img

মেসের খাবারে মৃত সাপ, হাসপাতালে ১০ শিক্ষার্থী

প্রকাশিত :  ১৪:৩৫, ১৭ জুন ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ১৪:৪২, ১৭ জুন ২০২৪

মেসের খাবারে মৃত সাপ, হাসপাতালে ১০ শিক্ষার্থী

ভারতের বিহারের বাঙ্কা জেলার সরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের মেসের খাবারে মৃত সাপ পাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ঐ খাবার খেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছে ১০ শিক্ষার্থীকে। 

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) রাতে এই ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করে খবর প্রকাশ করেছে এনডিটিভি। 

হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, শিক্ষার্থীরা খাবারে বিষক্রিয়ার অভিযোগ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। তবে সবাই এখন সুস্থ।

এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হোস্টেল শিক্ষার্থীরা ঘটনার প্রতিবাদ করলে কলেজের এক কর্মী তাদের হুমকি দিয়েছেন।

কলেজের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র সানি মাহতো বলেন, ‘আমরা খাবারের মান নিয়ে এর আগেও সমস্যার সম্মুখীন হয়েছি। কিন্তু এবার তা সীমা অতিক্রম করেছে। খাবারে একটি সাপ পাওয়া গেছে। কেউ এটা সহ্য করতে পারে না। আমরা শিক্ষকদের কাছে বিষয়টি জানিয়েছি, কিন্তু তারা বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করেছে।’

জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আনশুল কুমারকে উদ্ধৃত করে লাইভ হিন্দুস্থান বলেছে, ‘কলেজে এর আগেও খাবার সংক্রান্ত অভিযোগ জানানো হয়েছিল। প্রশাসন এটি তদন্ত করেছে এবং কলেজকে একটি নির্দেশ জারি করেছে।’

প্রসঙ্গত, মেসটি একটি বেসরকারি ঠিকাদার পরিচালনা করে বলে জানা গেছে। খাবারের মান নিয়ে অভিযোগ করেছে কলেজটির মেয়ে শিক্ষার্থীরাও। 

img

হামাসের সক্ষমতা নিয়ে এবার যে স্বীকারোক্তি দিল ইসরাইল

প্রকাশিত :  ১১:৫১, ১৮ জুলাই ২০২৪
সর্বশেষ আপডেট: ১১:৫৩, ১৮ জুলাই ২০২৪

অবরুদ্ধ গাজায় গত ৯ মাসে উল্লেখযোগ্য ক্ষয়ক্ষতির মুখে পড়ার পরেও ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাসের যোদ্ধারা এখনো তেল আবিব এবং জেরুজালেম শহরে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাতে সক্ষম বলে স্বীকারোক্তি দিয়েছে দখলদার ইসরাইলি বাহিনী।

বুধবার প্রকাশিত এক বিবৃতিতে দখলদার ইসরাইলের বর্বর সামরিক বাহিনী এ স্বীকারোক্তি দেয়।

তাদের দাবি, গাজা উপত্যকায় চলমান আগ্রাসনের সময় ৬ জন ব্রিগেড কমান্ডার, ২০ জন ব্যাটালিয়ন কমান্ডার এবং ১৫০ জন কোম্পানি কমান্ডারসহ হামাসের প্রায় ১৪ হাজার যোদ্ধা হতাহত ও আটক হয়েছেন। তা সত্ত্বেও হামাস এখনো তেল আবিব ও জেরুজালেম শহরে দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করে হামলা চালাতে সক্ষম।

গত ৯ মাসে তারা হামাসের ৩৭ হাজার অবস্থান লক্ষ্য করে বিমান হামলা চালিয়েছে উল্লেখ করে ইসরাইলি বাহিনী আরও জানিয়েছে, তবে হামাসের অর্ধেকেরও বেশি যোদ্ধা এখনো বেঁচে আছেন। 

এছাড়া হামাসের অপর তিনটি ব্রিগেডের বিরুদ্ধে এখনও ইসরাইল যুদ্ধই শুরু করেনি বলে বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

অন্যদিকে ইসরাইলি বাহিনীর বক্তব্য অনুযায়ী, হামাসের সঙ্গে যুদ্ধে তাদের ৬৮২ জন সেনা নিহত এবং ৯ হাজারের বেশি আহত হয়েছে। আহতদের প্রায় ৩৬ ভাগই মানসিক সমস্যায় ভুগছেন। সূত্র: ইরনা