প্রকাশিত :  ১২:০৫, ২৮ মে ২০১৯
সর্বশেষ আপডেট: ১২:১৮, ২৮ মে ২০১৯

যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধজাহাজের নকশায় ভুল ধরলেন ট্রাম্প

যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধজাহাজের নকশায় ভুল ধরলেন ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধজাহাজ থেকে যুদ্ধবিমান উড্ডয়নের আধুনিক ইলেকট্রোম্যাগনেটিক পদ্ধতির খুঁত বের করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আধুনিক এ পদ্ধতির পরিবর্তে পুরোনো বাষ্পচালিত ব্যবস্থা ব্যবহারের পক্ষে মত দিয়েছেন ট্রাম্প।
আজ মঙ্গলবার ট্রাম্পের চলতি চার দিনের জাপান সফরের শেষ দিনে টোকিওতে মার্কিন নৌঘাঁটি পরিদর্শন করেন ট্রাম্প। টোকিওর দক্ষিণে ইউসুকাতে অবস্থিত এই ঘাঁটি দেশের বাইরে মার্কিনিদের সর্ববৃহৎ নৌঘাঁটি। সেখানে মার্কিন নাবিক ও মেরিন সেনাদের যুদ্ধজাহাজে বাষ্পচালিত বিমান উড্ডয়ন ব্যবস্থার তুলনামূলক সুবিধার কথা বলেন ট্রাম্প।
যুক্তরাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ সামরিক মিত্র দেশ জাপানে চার দিনের সফর শেষে ট্রাম্পের এ সফরে উল্লসিত হয়ে ওঠেন নৌঘাঁটির সেনারা। যুদ্ধবিমান উড্ডয়নে ব্যবহৃত বাষ্পচালিত ‘ক্যাটাপুল্টস’-এর আওয়াজ ছাপিয়ে যাচ্ছিল সেনাদের উল্লাসধ্বনি।
ট্রাম্প মার্কিন সেনাদের উদ্দেশে বলেন, ‘বৈদ্যুতিক ব্যবস্থার জন্য এত অর্থ খরচ করছি আমরা, অথচ কেউ জানে না প্রতিকূল পরিস্থিতিতে সেটা কতটা কাজে আসবে।’
মার্কিন নৌবাহিনী দুটি ‘ফোর্ড-ক্লাস’ (যুদ্ধবিমান বহনকারী যুদ্ধজাহাজ) কেনার পরিকল্পনা করছে বলে এ বছরের শুরুর দিকেই জানিয়েছিলেন ডেমোক্র্যাটিক সিনেটর টিম কাইন। ট্রাম্পের সঙ্গে ফোর্ডের তিক্ত সম্পর্কের ইতিহাস বেশ পুরোনো। বরাবরই বাষ্পচালিত ক্যাটাপুল্টসকে বাদ দিয়ে ইলেকট্রোম্যাগনেটিক লঞ্চ সিস্টেম কেনার বিরোধিতা করে আসছেন ট্রাম্প।
জাপানের নৌঘাঁটির কর্মকর্তাদের ট্রাম্প বলেন, নতুন উচ্চ-প্রযুক্তির ব্যবস্থার চেয়ে বাষ্পচালিত ক্যাটাপুল্টস বেশি কার্যকরী।
ট্রাম্প বলেন, ‘বাষ্পচালিত ব্যবস্থাটি প্রায় ৬৫ বছর ধরে নিখুঁতভাবে কাজ করছে। তারপরও তারা (ডেমোক্র্যাটরা) এই বৈদ্যুতিক ক্যাটাপুল্টের পেছনে ৯০ কোটি ডলার খরচ করার পক্ষপাতি।’
‘তারা (ডেমোক্র্যাটরা) দেখাতে চাইছে এরপর কী আসবে, তারপর কী হবে, তারও পর আর কী আসবে। নতুনত্ব আমরাও চাই, কিন্তু এটা বাড়াবাড়ি।’



Leave Your Comments


বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি এর আরও খবর