যান মোহাম্মদ এন মজুমদার, ডিটেকটিভ মাসুদুর রহমান, শাহ খালেদ আলী প্রমুখ।

উপস্থাপিকা দিমা নেফারতিতি’র পরিচালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতেই কোরআন ও গীতা থেকে পাঠ করা হয়। বাজানো হয় বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় সংগীত। শেখ আল মামুন তাঁর বক্তৃতায় বলেছেন, দেশ থেকে প্রথম আসা অভিবাসীরা সন্তানদের সাফল্যের জন্য যে ত্যাগ স্বীকার করেন এ জন্যই সন্তানদের সাফল্য অর্জন সহজ হয়। পাশাপাশি মেধাবী এসব শিশু কিশোরদের অনেকেই বাংলাদেশ থেকে এসে ইংরেজি ভালো করে না জানা সত্ত্বেও দ্রুতই তারা নিজ মেধায় এগিয়ে গিয়েছে। এসব সাফল্যের পেছনে সফল শিক্ষার্থীদের বাবা মা বিরাট ভূমিকা পালন করেছেন বলে তিনি উল্লেখ করেন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ফার্মাস্টি মিঃ জি, কমিউনিটি এক্টিভিস্ট শাখাওয়াত আলী, প্রথম আলো উত্তর আমেরিকার সম্পাদক ইব্রাহীম চৌধুরী, বাংলা পত্রিকা সম্পাদক এবং টাইম টিভির সিইও আবু তাহের, সুবর্না কামাল, অনিকা তাকমি, মিঃ স্কট, শুভ জ্যোতি রয়, অভীক বড়ুয়া, মুশফিকা মিশি, নাজমুল ইসলাম, ইহান বিন মামুন, লাবিবা চৌধুরী, ফারিয়া আলম, মাসুদ রহমান, জামাল মাহমুদ প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীরা মামুন’স টিউটোরিয়েলে তাদের শিক্ষা অর্জনের ব্যক্তগত অভিজ্ঞতা ও সাফল্যের কথা তুলে ধরেন। অনুষ্ঠানে ‘বাঙ্গালী’ পত্রিকার সম্পাদক কৌশিক আহমেদ, ইউএসএ নিউজ অনলাইনের সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন সেলিম, আবু সাইদসহ মেধাবী শিক্ষার্থীরা তাদের পরিবার নয়ে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, মা বাবার চাপে ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার নয় নিজে যা হতে চাও তাই হও। সাফল্যের কোন শেষ নেই। যে জীবন সাফল্য দিয়ে শুরু হয়, তাও থমকে যাতে পারে। আবার থমকে যাওয়া জীবন সাফল্যের মোড় নেবে যদি প্রচেষ্টা চলমান থাকে।

পরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন শিল্পী আফজাল। নজরুলের কবিতা আবৃত্তি করেন ডাঃ নাহিদ খান।

কমিউনিটি এর আরও খবর

img

উচ্চতর ট্রাইব্যুনাল, ইমিগ্রেশন অ্যান্ড অ্যাসাইলাম চেম্বার অ্যাপয়েন্টমেন্টের বিচারক হলেন ব্রিটিশ বাংলাদেশি সাদ মিয়া

প্রকাশিত :  ১৪:৩১, ১৯ জুন ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ১৪:৫৮, ১৯ জুন ২০২৪

রাজা লর্ড চ্যান্সেলর ডান, মাননীয় অ্যালেক্স চাকি কেসি এমপি এবং ট্রাইব্যুনালের সিনিয়র প্রেসিডেন্ট স্যার কিথ লিন্ডব্লমের পরামর্শে ব্রিটিশ বাংলাদেশি সাদ মিয়াকে উচ্চ ট্রাইব্যুনালের বিচারক হিসাবে নিয়োগ করা হয়েছে। 

ট্রাইব্যুনালের সিনিয়র প্রেসিডেন্ট তাকে ৮ জুলাই ২০২৪ থেকে ইমিগ্রেশন এবং অ্যাসাইলাম চেম্বারে নিয়োগ দিয়েছেন।

কাজী সাদ মিয়া লন্ডনের বেথনাল গ্রিনে জন্মগ্রহণ করেন। পিতা প্রয়াত কাজী শাহনুর মিয়া ও মাতা আবেদা খাতুন। সাদ মিয়া লন্ডন বরো অফ টাওয়ার হ্যামলেটের একটি স্থানীয় স্কুলে পড়াশোনা করেছেন এবং বেথনাল গ্রীন এলাকায় বেড়ে উঠেছেন। তিনি তার আইনি কর্মজীবন এবং মানবাধিকারের ক্ষেত্রে ব্যাপক সম্পৃক্ততা তখন থেকে শুরু করেন যখন তিনি আইনি ক্ষেত্রে পাবলিক প্রো-বোনো সেক্টরে কাজ শুরু করেন। এর ফলে লন্ডন সাউথব্যাঙ্ক ইউনিভার্সিটিতে পার্ট-টাইম আইন অধ্যয়ন শুরু করেন এবং পরবর্তীকালে তিনি ইস্ট লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার বিষয়ে বিশেষত্বসহ আইনে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন।

জনাব সাদ মিয়া ২০০১ সাল পর্যন্ত ইমিগ্রেশন আদালতে তাদের মানবাধিকার আপিলের মাধ্যমে দুর্বল আপিলকারীদের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন, যখন তিনি সরকারের ওকিংটন ইমিগ্রেশন ডিটেনশন সেন্টারে সম্পূর্ণ আইনি পরিষেবার বিধানের জন্য আঞ্চলিক পরিচালক হিসাবে নিয়োগ গ্রহণ করেছিলেন; যেখানে তিনি কাজ করেছিলেন২০০৯ সাল পর্যন্ত,। এই সময়ে তিনি সরকার কর্তৃক প্রবর্তিত বেশ কয়েকটি জটিল কৌশলগত পাইলট সম্পর্কে তার জ্ঞান এবং দক্ষতার জন্য সর্বজনীন সম্মান অর্জন করেছিলেন, সেইসাথে সরকারের ডিটেনশন এস্টেট জুড়ে পরিচালিত 'দ্রুত-ট্র্যাক' প্রক্রিয়াগুলি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করেন।


কমিউনিটি এর আরও খবর